May 26, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, February 2nd, 2022, 8:50 pm

অলিম্পিকে হোটেলে খাবার পরিবেশন করবে রোবট

অনলাইন ডেস্ক :

আর মাত্র একদিন বাকি। এরপরই ৪ঠা ফেব্রুয়ারি উদ্বোধন হওয়ার কথা বেইজিং শীতকালীন অলিম্পিক। এই বিশাল আয়োজন এমন এক সময়ে হতে যাচ্ছে যখন করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে, বিভিন্ন স্থান রয়েছে কঠোর বিধিনিষেধের অধীনে। এমন অবস্থায় বেইজিংয়ের একটি হোটেল ব্যতিক্রমী পদক্ষেপ নিয়েছে। ওই হোটেলে যাওয়া খদ্দেরকে খাদ্য সরবরাহের জন্য মানুষের পরিবর্তে ব্যবহার করা হচ্ছে রোবট। মানুষের সঙ্গে মানুষের মিথস্ক্রিয়া বা সংস্পর্শে আসার বিষয়টি কমিয়ে আনতে এমন উদ্যোগ নিয়েছে ওই হোটেল। রুম সার্ভিস স্টাফের পরিবর্তেও ব্যবহার করা হচ্ছে রোবট। এসব রোবট কিভাবে খুব সহজে এবং যথাযথভাবে অতিথিকে খাদ্য সরবরাহ করছে তার একটি ভিডিও শেয়ার করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে দেখা যায়, দরজার সামনে এসে দাঁড়ায় ওই রোবট। হোটেলের অতিথি একটি পিনকোড টাইপ করেন। এরপরই প্যাকেট করা খাদ্য সরবরাহ করে রোবট। তার কাছ থেকে খাবার নেয়ার পর রোবটটি ক্লোজ হয়ে যায় এবং পিছন দিকে চলে যায়। আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, সিলিং থেকে খাবার পরিবেশন করছে একটি রোবট। মিডিয়ার নৈশকালীন এলাকাটি রোবট দিয়ে ভরে ফেলা হয়েছে। সেখানে মানুষের উপস্থিতি রাখেনি কর্তৃপক্ষ। ফলে মানুষের পরিবর্তে এত রোবট সেখানে মোতায়েন করায় সবার দৃষ্টি কেড়েছে বিষয়টি। রোবট শেফ হ্যামবার্গার বানিয়ে দিচ্ছে। তারপর উপর থেকে ডিশ পরিবেশন করছে টেবিলে। এবিসি নিউজের মতে, জাপানের টোকিওতে অলিম্বিক গেমসের সময় মিডিয়া, অ্যাথলেট ও কর্মকর্তারা যত সহজে একজন অন্যজনের কাছাকাছি যেতে পেরেছেন বেইজিং অলিম্পিকে তেমনটি হবে না। সেখানে কোভিড প্রোটকল বাস্তবায়ন করা হবে কঠোরভাবে। রয়টার্সের রিপোর্ট অনুযায়ী, বেইজিংয়ের ‘ক্লোজড লুপ’-এর চারপাশ সিল করে দেয়া হয়েছে। বসানো হয়েছে প্রহরা। ওই লুপে যেসব মানুষ যাবেন, তাদেরকে প্রতিদিন পিসিআর টেস্ট করাতে হবে। এই টেস্ট করবেন স্টাফরা। পাস স্ক্যান করাতে হবে অংশগ্রহণকারীদের। আগের ২৪ ঘন্টায় তারা কোভিড নেগেটিভ ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত করতে একটি সবুজ কোডের জন্য অপেক্ষায় থাকতে হবে। লুপের বাইরের কোনো রেস্তোরাঁ থেকে খাবার পরিবেশন করা যাবে না। ওয়েলিংটনে ইউনিভার্সিটি অব ওটাগোতে জনস্বাস্থ্য বিষয়ক প্রফেসর মাইকেল বেকার বলেন, আমি মনে করি ব্যাপকভাবে ওমিক্রন সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া প্রতিরোধ করা খুব কঠিন হবে চীনের জন্য। তবে অলিম্পিকে অংশগ্রহণকারীরা যেহেতু বিভিন্ন ইভেন্টের জন্য এক এক স্থানে থাকবেন, তাই এই সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণযোগ্য।