December 7, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, August 31st, 2021, 9:20 pm

এলপিজির দাম নির্ধারণে গণশুনানি ১৩ সেপ্টেম্বর

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

এলপিজির দাম নির্ধারণে আবারও গণশুনানির তারিখ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন-বিইআরসি। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটনে বিয়াম ফাউন্ডেশনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হবে এই শুনানি। মঙ্গলবার (৩১ আগষ্ট) বিকালে বিইআরসির এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। এর আগে দুইবার তারিখ ঘোষণা করা হলেও একবার লকডাউন ও আরেকবার হাইকোর্টের আদেশের কারণে স্থগিত হয় শুনানি। গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কমিশনের নির্ধারিত এলপিজির মজুতকরণ ও বোতলজাতকরণ চার্জ, ডিস্ট্রিবিউশন চার্জ এবং রিটেইলার চার্জসহ ভোক্তা পর্যায়ে এলপিজির দাম পরিবর্তনের জন্য বেসরকারি এলপিজি মজুতকরণ ও বোতলজাতকরণ লাইসেন্সিরা বিইআরসি আইন-২০০৩ এর ধারা ৩৪ (৬) অনুযায়ী গত ২৯ মে থেকে ৩ জুনের মধ্যে ১৮টি আবেদন কমিশনে জমা হয়। এই আবেদনের প্রেক্ষিতে এর আগে প্রথমবার গত ৭-৮ জুলাই গণশুনানির তারিখ নির্ধারণ করা হয়। এরপর লকডাউনের কারণে পরিবর্তন করে ১৭-১৮ আগস্ট শুনানির তারিখ ঠিক করে। কিন্তু তা কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব)দায়ের করা রিটের কারণে হাইকোর্ট গত ১২ আগস্ট সেই শুনানির তারিখ স্থগিত করে দেয়। এই স্থগিতাদেশের বিষয়ে কমিশনের দায়ের করা সিভিল পিটিশন ফর লিভ টু আপিলের প্রেক্ষিতে আপিল বিভাগ গত ২৬ আগস্ট সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের উপস্থিতিতে শুনানি করে হাইকোর্ট বিভাগের ১২ আগস্টের আদেশ স্থগিত করে। প্রতিমাসে এলপিজির দাম নির্ধারণের আদেশ নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মঙ্গলবার (৩১ আগষ্ট) কমিশনের চেয়ারম্যান আবদুল জলিল বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক দামের সাথে সমন্বয় করে এলপিজির দাম প্রতিমাসে পুনঃনির্ধারণ করছি। এই দামের সাথে এলপিজির মজুতকরণ ও বোতলজাতকরণ চার্জ, ডিস্ট্রিবিউশন চার্জ এবং রিটেইলার চার্জসহ অন্যান্য চার্জ গত ১২ এপ্রিলের আদেশ অনুযায়ী একই রাখা হয়েছে। কিন্তু লাইসেন্সিরা বলছেন, এই চার্জগুলো আমরা কমিয়ে ধরেছি। তারা আরও বেশি খরচ করেন। তাদের এই দাবির প্রেক্ষিতে আমরা তাদের কাছে তথ্য চাই। এরপর তারা কিছু তথ্য দিলেও তা সম্পূর্ণ নয়। তাই সবাইকে একসাথে নিয়ে এই চার্জগুলোর বিষয়ে শুনানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। কমিশনের আইন অনুযায়ী কোনও লাইসেন্সি যদি আবেদন করে তাহলে কমিশন তা গ্রহণ করে শুনানি করতে পারে। গণবিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটনে বিয়াম ফাউন্ডেশনের শহীদ এ কে এম শামসুল হক খান মেমোরিয়াল হলে শুরু হবে এই গণশুনানি। এক দিনে যদি আলোচনা শেষ করা না যায়, তাহলে আরও একদিন অর্থাৎ ১৪ সেপ্টেম্বরও রাখা হয়েছিল শুনানির সুযোগ। এতে বেসরকারি এলপিজির মজুতকরণ ও বোতলজাতকরণ চার্জ, ডিস্ট্রিবিউশন চার্জ এবং রিটেইলার চার্জ ইত্যাদি বিষয়ে শুনানি করা হবে। শুনানিতে অংশ নিতে চাইলে আগামী ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কমিশনে নাম তালিকাভুক্ত করা যাবে। প্রসঙ্গত, আদালতের নির্দেশে গত ১২ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো এলপিজি নিয়ে গণশুনানি করে কমিশন। এরপর ১২ এপ্রিল প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে এলপিজির দাম নির্ধারণ করে দেয় বিইআরসি। এরপর প্রতি মাসেই আমদানি মূল্য বিবেচনায় নিয়ে এলপিজির দাম সমন্বয় করে আসছে বিইআরসি।