June 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, May 1st, 2022, 8:31 pm

ঈদে ঢাকার প্রেক্ষাগৃহে ‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস’

মুক্তির আগেই বিশ্ব মাতামাতি চলছে মার্ভেলের সুপারহিরো ছবি ‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ’-এর সিক্যুয়েল ‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস’ নিয়ে। আগামী ৬ মে আন্তর্জাতিকভাবে ছবিটি মুক্তি পাবে। এরইমধ্যে ছবির টিকিট নিয়ে কাড়াকাড়ি শুরু হয়েছে।

অগ্রিম টিকেটের জন্য সিনেমা হলগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে দর্শক। টিকিট বিক্রি শুরুর মাত্র ২০ ঘণ্টায় মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস ২০২২ সালের অন্য যেকোনো চলচ্চিত্রের চেয়ে বেশি টিকিট বিক্রি করতে সক্ষম হয়েছে। যার আঁচ লেগেছে বাংলাদেশেও।

সেন্সর সাপেক্ষে ৬ মে আন্তর্জাতিক মুক্তির দিনে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সেও মুক্তি পাবে ছবিটি। এই সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার আগেই টিকিটের জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছেন দর্শকরা। অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার দিন ভোর থেকে স্টার সিনেপ্লেক্সের বিভিন্ন শাখায় দর্শকের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট পেয়ে যেন দর্শকরা সোনার হরিণ হাতে পেয়ে যাচ্ছে।

বসুন্ধরা সিটির পাশাপাশি স্টার সিনেপ্লেক্সের সীমান্ত সম্ভার, মহাখালী এসকেএস টাওয়ার, সনি স্কয়ার সবগুলো শাখাতেই টিকিটের জন্য দর্শকদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। করোনা মহামারির কারণে লম্বা সময় ধরে দর্শকরা হলের বাইরে ছিলেন। টিকিটের জন্য এমন উৎসাহ দর্শক এবং সিনেপ্লেক্স উভয় পক্ষের মধ্যে যেন প্রাণচাঞ্চল্য ফিরিয়ে এনেছে, যা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির জন্য আশাব্যঞ্জক। এবারের ঈদ আনন্দে ছবিটি বাড়তি মাত্রা যোগ করবে- এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে।

‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস’ ঘিরে শুরু থেকেই দর্শকদের কৌতুহল তুঙ্গে রয়েছে। তাই ছবিটির কোনোকিছু প্রকাশ্যে আসতেই সারাবিশ্বের সিনেপ্রেমীরা বিপুল উৎসাহে মেতে ওঠে। সেই ধারাবাহিকতায় আনুষ্ঠানিকভাবে মুক্তির কাউন্ট-ডাউন শুরু করতে সম্প্রতি সিনেমাটির একটি নতুন এবং রোমাঞ্চকর টিজার প্রকাশ করেছে, যা সিনেমাটি সম্পর্কে কিছু নতুন ধারণা দিয়েছে দর্শকদের।

টিজারে ডক্টর স্ট্রেঞ্জের চরিত্রে বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ এবং ওয়ান্ডা ম্যাক্সিমফের চরিত্রে এলিজাবেথ ওলসেনের উপস্থিতিও দারুণ সাড়া জাগিয়েছে। এতে সুপারহিরোকে ভয়ঙ্কর সব রূপের মুখোমুখি হতে দেখা গেছে। এছাড়া ছবির ট্রেলারে বিশেষ চমক রয়েছে ওয়ান্ডা তার সন্তান বিলি এবং টমি ম্যাক্সিমফের অদৃশ্য হয়ে যাওয়া!

এতে অনেকেই মনে করছেন যে সুপারহিরোইন স্কারলেট উইচ হিসেবে অন্ধকার দিকে চলে যাবে। এই সিনেমাটির মাধ্যমে মার্ভেল তার মাল্টিভার্স সৈন্যদের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে যাচ্ছে বলে মনে করছেন সবাই। এখানে মার্ভেল মাল্টিভার্সের পরিধি আরও বড় হবে। ইতোমধ্যে ‘স্পাইডারম্যান: নো ওয়ে হোম’ -এ এমসিইউয়ের বাইরের চরিত্রগুলোকে দেখা গেছে। এ ছবিতেও তেমনই কোনো চরিত্র দেখার আভাস মিলেছে।

মার্ভেল স্টুডিওস -এর প্রযোজনা এবং ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওস মোশন পিকচার্স -এর পরিবশেনা এবং মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্সের (এমসিইউ) ২৮তম চলচ্চিত্র ‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ ইন দ্য মাল্টিভার্স অব ম্যাডনেস’। ছবিটি পরিচালনা করেছেন স্যাম রাইমি। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন এলিজাবেথ ওলসেন, রাচেল ম্যাকঅ্যাডামস, চিওয়েটেল ইজিওফোর এবং জোচিটল গোমেজ।

মূল স্টিফেন স্ট্রেঞ্জ চরিত্রে আছেন বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ। ছবিতে স্ট্রেঞ্জ বন্ধু থেকে শত্রু হয়ে ওঠা চরিত্রের সঙ্গে মোকাবিলা করে। ২০১৬ সালে মুক্তি পেয়েছিলো ‘ডক্টর স্ট্রেঞ্জ’। সে বছরই এর সিক্যুয়েলের পরিকল্পনা করা হয়। ২০১৮ সালে পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পান স্যাম রাইমি। ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে লন্ডনে চিত্রগ্রহণ শুরু হয়। কিন্তু ২০২১ সালের জানুয়ারিতে কভিড-১৯-এর বৈশ্বিক মহামারির কারণে কাজ স্থগিত রাখা হয়।

তাই ছবিটির জন্য দর্শকদের অপেক্ষার পালাও দীর্ঘ হয়। অবশেষে ছবিটি পর্দায় আসছে জেনে দর্শকরা যেন স্বস্তি ফিরে পেয়েছেন। ছবি দেখার পর এই স্বস্তি আরও পূর্ণতা পাবে- এমনটাই আশাবাদ সংশ্লিষ্টদের।

—ইউএনবি