December 2, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, September 29th, 2021, 9:04 pm

আরটিপিসিআর পরীক্ষার অনুমোদন, ঢাকা-আমিরাত ফ্লাইটের অনুমতি

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিদেশগামী যাত্রীদের আরটিপিসিআর পরীক্ষার মাধ্যমে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার প্রক্রিয়ায় অনুমোদন দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষ। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ থেকে আরব আমিরাতের ফ্লাইট চলাচলেরও অনুমতি পেয়েছে বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকায় সংযুক্ত আরব আমিরাত দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স আব্দুল্লা আলি আলহামুদির সই করা এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। চিঠিটি পাঠানো হয়েছে বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান বরাবর। বাংলাদেশসহ ১০টি দেশ থেকে যাত্রীদের যাওয়ার ক্ষেত্রে ফ্লাইটের ছয় ঘণ্টা আগে বিমানবন্দরেই র‌্যাপিড পিসিআর পদ্ধতিতে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার শর্ত দিয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরাত। বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার কারণে বাংলাদেশ বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর পদ্ধতির বদলে আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে যাত্রীদের নমুনা পরীক্ষার উদ্যোগ নেয়। র‌্যাপিড পিসিআর পদ্ধতির বদলে আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে নমুনা পরীক্ষা করলে সেটির ফলাফল গ্রহণের জন্য আমিরাত কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়। আমিরাত দূতাবাসের এই চিঠিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সরকার বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে যাত্রীদের নমুনা পরীক্ষার যে প্রস্তাব করেছিল, সংযুক্ত আরব আমিরাতের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ সেটি অনুমোদন করেছে। তবে এ ক্ষেত্রে বিমানবন্দরের অভ্যন্তরে নমুনা পরীক্ষা করতে হবে। একইসঙ্গে এটি নিশ্চিত করতে হবে যে নমুনা ফ্লাইটের পরীক্ষাটি করা হচ্ছে ফ্লাইট ছাড়ার আগের ছয় ঘণ্টার মধ্যে। আমিরাত কর্তপক্ষ বলছে, বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর)
দুপুর ১২টা থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে। অর্থাৎ বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার পর থেকে যেকোনো সময় বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ফ্লাইট পরিচালনা করা যাবে। চিঠিতে বেবিচক চেয়ারম্যানকে বলা হয়েছে, তিনি যেন বাংলাদেশ ও আমিরাতের মধ্যে ফ্লাইট চালনার অনুমতি দেন। নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে প্রায় তিন মাস ফ্লাইটে নিষেধাজ্ঞা ছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে বাংলাদেশের। ৪ আগস্ট বাংলাদেশসহ ছয় দেশের যাত্রীদের ট্রানজিট সুবিধা চালু করে সংযুক্ত আরব আমিরাত। তবে ভ্রমণের ৬ ঘণ্টার মধ্যে বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর পদ্ধতিতে কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা করে নেগেটিভ রিপোর্ট থাকতে হবেÑ এমন নির্দেশনা দেয় সংযুক্ত আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষ। ১ সেপ্টেম্বর র‌্যাপিড পিসিআর স্থাপন বিষয়ে প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইমরান আহমেদের সভাপতিত্বে। বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বেসরকারিভাবে প্রবাসী ও বিদেশগামীদের নমুনা পরীক্ষার করানো হবে। বৈঠকে ল্যাব স্থাপনের জন্য প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে কারিগরি বিষয়গুলো দেখভালের দায়িত্ব দেওয়া হয়। আর অবকাঠামোগত বিষয়গুলো দেখার দায়িত্ব দেওয়া হয় বেবিচককে। এই বৈঠকেই দুইটি কমিটি গঠন করা হয়। প্রবাসী ও বিদেশগামীদের নমুনা পরীক্ষায় বিমানবন্দরে ল্যাব স্থাপনের জন্য আবেদন করে বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। পরে কারিগরি কমিটির বৈঠকের পর ১৫ সেপ্টেম্বর সাতটি প্রতিষ্ঠানকে আরটি-পিসিআর ল্যাব স্থাপনের অনুমতি দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে ছয়টি প্রতিষ্ঠান তাদের কাজের পরিকল্পনা জানিয়ে আরব আমিরাতের দূতাবাসে এসওপি পাঠায়। ২১ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমেদ কায়কাউস, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বিমানবন্দরে যান। সেখানে টার্মিনালের ভেতরে নতুন স্থান নির্ধারণ করে দ্রুত কাজ শুরুর নির্দেশ দেওয়া হয়। টার্মিনাল ভবনের দ্বিতীয় তলার উত্তর পাশে যাত্রীদের করোনা পরীক্ষার নমুনা নেওয়ার নির্দেশনাও দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাব স্থাপনের নির্দেশনা দেওয়া হয় বিমানবন্দরের অভ্যন্তরে। ভ্রমণের ৭২ ঘণ্টা ও ছয় ঘণ্টা আগে দুই দফা পরীক্ষা এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে পৌঁছানোর চার দিন ও আট দিন পর আরও দুই দফায় নমুনা পরীক্ষার কারণে তাদের কষ্ট ও আর্থিক খরচ বিবেচনায় নিয়ে আলোচনা হয় ২১ সেপ্টেম্বর সকালে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে। এজন্য ছয়টি ল্যাবের প্রস্তাবিত ভিন্ন ভিন্ন মূল্য কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রতিটা ল্যাবকে অভিন্ন মূল্যে কাজ শুরুর নির্দেশনা দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে স্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগকে বিমানবন্দরে ল্যাব স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় জৈববলয় সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার নির্দেশনাও দেওয়া হয়।