September 18, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, September 2nd, 2021, 9:33 pm

দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বন্যা, পরিস্থিতির আরও অবনতি

বাঘায় পদ্মার মদ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ও কালিদাসখালী এলাকা রক্ষার জন্য জিও ব্যাগ ফেলে রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে। ছবিটি বৃহস্পতিবার তোলা।

অনলাইন ডেস্ক :

ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, পদ্মার পানি প্রতিদিন আগের দিনের রেকর্ড ভাঙছে, প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। পরিস্থিতির আর অবনতি হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও গঙ্গা-পদ্মা নদ-নদীর পানির সমতল বাড়ছে, যা অব্যাহত থাকতে পারে। কুশিয়ারা ব্যতীত দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদীগুলোর পানি সমতল হ্রাস পাচ্ছে, যা অব্যাহত থাকতে পারে। বর্তমানে কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, জামালপুর, বগুড়া, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, পাবনা, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, শরীয়তপুর এবং ফরিদপুর অর্থাৎ মোট ১১টি জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত অবস্থায় রয়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় পরিস্থিতি আরও অবনতি হতে পারে। বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া জানিয়েছেন, বর্তমানে আটটি নদ-নদীর পানি ১৯টি স্থানে বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে। ধরলার পানি কুড়িগ্রামে বিপৎসীমার ৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, ব্রহ্মপুত্রের পানি চিলমারীতে ৪৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে এবং হাতিয়ায় ১০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া নতুন করে বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে ঘাঘট নদীর পানি, গাইবান্ধায় প্রবাহিত হচ্ছে বিপৎসীমার ১৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে। যমুনার পানি গাইবান্ধার ফুলছড়িতে বিপৎসীমার ৪৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, সাঘাটায় ২৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, জামালপুরের বাহাদুরাবাদে বিপৎসীমার ৫৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে ৬৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, কাজিপুরে ৫২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, সিরাজগঞ্জে ৫৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, টাঙ্গাইলের পোড়াবাড়িতে ২১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, পাবনার মথুরায় ২৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে ও মানিকগঞ্জের আরিচায় ২৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া আত্রাইয়ের পানি সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়িতে বিপৎসীমার ৫৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে, ধলেশ্বরীর পানি টাঙ্গাইলের এলাসিনে ৬৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে এবং পদ্মার পানি রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে বিপৎসীমার ৬২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পদ্মার পানি ভাগ্যকূলে ১ সেন্টিমিটার ও সুরেশ্বরে ১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এদিকে, তুরাগ নদের পানিও বিপৎসীমা ছাড়িয়েছে। কালিয়াকৈরে বইছে বিপৎসীমার ৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে। পাউবো জানিয়েছে, বিভিন্ন নদ-নদীতে তাদের পর্যবেক্ষণাধীন ১০৯টি স্টেশনের মধ্যে গত বুধবার ৬৮টিতে পানির সমতল বেড়েছে। কমেছে ৪০টি স্টেশনের পানির সমতল। অপরিবর্তিত আছে একটি স্টেশনের পানির সমতল। আর ১৯টি স্টেশনের পানির সমতল বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।