December 4, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, November 2nd, 2022, 9:11 pm

একদিনে সমুদ্রে ভেসে যাওয়া ৩ শতাধিক পর্যটক উদ্ধার

টিউব নিয়ে সমুদ্রে গোসলে নেমে সমুদ্রে ভেসে যায় পর্যটকরা। এরমধ্যে স্রোতের টানে ভেসে যাওয়া তিন শতাধিক পর্যটককে উদ্ধার করেছে সি সেইফ লাইফ গার্ড। আর এতে সহায়তা করে জেট স্কি চালকরা।

বুধবার (২ নভেম্বর) কক্সসবাজারের সুগন্ধা, লাবণী , সীগাল বীচ পয়েন্টে হাজার হাজার পর্যটক গোসল করতে নামে। এর অধিকাংশ পর্যটক চাকার টিউব নিয়ে সমুদ্র গোসলে মেতে ওঠে। এসময় সমুদ্রে ঢেউ টিউবে থাকা পর্যটকদের তীর থেকে দূরে নিয়ে যায়। এভাবে সমুদ্রের ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে যায় গভীর সমুদ্রে। ভেসে যাওয়া এসব পর্যটক ঝুঁকির মুখে পড়ে যায়। এই অবস্থায় সী সেইভ লাইফ গার্ডের কর্মীরা দ্রুত ছুটে গিয়ে ভেসে যাওয়া এসব পর্যটকদের উদ্ধার করে। সমুদ্রে টিউব নামানো নিষিদ্ধ থাকা সত্ত্বেও কিছু ব্যক্তি পর্যটকদের টিউব ভাড়া দিয়ে ব্যবসা করছেন। আর পর্যটকরা এসব টিউব নিয়ে সমুদ্রে গোসল করতে গিয়ে বিপদে পড়ছেন।

ফেনি থেকে আসা মো. সোলেমান নামের এক পর্যটক জানান, তাকে ডুবে যাওয়ার আগ মুহুর্তে সি সেইফ গার্ড বাঁচিয়ে তীরে ফিরিয়ে এনেছে। তিনি বুঝতে পারেননি কখন স্রোতের টানে তীর থেকে এত দূরে চলে গিয়েছেন।

এভাবে ২ নভেম্বর সকাল থেকে দুপুর ২ টার মধ্যে বিপদে পড়া তিন শতাধিক পর্যটককে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান সি সেইভ লাইভ গার্ডের প্রধান নির্বাহী ইমতিয়াজ আহমেদ।

তিনি আরও জানান, তাদের উদ্ধার কমী রয়েছেন ২০ জন। পালাক্রমে ১০ জন করে দায়িত্ব পালন করেন। উদ্ধার কাজে থাকেন ১০ জন আর অন্যদিকে সমুদ্রে টিউব নিয়ে ভাসতে থাকেন ৫০০ জন। ফলে বিপদে পড়া পর্যটকদের বাঁচানো দুঃসাধ্য হয়ে পড়ে। আর এসব টিউব হাত থেকে ছিটকে সরে গেলে ডুবে যায় পর্যটকরা।

পর্যটকদের একের পর এক উদ্ধার করতে গিয়ে সি সেইফ লাইফ গার্ডের অনেক কর্মী অসুস্থও হয়ে পড়েছেন। অন্য দিকে উদ্ধারকাজে সহায়তাকারী জেট স্কি চালকের জ্বালানি তেল শেষ হয়ে যায়।

এ ব্যপারে সি সেইফ লাইফ গার্ড আদরাম ত্রিপুরা জানান, সাগরে টিউব নামানো বন্ধ করতেই হবে। আর যদি নামাতেই হয় তবে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনেই টিউব ভাড়া দিতে হবে ।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো আবু সুফিয়ান জানিয়েছেন ‘সমুদ্রে টিউব নামানো নিষিদ্ধ’ করা হয়েছে। টিউবের কারণে পর্যটকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। তাই টিউব নিয়ে সাগরে নামা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তারপরও টিউব ভাড়া দিয়ে ব্যবসা করে এমন কিছু অসাধু ব্যক্তি নিষেধাজ্ঞা না মেনে পর্যটকদের টিউব ভাড়া দিচ্ছেন।

তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

—-ইউএনবি