September 19, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, September 6th, 2021, 8:34 pm

মুক্তাগাছা বিএনপির আহবায়ক কমিটি বাতিলের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

জেলা প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ :

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা বিএনপির সদ্য ঘোষিত আহবায়ক কমিটিকে পকেট কমিটি উল্লেখ করে তা বাতিলের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপির একটি অংশ। ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে এবং চরম অবমূল্যায়ন করে ব্যক্তি স্বার্থে সুবিধাবাদী, অযোগ্য ও বিতর্কিত নেতাদের দিয়ে আহবায়ক কমিটি করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবী করা হয়। এজন্য ময়মনসিংহ (দক্ষিন) জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব জাকির হোসেন বাবলুকে দায়ী এবং কমিটিকে অযোগ্য নেতৃত্বের পকেট কমিটি দাবী করে দ্রুত বাতিলের দাবী জানিয়েছেন। রবিবার সন্ধ্যায় মুক্তাগাছা শহরের বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, উপজেলা বিএনপির সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জাকারিয়া হারুন। লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, গত ১৩ জুন ময়মনসিংহ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক জাকির হোসেন বাবলুর ব্যক্তি স্বার্থে দলের ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে তার নিজস্ব লোকজন দিয়ে মুক্তাগাছা উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি করা হয়। কমিটিতে অতীতে যারা মাঠের সক্রিয় রাজনীতি করেছেন এবং সদ্য বিলুপ্ত নির্বাচিত কমিটির সিনিয়র নেতাদেরকে বাদ দেয়া ও চরম অবমূল্যায়ন করা হয়েছে। বরাবরই সুবিধাবাদী , আওয়ামীলীগের সাথে লিয়াঁজো করে চলা এবং সরকার বিরোধী আন্দোলনের সময় সংবাদ সম্মেলন করে বেগম খালেদা জিয়াকে আগুন সন্ত্রাসের নেত্রী ঘোষণা দিয়ে বিএনপি থেকে পদত্যাগী হাবিবুর রহমান(রতন)কে আহবায়ক এবং আওয়ামীলীগের যোগদানের ঘোষণা দিয়ে সরকারী দলের সাথে যোগসাজস করে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে দলের ক্ষতি করা কামরুজ্জামান লেবুকে প্রথম যুগ্ম আহবায়ক করা হয়েছে। এছাড়াও কমিটিতে ইতোপূর্বে যারা মাঠে থেকে দলের জন্য শ্রম দিয়েছেন কাজ করেছেন তাদেরকে জায়গা দেয়া হয়নি। সদ্যবিলুপ্ত উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ সিনিয়র নেতাদেরকে চরম অবমূল্যায়ন করা হয়েছে। তারা এই কমিটি মানেন না বলে জানান। তারা বিএনপিকে শক্তিশালী করার স্বার্থে দ্রুত এই কমিটি বাতিল করে ত্যাগী নেতাদের নিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণার দাবী জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে ময়মনসিংহ (দক্ষিন) জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব জাকির হোসেন বাবলুকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন , ” আমাদের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনায় দলীকার্যক্রম পরিচালিত হয় । আহবায়ক কমিটির বিরোধিতা যারা করছেন তাদের দুইজন ছাড়া সবাই এই আহবায়ক কমিটিতে আছেন, এটা একটা ছোট আকারের আহবায়ক কমিটি, এই কমিটিতে দুই একজন বাদপরে থাকতে পারেন। পরবর্তীতে যখন বড় আকারের কমিটি হবে তখন সরাসরি ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিতদের নিয়ে কমিটি করা হবে । যোগ্য ইতোপূর্বে যারা মাঠে থেকে দলের জন্য শ্রম দিয়েছেন, কাজ করেছেন আশাকরি এমন কেউ তখন বাদযাবেনা। বিএনপিকে শক্তিশালী করতে কোন ত্যাগী নেতাকর্মী দলীয়শৃঙ্খলা ভঙ্গকরে এই কমিটি মানিনা না বলতে পারেনা।”
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হায়দার রেজা আনাম, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও সদ্য বিলুপ্ত উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম শাহরিয়ার শরীফ, উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুদ্দিন আহম্মেদ বাবুল, বিএনপি নেতা নুরুল হুদা নুরু, আবু বকর সিদ্দিক, ছাত্রনেতা এমরুল হাসান ইমরুলসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। ঊল্লেখ্য সংবাদ সম্মেলনের আগে একই স্থানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ##