July 25, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, February 4th, 2024, 8:46 pm

ইংলিশ ব্যাটসম্যানের ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’

অনলাইন ডেস্ক :

হামজা শেখ যা করলেন, ক্রিকেটে তা প্রায় প্রতি ম্যাচে হরহামেশাই দেখা যায়। কিন্তু নিত্য কাজটি করতে গিয়েই নিজের বিপদ ডেকে আনলেন ইংলিশ ব্যাটসম্যান। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যানের আউট নিয়ে চলছে এখন আলোচনা। পচেফস্ট্রুমে শনিবার সুপার সিক্সের ম্যাচটিতে আগে ব্যাট করছিল ইংল্যান্ড। ইনিংসের সপ্তদশ ওভারে ওই ঘটনা। বাঁহাতি স্পিনার রায়ান সিম্বির একটি বল ড্রাইভ করার চেষ্টা করেন চার নম্বরে নামা হামজা। তবে ঠিকমতো খেলতে পারেননি তিনি। বল তার পায়ে লেগে পড়ে থাকে সেখানেই। উইকেটের পেছন থেকে জিম্বাবুয়ের কিপার রায়ান কামওয়েম্বা আসছিলেন বল নিতে। হামজা তখন নিচু হয়ে বলটি তুলে দেন কিপারের হাতে। সঙ্গে সঙ্গে আবেদন করেন জিম্বাবুয়ের কিপার। আবেদন যোগ দেন বোলারও। আম্পায়ারের আউট না দিয়ে উপায় নেই! আগে এটা ছিল ‘হ্যান্ডলড দা বল’ আউট।

২০১৭ সাল থেকে নিয়মে বদল এনে এই ধরনের আউটকেও ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ আউটের আওতায় আনা হয়েছে। বল যদিও একদমই থমকে ছিল পিচে, স্টাম্পের দিকে যাচ্ছিল না কোনোভাবেই। নিজেকে রক্ষা করার জন্য বল থামাননি বা স্পর্শ করেননি হামজা। স্রেফ বল তুলে এগিয়ে দিয়ে সহায়তা করছিলেন কিপারকে। তবে বল তখনও খেলার মধ্যে ছিল, ‘ডেড’ হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী তাই হাত দিয়ে বল ধরায় তিনি আউট। ক্রিকেটে অবশ্য এটা নিয়মিত চিত্র। ডিফেন্স করে বা ঠেকানোর পর বল আশপাশে থাকলে ব্যাটসম্যানরা অনেক সময়ই বল তুলে দেন বোলার বা ফিল্ডারকে। নিয়ম অনুযায়ী, ফিল্ডিং দল আবেদন করলে আম্পায়ার এখানে আউট দিতে বাধ্য।

কিন্তু সাধারণত এই আবেদন করা হয় না। ব্যতিক্রম হলো এবার জিম্বাবুয়ে। ব্যাটসম্যান হামজা শেখ যদিও অবাক হয়ে যান। নানা কিছু বলার চেষ্টাও করেন। কিন্তু ফিল্ডিং দল আবেদন তুলে না নিলেন আম্পায়ারের কিছু করার নেই। ২৩৭ রানের পুঁজি নিয়ে ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ১৪৬ রানে জিতে নেয় ইংল্যান্ড। ১৭ বছর বয়সী লেগ স্পিনার তাজিম চৌধুরি আলি ৭ উইকেট শিকার করেন ২৯ রানে। তবে ম্যাচ ছাপিয়ে বেশি আলোচনার জন্ম দেয় ওই আউট। এই আউটের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে। আলোচনা-সমালোচনাও চলছে অনেক। ইংলিশ গ্রেট স্টুয়ার্ট ব্রড সামাজিক মাধ্যমে প্রতিক্রিয়ায় বলেন, “ওহ, নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখো! সে তো স্রেফ স্থির হয়ে পড়ে থাকা বলটি কিপারকে দিয়েছিল। কিপারের উপকারই করছিল। এটা আউট দেওয়া যায় না!” আউটের ভিডিও শেয়ার করে ইংলিশ ব্যাটসম্যান স্যাম বিলিংস স্রেফ লেখেন, ‘WOW’। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবশেষ ‘অবস্ট্রাক্টিং দা ফিল্ড’ দেখা গেছে গত ডিসেম্বরে। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে ৩৫ রানে এ আউটহন মুশফিকুর রহিম। বোলার বা ফিল্ডারদের বল ফেরত দিচ্ছিলেন না তিনি, ডিফেন্স করার পর বেশ বাইরের বল হাত দিয়ে সরিয়ে দেন তিনি।