June 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, May 2nd, 2022, 7:30 pm

ঈদের সিনেমায় শাকিব-সিয়াম যুদ্ধ

অনলাইন ডেস্ক :

ঈদে সাধারণত নায়কদেরই লড়াই হয়। দর্শকেরাও নায়কদের হারজিৎ নিয়ে আলোচনা করতে ভালোবাসেন। এবারের ঈদে আবারও মুখোমুখি হচ্ছেন শাকিব খান ও সিয়াম। এবারের ঈদে বেশ কয়েকটি সিনেমা মুক্তির কথা শোনা গেলেও এখন পর্যন্ত ৩টি সিনেমা মুক্তি চূড়ান্ত হয়েছে। সেই তালিকায় রয়েছে সুপারস্টার শাকিব খান-পূজা চেরীর ‘গলুই’, শাকিব-বুললীর বিদ্রোহী’ এবং এ সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদ-পূজা চেরীর ‘শান’। তবে দেশের হল সংকটের এই সময়ে একসঙ্গে ৩টি সিনেমা মুক্তি কতটা ব্যবসাসফল হবে এ নিয়ে শঙ্কা থেকেই যায়। তাছাড়া অনেকেই মনে করছেন শাকিবের দুটি সিনেমা একসঙ্গে মুক্তি মানে ঈদে নিজেই নিজের প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছেন এই সুপারস্টার! চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রায় ৭ কোটি টাকা বাজেটে এই ৩টি সিনেমা নির্মাণ করা হয়েছে। এদিকে দেশে এখন প্রায় ৭০টি সিনেমা হল চালু রয়েছে। ঈদ উপলক্ষে সেই সংখ্যা ১শ’ ছাড়তে পারে। অন্যদিকে দেশের সিনেপ্লেক্স ও মাল্টিপ্লেক্সগুলোতে বিদেশি সিনেমা দেখতেই অভ্যস্ত দর্শকরা। তাই ঈদে একাধিক বিজ বাজেটের সিনেমা মুক্তি দিলে লগ্নি তুলে আনা সম্ভব নয় বলে মনে করছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। তবে সিনেমাগুলোর অভিনেতা-অভিনেত্রী থেকে শুরু করে নির্মাতা-প্রযোজকরা বেশ আশাবাদী। এ প্রসঙ্গে চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদ বলেন, ‘আমাদের সিনেমা মুক্তির আগে প্রচারণা নিয়ে যে অভিযোগ ছিল সেই জায়গা থেকে ভিন্ন উদাহরণ সুষ্টি করেছে সান। সিনেমাটির প্রচারণায় কমতি রাখিনি আমরা। এরইমধ্যে আমরা বেশ কয়েকটি ভালো সিনেমা হল পেয়েছি। তারপরও কী এটা আমাদের জন্য যথেষ্ট বা আমাদের সিনেমা হলগুলোর সব ঠিকঠাক আছে? এমন সিনেমা চালানোর জন্য যেমন পর্দা, সাউন্ড প্রয়োজন তার সবকিছু কী আছে আমাদের? তবু আশা করছি সবকিছু মিলিয়ে নির্মাণ ব্যয় উঠে আসবে।’ ‘শান’ সিনেমার অন্যতম প্রযোজক আজাদ খান বলেন, ‘দেশের বড় বড় সিনেমা হল এবং সিনেপ্লেক্সগুলো শান নিয়ে দারুণ আগ্রহী। আমার ধারণা সিনেমাটি মুক্তির পর চাহিদা আরও বাড়বে। ঈদে তো চলবে, তারপর সারাদেশের সিনেমা হলগুলোতে সগৌরবে চলবে সিনেমাটি। আমরা বিশ্বাস করি, যত টাকা ইনভেস্ট করেছি তা তুলে আনতে পারবো।’ এদিকে শাকিব খানের ‘গলুই’ ও ‘বিদ্রোহী’ একসঙ্গে মুক্তি পেলেও দারুণ ব্যবসা করবে বলে মনে করছেন গলুই সিনেমার নির্মাতা এস এ হক অলীক। তিনি বলেন, ‘হল সংখ্যা কম হওয়ার কারণে ব্যবসায়িক দিক থেকে এটা অবশ্যই ঝুঁকিপূর্ণ। তারপরও যে কটি হলে গলুই চলবে সেই হলগুলোতে দর্শক উপচে পড়লে ব্যবসায়িক সফলতা আসবে। পাশাপাশি আমার মনে হয়, ঈদে যে ৩টি সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে সবগুলোই দর্শকরা দেখবেন।’ অন্যদিকে দিনদিন হল সংখ্যা কমাও বাংলা সিনেমার জন্য অশনি সংকেত। তবে ঈদ উপলক্ষে বেশকিছু হল চালু হচ্ছে। এ নিয়ে প্রদর্শক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন বলেন, ‘কাের কারণে আমাদের হলমালিকদের অবস্হা খুবই শোচনীয়। তারপরও আমরা আশাবাদী আসছে ঈদে ৩টি সিনেমাই ভালো ব্যবসা করবে। সিনেমাগুলো ভালো ব্যবসা না করলে কী হবে বলতে পারব না। তবে এবারের ঈদ আমাদের জন্য ফাইনাল পরীক্ষা।