December 9, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, May 4th, 2021, 9:26 am

অভিনয় ছেড়ে ব্যবসায় মনোযোগী সুজানা

ডেক্স রিপোর্ট :

মিডিয়ায় সব সময়ের প্রিয়মুখ সুজানা জাফর। বিজ্ঞাপন, মিউজিক ভিডিও ও নাটকে কাজ করেছেন দীর্ঘ ১৬ বছর।
তিনি তো আছেন, তাহলে করেছেন কেন লিখলাম? কারণ আমরা অনেকেই জানি তিনি এখন আর মিডিয়াতে কাজ করছেন না।

এত সুনাম, খ্যাতি-জনপ্রিয়তা সব পেছনে ফেলে দীর্ঘ দিনের ক্যারিয়ার ছেড়ে তিনি মন দিয়েছেন ধর্মপালন ও নিজের ব্যবসায়। এছাড়া মানুষের জন্য কাজ করছেন এই প্রিয় তারকা।

বাংলানিউজের লাইফস্টাইল এডিটর শারমীনা ইসলামের সঙ্গে এক দীর্ঘ আড্ডায় নিজের সম্পর্কে অনেক কিছুই জানালেন সুজানা জাফর।

ছোটবেলা থেকেই অসম্ভব মেধাবী ও অনিন্দ সুন্দরী তিনি। বড় হতে হতে তার সৌন্দর্য ছাপিয়ে আরও যে বিষয়টি সামনে আসে, তা হলো মানবিকতা। মানুষের কষ্ট-ক্ষুধা সহ্য করতে পারেন না সুজানা। তিনি চেষ্টা করেন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে।

তিনি দুবাই গিয়ে লকডাউনের মধ্যে পড়ে যান। দীর্ঘ ৫ মাস সেখানে আটকে থাকেন। তবে এই সময়টায় অনেক প্রবাসী বাঙালি শ্রমিকের জন্য কয়েক মাসের খাবারের ব্যবস্থা করেন তিনি।

এখন যেহেতু নাটক বা বিজ্ঞাপনে কাজ করছেন না, তাই সে আলোচনায় না গিয়ে জানতে চাইলাম, কেমন লাগে আলো ঝলমলে দুনিয়া থেকে সরে থাকতে? উত্তরে সুজানা মিষ্টি হেসে জানালেন, কখনোই খুব বেশি কাজ করা হয়নি। আবার কাজের মাঝেও অনেক সময় বিরতি নিয়েছি। মানুষ তাদের ভালোবাসায় সব সময়ই আমাকে মনে রেখেছে। মিডিয়াতে কাজ করার সবচেয়ে বড় পাওয়া এটা।

সুজানা তার পোশাকই শুধু নয়, লাইফস্টাইলের অনেক কিছুতেই এনেছেন আমূল পরিবর্তন, যার অন্যতম হচ্ছে তিনি দিনের বেশিরভাগ সময় ইবাদত করে কাটান। প্রচুর বই পড়েন, বিশেষ করে ধর্মীয় লেখা। ২০১৮ সালের নভেম্বরে ওমরাহ হজ পালন করেন সুজানা। তারপর থেকেই তিনি ইসলাম ধর্ম জানতে অনুপ্রাণীত হয়েছেন।

তিনি যে এতো দিনের কাজ করা মিডিয়াকে ‘গুডবাই’ বললেন, তার ভক্তরা এটা কীভাবে নিয়েছেন! সুজানা বলেন, তারা সুন্দরভাবেই নিয়েছেন আমাকে। এটা বুঝতে পারি কোনো অনুষ্ঠানে গেলে বা সামাজিক মাধ্যমে ছবি দিলেও। আগে যখন পর্দা করি নাই, তখন ছবি দিলে ভক্তরা নাইস, বিউটিফুল বা কিউট লিখতো আর এখন তারা লেখেন, আপু আপনার জন্য দোয়া করি। এখানেই কিন্তু বোঝা যায়, আমরা প্রিয় মানুষদের ভালো থাকার জন্যই দোয়া করি। তার মানে তারা আমাকে আগের চেয়েও আপন করে নিয়েছেন। তাদের ভালোবাসার সঙ্গে সঙ্গে আমার প্রতি সম্মানটাও বেড়েছে।

