July 13, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, January 21st, 2024, 8:46 pm

অবতরণের পর জাপানি চন্দ্রযানে ত্রুটি

অনলাইন ডেস্ক :

চাঁদের মাটিতে গত শনিবার সফলভাবে অবতরণ করেছে জাপানের চন্দ্রযান ‘স্মার্ট ল্যান্ডার ফর ইনভেস্টিগেটিং মুন (স্লিম)’। এর মধ্য দিয়ে বিশ্বের মাত্র পঞ্চম দেশ হিসেবে পৃথিবীর উপগ্রহে যান অবতরণের কৃতিত্ব অর্জন করল জাপান। তবে সফল অবতরণের পরপরই সোলার প্যানেলে ত্রুটি দেখা দেওয়ায় এর কার্যক্ষমতা ক্রমেই ফুরিয়ে আসছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ২০ মিনিটের অবতরণ পর্ব শেষে জাপানের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা জাক্সা জানিয়েছে, তাদের চন্দ্রযান সফলভাবে চাঁদের একটি গহ্বরের কাছে অবতরণ করেছে। পৃথিবী থেকে এর সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনও করা গেছে। ‘স্লিম’ ছাড়াও এর আরেক নাম ‘মুন স্নাইপার’। এক সংবাদ সম্মেলনে জাক্সার কর্মকর্তা হিতোশি কুনিনাকা বলেন, সোলার সেল ঠিকমতো কাজ না করলে মাত্র কয়েক ঘণ্টা সচল থাকবে ‘মুন স্নাইপার’।

এ কারণে চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে যতটা সম্ভব তথ্য সংগ্রহ করে নেওয়াকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে কুনিনাকা বলেন, সূর্যের কোণ পরিবর্তিত হলে ব্যাটারি আবার সচল হলেও হতে পারে। বিজ্ঞানীরা যেদিকে পরিকল্পনা করেছিলেন সোলার প্যানেলটি সেদিকে মুখ ফেরাতে পারছে না বলে মনে করা হচ্ছে। জাক্সার এই কর্মকর্তা বলেন, যদি অবতরণ সফল না হতো, তাহলে চন্দ্রযানটি খুব উচ্চগতিতে চাঁদে নেমে বিধ্বস্ত হতো। আর এমনটা হলে এই অনুসন্ধানের সব কার্যকারিতা নষ্ট হয়ে যেত। মুন ‘স্নাইপার’ থেকে পৃথিবীতে তথ্য আসার অর্থ অবতরণটি সফল হয়েছে। জাক্সা জানিয়েছে, মহাকাশযান ‘মুন স্নাইপার’ থেকে যে খুদে রোবটটি চাঁদের মাটিতে অনুসন্ধান চালাবে সেটি আকারে একটি টেনিস বলের চেয়ে সামান্য বড় এবং ওজনে একটি বড় আলুর সমান। এতে রয়েছে দুটি ক্যামেরা।

চাঁদে যানের অবতরণ সফল হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা। তবে তিনি বলেন, এর সৌর প্যানেল নিয়ে আরো বিশদ বিশ্লেষণের প্রয়োজন ছিল। চাঁদে সফল অবতরণ করায় জাপানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার প্রধান বিল নেলসন। দুটি ব্যর্থ চন্দ্রাভিযান এবং সম্প্রতি উৎক্ষেপণের পর একটি রকেট বিস্ফোরিত হওয়ার পর এবারের অভিযানের সফলতা নিয়ে আশাবাদী ছিল জাপান। বিজ্ঞানীদের ধারণা, যে বিশেষ অবস্থানে মহাকাশযানটি অবতরণ করেছে সে অঞ্চলে থাকা পাথর চাঁদ ও পৃথিবীর ইতিহাস অনুসন্ধানে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে। চাঁদে প্রথম মানব অবতরণের ৫০ বছর পার হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন দেশের সরকার ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান নতুন করে চন্দ্রজয়ের উদ্যোগ নিয়েছে। তবে এই অভিযানে নিরাপদ অবতরণে ব্যর্থতা, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া এবং অন্যান্য প্রযুক্তিগত সমস্যার ঝুঁকি বিবেচনায় নিতে হচ্ছে তাদের। জাপানের আগে মাত্র যুক্তরাষ্ট্র, সোভিয়েত ইউনিয়ন, চীন ও ভারত চাঁদের মাটিতে যান অবতরণে সফলতা পেয়েছে। সূত্র : এএফপি