July 19, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, April 26th, 2023, 8:10 pm

এশিয়া কাপ হকিতে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কারা?

অনলাইন ডেস্ক :

ওমানের সালালায় জুনিয়র এশিয়া কাপ হকির আসর বসবে আগামী ২৩ মে থেকে ১ জুন। সেখানে এশিয়ার শক্তিশালী ১০ দেশ দুই গ্রুপে খেলবে। বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া, ওমান, মালয়েশিয়া, উজবেকিস্তান। ফাইনাল শেষে সেরা চার দেশ যুব বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলবে। সেমিফাইনালে উঠতে পারলে যুব বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ আসবে। সেই সুযোগ নিতে বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-২১ হকি দলের কোচ মামুনুর রশিদের কাছে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। তার অধীনে গত জানুয়ারিতে ওমানে এএইচএফ কাপ হকিতে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হয়ে এসেছিল।

আর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুবাদে বাংলাদেশ এখন জুনিয়র এশিয়া কাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে। এই দলটাই এবার ওমানে যাবে। বাংলাদেশের চোখ এখন আরো ওপরে। যুব হকির বিশ্বকাপে। তাই প্রস্তুতিটাও সেভাবে নিতে ওমানে যাওয়ার আগে ভারত সফর। ভারতের হরিয়ানা ও পাঞ্জাবে গিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২১ হকি দল। ১২ থেকে ১৪টি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে। এই দলের সমন্বয়কারী সাবেক খেলোয়াড় মাহবুব এহসান রানা জানিয়েছেন, এতগুলো ম্যাচ খেলা সম্ভব না। কারণ হাতে সময় কম। তবে যত বেশি সম্ভব ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা রয়েছে।’

ভারতে অনুশীলন ম্যাচ খেলে সেখান থেকে সরাসরি ওমানে চলে যাবে বাংলাদেশ যুব হকি দল। ঢাকায় ফিরলে খরচ বাড়বে। তাই একটু দেরি করেই পাঠানো হচ্ছে। যেন খেলেই চলে যাওয়া যায়। ২৩ মে বাংলাদেশ খেলবে ওমানের বিপক্ষে। এবারের ট্যুরে বাংলাদেশের বড় বাজেট ব্যয় হচ্ছে। ফেডারেশন সূত্রে জানা গেছে, অনুশীলন ক্যাম্প খরচ থেকে শুরু করে ওমানে খেলা শেষ হওয়া পর্যন্ত ১ কোটি ১০-১৫ লাখ টাকা খরচ হতে পারে। শুধু ওমানে খরচ আছে ৫০ লাখ টাকার ওপরে। ভারত ও ওমান সফরের জন্য ফেডারেশন থেকে টাকা খরচ হবে না বলা হলেও এখনো স্পনসর পাওয়া যায়নি।

স্পনসরের জন্য চেষ্টা করা হয়েছিল, কিন্তু কোথাও সাড়া পাওয়া যায়নি। একটা সময় ভারতে না যাওয়ার কথাও শোনা গিয়েছিল। টাকা নাই, তাই ভারতে গিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনা চাপা পড়ে গিয়েছিল। কিন্তু গত মঙ্গলবার মাহবুব এহসান রানা জানালেন, একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। আসলে আমরা দেখলাম ওমানে যাওয়ার পথে ভারতে খেলে যাওয়া যায়, তাহলে খরচ কমবে। এ কারণে একটু দেরি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘স্পনসর পাওয়া যায়নি। সাধারণ সম্পাদক টাকার ব্যবস্থা করছেন।’ হকিতে স্পনসরের সংকট নেই। তার পরও চ্যাম্পিয়ন দলের জন্য স্পনসর পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, ফেডারেশন সভাপতিকে নাকি বাজেট নিয়ে দুশ্চিন্তা না করার কথা বলা হয়েছিল। পরে বিভিন্নভাবে টাকার সংস্থান করতে গিয়ে সমস্যায় পড়েছে ফেডারেশন। সাড়া পাচ্ছে না। ভারতে যাবে ২৩ জনের দল। সেখান থেকে ওমানে যাবে ১৮ জনের দল, বাকিরা দেশে ফিরে আসবে। রানা বললেন, ‘আমাদের প্রথম খেলা ওমানের বিপক্ষে। এটা কঠিন ম্যাচ। জিততে পারলে আরো একটা বড় দলকে হারাতে হবে। তাহলে আমাদের সম্ভাবনা থাকবে।’