এখন তো আপনি নিয়মিত হিজাব পরছেন, হিজাব পরায় কোনো সমস্যা হয় কখনো? সুজানা বলেন, একেবারেই না। বরং নিজেকে অনেক নিরাপদ মনে হয়। তবে গরমের সময়টায় বাইরে গেলে চুল ঘেমে একটু অস্বস্তি হয়, তখন প্রয়োজন হয় সামান্য বাড়তি যত্ন।

এক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো, যারা এই গরমে সুজানার মতো হিজাব পরতে চান, তারা অবশ্যই চুল ও মাথার ত্বকের বাড়তি যত্ন নেবেন। নিয়মিত শ্যাম্পু করবেন। শ্যাম্পু বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে নিউট্রিয়াম ১০ যুক্ত শ্যাম্পু বেছে নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। কারণ এটি মাথার ন্যাচারাল প্রটেকটিভ লেয়ার অ্যাক্টিভেট করতে সাহায্য করে, যার ফলে দীর্ঘ সময় চুল খুশকিমুক্ত থাকে। নিউট্রিয়াম ১০ যুক্ত যেসব হিজাব স্পেশাল শ্যাম্পু বাজারে পাওয়া যায়, তার মধ্যে ক্লিয়ার হিজাব পিওর শ্যাম্পু খুবই জনপ্রিয়। কারণ ক্লিয়ার হিজাব পিওর শ্যাম্পু নিউট্রিয়াম ১০ সহ চুলের প্রয়োজনীয় অন্যান্য ভিটামিন-মিনারেলস যোগানোর ক্ষেত্রে খুবই কার্যকরী, তাছাড়া এটি একটি ইউনিলিভার পণ্য। তাই নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া যদি বিদেশি শ্যাম্পু ব্যবহার করতে চান তবে আসল-নকল যাচাই করে নেবেন।

হিজাবি বা হিজাব ছাড়া সুজানা সব সময় সুন্দর, তার এই সৌন্দর্যের রহস্য জানতে চায় সবাই, আসলেই কি কোনো রহস্য রয়েছে? সুজানা বলেন, সৌন্দর্য যেটুকু দেখেন এটা তো জন্ম থেকেই পেয়েছি। আসলে আমার নানীর বংশধররা ইরানী ছিলেন, তার থেকেই আমার মা-খালারা সবাই অনেক বেশি সুন্দর। আমিও হয়তো একটু পেয়েছি।

সৌন্দর্য রক্ষায় সুজানা কী করে? নিয়মিত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা হয়। আর মাঝে মাঝে ঘরেই প্রাকৃতিক প্যাক বানিয়ে ত্বকে মেখে রাখি কিছুক্ষণ, নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করি। বাইরের খাবার এমনিতেই কম পছন্দ করি, নিয়মিত চেষ্টা করি ফল ও সবজি খেতে আর প্রচুর পানি পান করি এই তো।

গল্পে গল্পে জানা গেল তিনি খুব ভালো রান্নাও করেন। আর ব্যবসা কিসের জানতে চাইলে সুজানা বলেন, নিজের একটি ফ্যাশন হাউসের ব্যবসা রয়েছে তার। দুবাই থেকেই তার সুজানা’স ক্লোজেটের জন্য সামগ্রী নিয়ে আসেন দেশে। তবে নিজেও ডিজাইন করেন অনেক পোশাক। মোটামুটি ব্যবসাটা গোছানো হয়েছে।

জীবনের অনেক কিছুই তো গুছিয়ে নিয়েছেন, জীবন গোছাবেন কবে, মানে বিয়ে করছেন কবে? সুজানার সোজা উত্তর, ‘আপু জন্ম, মৃত্যু ও বিয়ে আল্লাহর হাতে। বিয়ে এ বছরেই করতে চাই, যদি পরিবার আর নিজের মনের মতো কাউকে পাই। পাত্র খুঁজছি…। ‘