September 23, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, August 31st, 2021, 7:43 pm

রোনালদোর সঙ্গে ইউনাইটেডের চুক্তি ২ বছরের

অনলাইন ডেস্ক :

চুক্তির ব্যাপারে দুই ক্লাব একমতে পৌঁছেছিল গত সপ্তাহেই। বাকি আনুষ্ঠানিকতা শেষে এবার এলো চূড়ান্ত ঘোষণা। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ৩৬ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের মেডিকেল ও ভিসার প্রক্রিয়া সেরে এবং ব্যক্তিগত শর্তগুলোর ব্যাপারে একমতে আসার পর মঙ্গলবার চলতি গ্রীষ্মকালীন দলবদলের শেষ দিনে এই ঘোষণা দেয় ওল্ড ট্রাফোর্ডের দলটি। সুযোগ রাখা হয়েছে চুক্তির মেয়াদ আরও এক বছর বাড়ানোর। বিবৃতিতে ট্রান্সফার ফির বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। তবে রয়টার্স জানিয়েছে, অঙ্কটা দেড় কোটি ইউরো। শর্ত সাপেক্ষে এর সঙ্গে আরও ৮০ লাখ ইউরো যুক্ত হতে পারে। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের চেনা আঙিনায় প্রিয় জার্সি গায়ে চাপিয়ে আবারও মাঠে নামতে তর সইছে না রোনালদোর। বিবৃতিতে সাবেক ক্লাবে ফিরতে পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার। “ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এমন একটা ক্লাব যার জন্য আমার হৃদয়ে বিশেষ একটা জায়গা সবসময়ই রয়েছে। আর গত শুক্রবার ঘোষণার পর থেকে যে সব বার্তা পেয়েছি তাতে আমি অভিভূত।” “ওল্ড ট্রাফোর্ডের ভরা গ্যালারির সামনে খেলার জন্য এবং সমর্থকদের আবারও দেখার জন্য আমার তর সইছে না।” রোনালদো এখনই অবশ্য ইউনাইটেড শিবিরে যোগ দিচ্ছেন না। আন্তর্জাতিক বিরতির পর আগামী ১১ সেপ্টেম্বর ঘরের মাঠে নিউক্যাসল ইউনাইটেডের বিপক্ষে আবারও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সিতে দেখা যেতে পারে তাকে। ২০১৮ সালে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ১০ কোটি ইউরো ট্রান্সফার ফিতে রোনালদোকে ইউভেন্তুস দলে টেনেছিল লম্বা সময়ের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাখরা ঘোচাতে; কিন্তু সেরি আর সফলতম দলটির সেই আশা পূরণ হয়নি। তুরিনের দলটি সবশেষ ইউরোপ সেরার মুকুট জিতেছিল ১৯৯৬ সালে। ইউভেন্তুসের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১৩৪ ম্যাচে ১০১ গোল করেন রোনালদো। জেতেন দুটি লিগ ও একটি ইটালিয়ান কাপ। ইউভেন্তুস ছাড়তে চাওয়ার বিষয়টি গত সপ্তাহে কোচ মাস্সিমিলিয়ানো আল্লেগ্রিকে জানিয়েছিলেন রোনালদো। গুঞ্জন ছিল, ম্যানচেস্টারেরই আরেক ক্লাব সিটিতে যোগ দিতে যাচ্ছেন তিনি; কিন্তু শেষ পর্যন্ত ফেরেন সাবেক ক্লাবেই। আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ গোলদাতাকে দলে পেয়ে উচ্ছ্বসিত ইউনাইটেড কোচ উলে গুনার সুলশার। “ক্রিস্তিয়ানোকে বর্ণনা করার মত ভাষা নেই। সে কেবল দুর্দান্ত একজন খেলোয়াড়ই নয়, মানুষ হিসেবেও সে অসাধারণ।” “এত দীর্ঘ সময় শীর্ষ পর্যায়ে খেলার ইচ্ছে ও সামর্থ্য রাখতে বিশেষ একজন হতে হয়।” রোনালদোকে ফিরে পেয়ে উচ্ছ্বসিত দলের বর্তমান ও সাবেকরাও। ইউনাইটেড গোলরক্ষক দাভিদ দে হেয়া বলেছেন, রোনালদোকে ক্লাবে ফিরে পাওয়াটা একটা ‘স্বপ্ন’। দলটির সাবেক অধিনায়ক রয় কেনের মতে, রোনালদো হলেন একজন ‘জাত বিজয়ী’। ২০০৩ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত সময়কালে প্রিমিয়ার লিগের সফলতম দলটিতে প্রথম অধ্যায়ে ২৯২ ম্যাচে ১১৮ গোল করেছিলেন রোনালদো। দলটির হয়ে একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, তিনটি প্রিমিয়ার লিগ, দুটি লিগ কাপ, একটি করে এফএ কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপ জেতেন তিনি। এই ক্লাবে থাকতেই ২০০৮ সালে জেতেন প্রথম ব্যালন ডি’অর। তার হাত ধরেই সবশেষ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছিল ইউনাইটেড। ২০০৯ সালের জুনে আট কোটি পাউন্ডের সেই সময়ের ট্রান্সফার ফির রেকর্ড গড়ে ইউনাইটেড থেকে রিয়াল মাদ্রিদে নাম লেখান রোনালদো। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে কাটান স্বপ্নের নয়টি মৌসুম। রিয়ালকে জেতান সম্ভাব্য সব কিছু; চ্যাম্পিয়ন্স লিগ চারবার, লা লিগা দুইবারসহ অনেক শিরোপা।