December 6, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, November 1st, 2021, 9:22 pm

এক মাসে রোহিঙ্গা শিবির থেকে গ্রেপ্তার ১৭২

ফাইল ছবি

জেলা প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের উখিয়ার লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা শিবিরে রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যাকান্ডের পর গত একমাসে ১৭২ জন রোহিঙ্গা অপরাধীকে গ্রেপ্তার করেছে ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন)। সোমবার (১লা নভেম্বর) সকালে ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) মো. নাইমুল হক বলেন, মহিবুল্লাহ হত্যাকান্ডের পর গত ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান শুরু করা হয়। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত তথাকথিত আরসা নামধারী ১১৪ জন সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি বলেন, এছাড়াও মাদক ব্যবসা, চোরাচালানের সঙ্গে সম্পৃক্ত এবং ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িত আরও ৫৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ সুপার নাইমুল হক বলেন, এ পর্যন্ত মুহিবুল্লাহ হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত ১০ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে তিনজন আসামি আদালতে দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। এপিবিএন সূত্র জানা যায়, ১৭২ জনকে গ্রেফতারের পাশাপাশি অভিযানে ১১ হাজার ২৯৪ পিস ইয়াবা, ৪০ গ্রাম গাঁজা, চারটি দেশীয় তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র, ৪ রাউন্ড কার্তুজ, ২ রাউন্ড ৭.৬২ চায়না রাইফেলের গুলি, ১৪টি রামদা, ৫টি লোহার হাসুয়া, একটি কিরিজ, ১২টি দা, তিনটি লম্বা আকৃতির ধামা, একটি ছুরি ও একটি রড উদ্ধার করা হয়। এসব ঘটনায় মামলা হয়েছে ২৫টি। এর মধ্যে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় পাঁচটি, ডাকাতি প্রস্তুতির পাঁচটি, মাদক উদ্ধারের ঘটনায় ১৩টি মামলা হয়েছে। এছাড়াও ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমেও ৫৯টি মামলা করা হয়েছে।
অস্ত্রসহ রোহিঙ্গা যুবক আটক: এদিকে কক্সবাজারের টেকনাফে অস্ত্রসহ মো. ইউনুছ (২৮) নামের এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করেছে এপিবিএন। সোমবার (১লা নভেম্বর) ভোরে উপজেলার নয়াপাড়া ক্যাম্প থেকে তাকে আটক করা হয়। তিনি ওই এলাকার সৈয়দ আহাম্মদের ছেলে। এপিবিএন সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ওই এলাকায় অভিযান চালায় এপিবিএন সদস্যরা। পরে একটি দেশীয় ওয়ান শুটারগানসহ মো. ইউনুছকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে ক্যাম্প এলাকায় অপহরণ, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মারামারিসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। কক্সবাজার ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক (এসপি) তারিকুল ইসলাম তারিক জানান, আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তাকে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।