December 4, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, September 22nd, 2021, 7:25 pm

ইভ্যালির সম্পত্তি বিক্রি ও হস্তান্তরে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

ফাইল ছবি

দেশের আলোচিত ই-কমার্স কোম্পানি ইভ্যালি’র স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি ও হস্তান্তরে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট। কোম্পানিটির অবসায়ন চেয়ে ইভ্যালি’র একজন গ্রাহক ফরহাদ হোসেনের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের কোম্পানি বেঞ্চ বুধবার এই আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন ব্যারিস্টার এ এম মাসুম ও ব্যারিস্টার সৈয়দ মাহসিব হোসেন।

আদেশের পর আইনজীবী সৈয়দ মাহসিব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘ইভ্যালি অনলাইন শপ থেকে গত মে মাসে একটি ইলেকট্রনিকস পণ্যের অর্ডার করেন এবং অর্থ পরিশোধ করেন গ্রাহক ফরহাদ হোসেন। এরপর কোম্পানিটি অনলাইনে তাকে পণ্যটি কেনার একটি রশিদও দেয়। কিন্তু এতদিনেও পণ্যটি বুঝিয়ে না দেয়ায় যোগাযোগ করা হলে তাকে বার বার আশ্বাস দেওয়া হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পণ্যটি না পেয়ে এবং টাকা ফেরত না পেয়ে ইভ্যালির অবসায়ন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়।

তিনি আরও জানান, হাইকোর্ট আজ ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে ইভ্যালির স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ বিক্রি অথবা ট্রান্সফার না করতে নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে নোটিশ ইস্যু করেছেন, কেন ইভ্যালিকে অবসায়ন করা হবে না। আর এবিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ৩০ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করে এই সময়ের মধ্যে বিবাদীদের জবাব দিতে বলা হয়েছে।’

ইভ্যালি লিমিটেড, রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানীজ এন্ড ফার্মস,বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিট, কনজুমার রাইটস প্রটেকশন ব্যুরো, নগদ, বিকাশ, বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন, ই-ক্যাব এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, বেসিস,বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাণিজ্য সচিবকে এক সপ্তাহের মধ্যে এই নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পণ্য সরবরাহ করছে না এমন অভিযোগে গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাতে আরিফ বাকের নামের এক গ্রাহক গুলশান থানায় মামলা করেন। পরদিন বিকেলে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের স্যার সৈয়দ রোডের বাসা থেকে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান রাসেলের স্ত্রী শামীমা নাসরিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত শুক্রবার গুলশান থানায় করা মামলায় রাসেল ও তাঁর স্ত্রী শামীমার তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এর পর গতকাল মঙ্গলবার ধানমন্ডি থানায় এক গ্রাহকের করা মামলায় মোহাম্মদ রাসেলের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

—ইউএনবি