December 2, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, February 14th, 2022, 8:12 pm

আদালত চত্বর থেকে পালানো হত্যা মামলার আসামি ফের গ্রেপ্তার

দিনাজপুরের আদালত চত্বর থেকে পালিয়ে যাওয়া হত্যাসহ ছয় মামলার আসামি লুৎফর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবার তাকে আদালতে তুলে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে ঢাকার ধামরাই থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে কোতোয়ালি ও ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

গেল বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) জেলা কারাগার থেকে আদালত হাজিরার সময় পুলিশের হাত পালিয়ে গিয়েছিল লুৎফর।

গ্রেপ্তার লুৎফর রহমান দিনাজপুর সদরের শিকদারহাট এলাকার মোতাহার হোসেনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে বন্ধুকে হত্যা ছাড়াও চুরি, ডাকাতি এবং হানাহাতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে ছয়টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। গেল বছরের ৩১ অক্টোবর থেকে কারাবন্দি ছিলেন তিনি।

সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার জানান, বৃহস্পতিবার আদালত থেকে পালিয়ে বিভিন্ন উপায়ে ঢাকার ধামরাই থানার কালামপুরের পৌঁছে স্থানীয় একটি ইটভাটায় ভাড়াটে বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিল লুৎফর রহমান। পরে খোঁজ খবর এবং তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় তার অবস্থান নিশ্চিত হওয়া যায়। এরপর দিনাজপুর থেকে ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর দুলাল, কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক নূর আলমসহ ১২ সদস্যের পুলিশ টিম মহানগর পুলিশের আরও ১০ সদস্যের সহযোগিতায় শনিবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে।

তিনি জানান, আদালত চত্বর থেকে পালানোয় কেউ সহযোগিতা করেছিল কিনা? এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদনসহ সোমবার দুপুরে তাকে আদালতে তোলা হয়েছে।

তবে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে লুৎফর পুলিশকে জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার আদালতে তোলার আগে হ্যান্ডকাপ আলগা থাকায় সুযোগ বুঝে অল্প চেষ্টায় তা খুলে ফেলে। ভিড়ের মধ্যে মিশে আদালত চত্বর থেকে বেরিয়ে প্রথমে গোর এ শহীদ বড় ময়দানে পৌঁছে। রেল লাইন ধরে নিমনগর ফুলবাড়ী বাসস্ট্যান্ড হয়ে কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে সৈয়দপুরে পৌঁছে। রাতে দুই কেজি গরুর মাংস কিনে পরিবারের সঙ্গে খাওয়া দাওয়া করে পাশে আলাদা বাড়ি ভাড়া নেয়। কিন্তু গুছিয়ে উঠার আগেই পুলিশের কাছে ধরা পড়ে বিচারের জন্য আবারও কারাগারে ফিরে যেতে হয়েছে তাকে।

লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে চিচিরবন্দর থানায় একটি হানাহানির, আরেকটি চুরির মামলা ছাড়াও নীলফামারীর সৈয়দপুর থানায় একটি ডাকাতি ও চুরির এবং ফুলবাড়ী থানায় আরেকটি চুরির মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

—-ইউএনবি