January 29, 2023

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, December 2nd, 2022, 8:06 pm

অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি আর্জেন্টিনা

অনলাইন ডেস্ক :

নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে গ্রুপ পর্বের বাঁধা পেরিয়ে কাতার বিশ্বকাপে আগামীকাল শনিবার দিবাগত রাতে নক আউট পর্বে আহমাদ বিন আলী স্টেডিয়ামে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে টুর্ণামেন্ট ফেবারিট আর্জেন্টিনা। দুটি দলই অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে নক আউট পর্বে খেলতে এসেছে। আর সেই আত্মবিশ্বাস থেকে সামনে এগিয়ে যাবার সুযোগ কেউই হাতছাড়া করতে চাইবে না। আর্জেন্টিনা প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের কাছে পরাজিত হওয়ায় সব হিসেব নিকেষ পাল্টে দিয়েছিল। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়া প্রথম ম্যাচে ফ্রান্সের কাছে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত হবার পর শেষ ম্যাচে ডেনমার্ককে ১-০ গোলে পরাজিত করে নক আউট পর্বের টিকিট পায়। সৌদির কাছে বিস্ময়করভাবে পরাজিত হয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ের শঙ্কায় পড়া আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় ম্যাচে মেক্সিকোর কঠিন পরীক্ষার মুখোমুখি হয়। পরাজিত হলেই বিদায় নিশ্চিত এমন কঠিন সমীকরণে শেষ পর্যন্ত অবশ্য লিওনের মেসির যাদুতে আর্জেন্টাইনরা পার পেয়ে যায়। এরপর পোল্যান্ডের সাথে ২-০ গোলে জয়ী হয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবেই নক আউট পর্বে খেলতে এসেছে। কোচ লিওনেল স্কালোনির বিবেচনায় এ্যালেক্সিস ম্যাক এ্যালিস্টার মূল একাদশে সুযোগ পেয়েই কোচের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেণ। পোলিশদের সাথে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে তার গোলেই লিড পায় আর্জেন্টিনা। এরপর জুলিয়ান আলভারেজের ৬৭ মিনিটের গোলে আলবিসেলেস্তেদের জয় নিশ্চিত হয়। এই জয়ে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা শেষ ১২টি আসরের ১১টিতেই নক আউট পর্বের টিকিট নিশ্চিত করে। গ্রুপ পর্ব শেষে মাত্র দুই দিনের বিশ্রাম শেষে আবারো মাঠে নামতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা। বিশেষ করে গ্রুপ-সি’র শীর্ষস্থান পেতে শেষ দুটি ম্যাচেই লড়াই করতে হয়েছে স্কালোনির শিষ্যদের। স্কালোনি জানেন গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিলে কোন যুক্তি দিয়েই এই পরাজয়ের ব্যাখ্যা তিনি দিতে পারবেন না। দলীয় শক্তি বৃদ্ধিতে তাই কোপা আমেরিকা জয়ী কোচ বেশ কিছু প্রতিভাবান খেলোয়াড়কে মূল দলে সুযোগ করে দিয়ে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। যাদের মধ্যে অন্যতম ম্যাক এ্যালিস্টার, আলভারেজ, বেনফিকান এনজো ফার্নান্দেজ। তাদের সাথে মেসির উপর পুরো দলের ভার তো রয়েছেই। আগামীকালের ম্যাচে জয়ী হতে পারলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখা যাবে নেদার‌্যলান্ড বনাম যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার জয়ী দল। গত সপ্তাহে সৌদি আরবের কাছে হেরে ৩৬ ম্যাচ জয়ের ধারা ভাঙ্গার পর আর্জেন্টিনার সামনে এখন শুধুই জয়ের নেশা। দুই দলের মোকাবেলায় সকারুজরা চারবারই আর্জেন্টিনার কাছে পরাজিত হয়েছে। তবে টোকিও অলিম্পিকে গত বছর অস্ট্রেলিয়ার বয়সভিত্তিক দলটির কাছে আর্জেন্টিনা ২-০ গোলে পরাজিত হয়েছিল। ২০০৬ সালের পর প্রথমবারের মত নক আউট পর্বে খেলতে আসা অস্ট্রেলিয়া এবারের সুযোগটি পুরোপুরি কাজে লাগাতে মুখিয়ে আছে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের পরে গ্রুপ-ডি’র দ্বিতীয় স্থানে থেকে শেষ ষোলতে খেলতে আসা গ্রাহাম আর্নল্ডের অস্ট্রেলিয়া ফ্রান্সের সাথে গোল ব্যবধানে পিছনে পড়েছিল। তিউনিশিয়া ও ডেনমার্ককে হারিয়ে তারা ফ্রান্সের সমান ৬ পয়েন্ট অর্জন করেছে। ডেনমার্কের বিরুদ্ধে ডিফেন্ডার হ্যারি সুটার ও গোলরক্ষক ম্যাট রায়ান দুর্দান্ত খেলেছেন। তাদের কারনেই ড্যানিশরা রক্ষনভাগ ভাঙ্গতে পারেনি। ৬০ মিনিটে ম্যাথিউ লেকির একমাত্র গোলে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের পাশাপাশি শেষ ষোল নিশ্চিত হয়। আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে প্রথমবারের মত শেষ আট নিশ্চিত করার স্বপ্নে বিভোর এখন অস্ট্রেলিয়া। শেষ দুই ম্যাচে দাপুটে জয় তাদের সেই আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে। আর তা যদি শেষ পর্যন্ত হয়েই যায় তবে নক আউট পর্বের টিকিট পাবার পর মেলবোর্নের রাস্তায় যেমন আনন্দ উদযাপন হয়েছিল তা সিডনি, এডিলেড ছাড়িয়ে পুরো অস্ট্রেলিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। জয়ী দলটির উপর আস্থা থাকলেও কোচ স্কালোনি তার মূল একাদশ নিয়ে আরো একবার চিন্তা করছেন বলেই আভাস রয়েছে। সেন্ট্রাল ডিফেন্সে লিসান্দ্রো মার্টিনেজের সাথে লিওর নিকোলাস টাগলিয়াফিকো ও লেফট-ব্যকে মার্কোস এ্যাকুইনাকে দেখা যেতে পারে। আর্জেন্টিনার প্রথম দুই ম্যাচে বদলী বেঞ্চ থেকে উঠে এসে নিজেকে দারুণভাবে প্রমান করা লিনড্রো ফার্নান্দেজকে জায়গা ছেড়ে দিতে এনজো ফার্নান্দেজকে চলে যেতে হতে পারে বদলী বেঞ্চে। বুধবারের ম্যাচে আক্রমনভাগে ছিলেন না লটারো মার্টিনেজ। কিন্তু জুলিয়ান আলভারেজের গোল তাকে আবারো বদলী বেঞ্চেই রাখতে পালে। কারণ মূল একাদশে এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া ও মেসির থাকার শতভাগ নিশ্চিত। অস্ট্রেলিয়া দলেও পরিবর্তনের সম্ভাবনা ক্ষীণ। নাথানিয়েল এ্যাটকিনসন ও ফ্রান কারাসিচের স্থানে মূল একাদশে দেখা যেতে পারে রাইট-ব্যাক মিলোস ডিগেনেককে। ডেনমার্কেও বিরুদ্ধে ৪৫ মিনিট মাঠে থাকা ক্রেইগ গুডউইনের স্থানে দ্বিতীয়ার্ধে নেমেছিলেন কিনু বাকুস। অসিদের মূল দলে বাকুসের ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে।