January 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, December 19th, 2021, 1:36 pm

আটঘরিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকের মৃত্যুর অভিযোগ, লাশ নিয়ে অবরোধ বিক্ষোভ

ফাইল ছবি

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা :
পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার দেবোত্তর ইউনিয়নে নির্বাচনী প্রচারণা ও গণসংযোগে প্রতিপক্ষের হামলায় সেলিম হোসেন (৩৫) নামের এক যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সন্ধ্যায় তার মৃত্যু হয়।

হামলা ও মৃত্যুর জন্য নৌকার সমর্থকদের দায়ী করেছেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী। তবে পুলিশের বক্তব্য, মৃত সেলিম হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন।

ঘটনার পর শনিবার রাতে সেলিমের লাশ নিয়ে উপজেলার দেবোত্তর বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

মৃত সেলিম হোসেন উপজেলার দেবোত্তর ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের জমসেদ আলীর ছেলে।

প্রত্যাক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার দুপুরে উপজেলার দেবোত্তর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদের স্বতন্ত্র প্রার্থী কে এম শাহীন (আনারস প্রতিক) কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে রায়পুর গ্রামে গণসংযোগে গেলে নৌকার কর্মী-সমর্থকরা হামলা চালায়। এতে কয়েকজন আহত হয। তাদের মধ্যে সেলিম হোসেনকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

আহতরা হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী কে এম শাহীন, ইউপি সদস্য আব্দুল আওয়াল, সাবেক ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলাম, জামাল উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, আসাদুল ইসলাম। তারা প্রাথমিক চিকৎসা নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে, মৃত সেলিমের মরদেহ নিয়ে সন্ধ্যায় বিক্ষোভ মিছিল করে সমর্থকরা স্বজনরা। বিক্ষোভ শেষে উপজেলার সদর দেবোত্তর বাজার চৌরাস্থা মোড়ে লাশ রেখে প্রায় ১ ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন।

পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাকসুদা আক্তার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবিরের হস্থক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়।

এ বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী কে এম শাহীন অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনী প্রচারনায় আমার কর্মী-সমর্থকদের উপর নৌকার প্রার্থী মোহাইমিন হোসেন চঞ্চলের কর্মী সমর্থকরা হামলা চালালে সেলিম হোসেন আহত হয়। আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত্যু হয়।

তবে, হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে নৌকার প্রার্থী মোহাইমিন হোসেন চঞ্চল বলেন, হামলার কোনো ঘটনা ঘটেনি। সেলিমের মৃত্যু হার্ট অ্যাটাকে হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তার মৃত্যুকে পুঁজি করে মিথ্যা অভিযোগ করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের অপচেষ্টা করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, একটি বিচ্ছন্ন ঘটনা ঘটেছে। কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।