February 7, 2023

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, November 30th, 2022, 7:57 pm

ইকুয়েডরকে কাঁদিয়ে শেষ ষোলোতে ডাচদের সঙ্গী সেনেগাল

অনলাইন ডেস্ক :

ইকুয়েডর ও সেনেগালের মধ্যকার ম্যাচটি ছিল দুই দলের জন্যই ফাইনাল। সেনেগালের সঙ্গে ড্র করতে পারলেই পরের পর্ব নিশ্চিত ইকুয়েডরের। অন্যদিকে শেষ ষোলোর টিকিট কাটতে জয়ের বিকল্প ছিল না সেনেগালের। শেষ পর্যন্ত ইকুয়েডরকে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে শেষ ষোলোতে নেদারল্যান্ডসের সঙ্গী সেনেগাল। ম্যাচের প্রথমার্ধের সারের পেনাল্টিতে লিড নেয় সেনেগাল। পরে কাইসেদোর গোলে সমতায় ফেরে ইকুয়েডর। কিন্তু দুই মিনিট পরে কালিদু কুলিবালির গোলে আবারও লিড নেয় সেনেগাল। শেষ পর্যন্ত জয় নিয়ে পরের পর্বের টিকিট কাটে সেনেগাল। নক আউটের টিকিট কাটতে সেনেগালের সামনে জয়ের বিকল্প ছিল না। আর এমন ম্যাচের শুরু থেকেই ইকুয়েডরের ওপর চাপ দিতে শুরু করে সেনেগালিজরা। তৃতীয় মিনিটেই দারুণ একটি সুযোগ পেলেও গোল আদায় করতে পারেনি আফ্রিকার দেশটি। ম্যাচের ১২ মিনিটে আরও একটি সুযোগ পেলেও ইকুয়েডরের গোলরক্ষক আটকে দেন সে প্রচেষ্টা। গোল না পেলেও একের পর এক আক্রমণে ইকুয়েডরের রক্ষণভাগ ব্যস্থ রাখে সেনেগাল। অবশেষে ডেডলক ভাঙে প্রথমার্ধের শেষ দিকে এসে। ৪২তম মিনিটে ডি বক্সের ভেতর সেনেগালের ইসমাইল সারকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় সেনেগাল। এরপর স্পটকিক থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন সার। ১-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় সাদিও মানের দল। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরেই ম্যাচে সমতার জন্য লড়াই করতে থাকে ইকুয়েডর। অবশেষে ৬৮তম মিনিটে কাইসেদো দারুণ এক গোল করে সমতায় ফেরায় ইকুয়েডরকে। তবে ইকুয়েডরকে খুব বেশি সময় স্বস্তিতে থাকতে দেয়নি সেনেগাল। ম্যাচ সমতায় আসার মিনিট দুই পরে ফ্রিকিক পায় সেনেগাল। সেটপিস থেকে উড়ে আসা বল লাফিয়ে উঠে হেড করে জালে জড়িয়ে লক্ষ্যভেদ করেন কালিদু কুলিবালি। এরপর আর ম্যাচে ফেরা হয়নি ইকুয়েডরের। শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সেনেগাল। আর নিশ্চিত করে বিশ্বকাপের শেষ ষোলো। সেনেগাল আর ইকুয়েডরের মধ্যকার ম্যাচে জয় পেয়েছে সেনেগাল। আর তাতেই নিশ্চিত হয়েছে পরের পর্ব। সেনেগাল তিন ম্যাচে দুই জয় আর এক হারে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় হয়ে শেষ ষোলোতে। অন্যদিকে ইকুয়েডর একটি করে জয়, হার আর ড্র করে তৃতীয় হয়ে শেষ করতে হয়েছে। অন্যদিকে কাতারকে হারিয়ে তিন ম্যাচের দুটিতে জয় আর একটিতে ড্র করে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে থেকে শেষ করেছে নেদারল্যান্ডস। আর স্বাগতিক কাতার সবকটি ম্যাচেই হেরে বিদায় নিয়েছে বিশ্বকাপ থেকে।