January 19, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, December 13th, 2021, 7:44 pm

আতলেতিকোকে হারাল রিয়াল মাদ্রিদ

অনলাইন ডেস্ক :

রক্ষণ জমাট রেখে মাঝমাঠ ও আক্রমণে পরিকল্পিত ফুটবল উপহার দিল রিয়াল মাদ্রিদ। পুরো মাঠেই আধিপত্য করল তারা। আক্রমণত্রয়ীর দুজন পেলেন গোলের দেখা, অন্যজন রাখলেন অবদান। নজরকাড়া পারফরম্যান্সে আতলেতিকো মাদ্রিদকে বেশ সহজেই হারাল কার্লো আনচেলত্তির দল। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে রোববার রাতে মৌসুমের প্রথম মাদ্রিদ ডার্বি ২-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। করিম বেনজেমা দারুণ নৈপুণ্যে দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মার্কো আসেনসিও। দুটি গোলেই অ্যাসিস্টের ভূমিকায় ভিনিসিউস জুনিয়র। লা লিগায় টানা সপ্তম জয়ে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে অবস্থান আরও মজবুত করল প্রতিযোগিতার রেকর্ড চ্যাম্পিয়নরা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সেভিয়ার চেয়ে ৮ ও নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ১৩ পয়েন্টে এগিয়ে গেল রিয়াল। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এই নিয়ে রিয়ালের বিপক্ষে টানা আট ম্যাচে জয়শূন্য (৪টি করে হার ও ড্র) রইল আতলেতিকো; দলটির বিপক্ষে দিয়েগো সিমেওনের কোচিংয়ে যা সবচেয়ে লম্বা জয় খরা। একই শহরের দুই দলের লড়াই। গ্যালারিতে দর্শকদের গগনবিদারী চিৎকার চলল শুরু থেকেই। মাঠের ফুটবল অবশ্য শুরুতে একটু ঢিমেতালেই চলল। তাই দুই গোলরক্ষক নির্বিঘেœ কাটিয়ে দিলেন প্রথম ১৫ মিনিট। এরপরই বেনজেমার দুর্দান্ত গোলে এগিয়ে গেল রিয়াল। ষোড়শ মিনিটে মাঝমাঠে প্রতিপক্ষের ভুল পাস ধরে আক্রমণে ওঠে স্বাগতিকরা। সতীর্থের পাস পেয়ে বেনজেমা একজনের বাধা এড়িয়ে ডান দিকে বল বাড়ান আসেনসিওকে। তিনি থ্রু পাসে ডি-বক্সে খুঁজে নেন ভিনিসিউসকে। ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ড বল ধরেই বক্সের দাগের কাছে বাড়ান ক্রস আর চমৎকার সাইডভলিতে দলকে উল্লাসে ভাসান ফরাসি ফরোয়ার্ড। দারুণ ছন্দে থাকা বেনজেমা আসরে ১৬ ম্যাচে এই নিয়ে ১৩ গোল করলেন।বল দখলে পিছিয়ে থাকা আতলেতিকো তেমন কোনো সুযোগও তৈরি করতে পারছিল না। ৩৫তম মিনিটে রিয়ালের ডি-বক্সের ঠিক বাইরে ফ্রি কিক পেয়ে দূরের পোস্টে শট নেন অঁতোয়ান গ্রিজমান। তবে দারুণ নৈপুণ্যে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন থিবো কোর্তোয়া। দুই মিনিট পর পাল্টা আক্রমণে দুরূহ কোণ থেকে ভিনিসিউসের শট কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান আতলেতিকো গোলরক্ষক। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান বাড়ানোর দারুণ সুযোগ হারায় রিয়াল। ছয় গজ বক্সের বাইরে ভিনিসিউসের পাস পেয়ে শট নিতে একটু দেরি করে বল হারান আসেনসিও। দুই মিনিট পর মাথেউস কুইয়ার শট পা দিয়ে ঠেকিয়ে দলকে এগিয়ে রাখেন কোর্তোয়া। দারুণ এক প্রতি-আক্রমণে ৫৭তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আসেনসিও। মাঝমাঠের তারকা টনি ক্রুসের পাস বাঁ দিকে পেয়ে ভিনিসিউস ডি-বক্সে ডান দিকে ফাঁকায় থাকা আসেনসিওকে খুঁজে নেন। আর প্রথম ছোঁয়ায় কোনাকুনি শটে গোলটি করেন এই স্প্যানিয়ার্ড।৭৬তম মিনিটে স্কোরলাইনে নাম লেখাতে পারতেন ভিনিসিউস। তবে ফেরলঁদ মঁদির গোলমুখে বাড়ানো বলে টোকা দিতে পারেননি তিনি। তিন মিনিট পর সুযোগ পায় আতলেতিকো; তবে তমাস লেমার শট কোর্তোয়াকে ফাঁকি দিতে পারেনি। বাকি সময়টা শিরোপাধারীরা চাপ ধরে রাখলেও উল্লেখযোগ্য কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ১০ জয় ও ১৩ ম্যাচ অপরাজিত থাকার আনন্দে মাঠ ছাড়ে রিয়াল। ১৭ ম্যাচে ১৩ জয় ও তিন ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট হলো ৪২। এক ম্যাচ কম খেলা সেভিয়ার পয়েন্ট ৩৪। ১৭ ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে রিয়াল বেতিস। ১৬ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে আতলেতিকো। তাদের সমান ১৬ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে আট নম্বরে বার্সেলোনা, দিনের প্রথম ম্যাচে কাতালান দলটি ২-২ ড্র করে ওসাসুনার বিপক্ষে।