June 29, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, June 9th, 2022, 8:10 pm

ওটিটিতে বাজিমাত করলেন দীঘি

অনলাইন ডেস্ক :

ঢালিউডে এ প্রজন্মের আলোচিত শিল্পীদের অন্যতম প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া এ অভিনেত্রী গত বছর নায়িকার কাতারে নাম লিখিয়েছেন। দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবিতে তাকে প্রথমবার নায়িকা হিসেবে দেখেছে দর্শক। সেই দীঘি এবার হাজির হয়েছেন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে। সম্প্রতি চরকি-তে মুক্তি পাওয়া সুমন ধর পরিচালিত ‘শেষ চিঠি’ ওয়েব ফিল্মে অভিনয় করে আলোচনায় এসেছেন তিনি। পাচ্ছেন দর্শকের প্রশংসা। এককথায়, অভিষেকেই সফল তিনি। আনন্দিত দীঘি এ প্রসঙ্গে জানান, ‘আমি নিয়মিত ওটিটি’র (ওভার দ্য টপ) কাজ দেখতাম। সুযোগ পাওয়ার পর কাজটি করার ব্যাপারে খুবই উৎসাহী ছিলাম। ভাবিনি দর্শকের এত সাড়া পাব। আলহামদুলিল্লাহ, ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি।’ চঞ্চল দীঘিকে বয়সের তুলনায় পরিপক্ক চরিত্রে অভিনয় করতে হয়েছে এ ওয়েব ফিল্মে। সেই অভিজ্ঞতা জানিয়ে দীঘি বলেন, ‘তুলি’ চঞ্চল মেয়ে। সে জায়গা থেকে নিজের সাথে মিলিয়ে অভিনয় করতে পেরেছি। কিন্তু সাংসারিক বিষয়গুলো সম্পর্কে আমার অভিজ্ঞতা নেই। জানাও নেই তেমন কিছু। এ জায়গাগুলো ফুটিয়ে তোলা একটু তো চ্যালেঞ্জিং ছিলই। পুরোটাই পরিচালক সুমন ধর ও ডিওপি রাজু রাজের পরামর্শ মেনে করা। তারা শুটিং সেটে যে সহযোগিতা করেছে, তার ফলেই এ অভিনয় বেরিয়ে এসেছে। যদিও শুরুতে নার্ভাস ছিলাম। ইয়াশ রোহান আমাকে আলাদাভাবে সময় দিয়েছে। সহজ করে নিয়েছে। সাবেরী আন্টি সেটে খুবই আদর করতেন। সবমিলিয়ে সহশিল্পীরা যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন।’ দীঘি আরও বলেন, ‘আমার মনে হয়, এখনো কিছুই করতে পারিনি। এখনো অনেক কিছু করা বাকি। যদিও প্রথম ওটিটি কনটেন্টে দর্শক প্রচুর প্রশংসা করছে। তবুও, দর্শককে আরও ভালো কাজ উপহার দেওয়া বাকি।’ প্রথম ওয়েব ফিকশনের সাফল্যে দীঘি মনে করেনÑতার দায়িত্ব আরও বাড়ল। আরও কিছু কাজের ব্যাপারে কথা চলছে। যে কাজই করবেন, ভালো কাজ উপহার দেওয়ার চেষ্টা করবেন। এদিকে শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক ‘মুজিব :দ্য মেকিং অব অ্যা নেশন’ ছবিতে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের চরিত্রে অভিনয় করেছেন দীঘি। এর আগে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ছবিতেও বঙ্গমাতার চরিত্রে অভিনয় করেন দীঘি। শ্যাম বেনেগালের ছবিতে কাজের অভিজ্ঞতার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমার সৌভাগ্য এমন একটি প্রজেক্টের সাথে যুক্ত হতে পেরেছি। এত গুণী মানুষদের সাথে আমার নামটাও থাকবে। ছবিটি দেখার সময় দর্শক আমাকেও দেখবে। এটাই আমার জন্য অনেক কিছু। ছবিটি ভালো হবে সন্দেহ নেই। আমি প্রজেক্টটি নিয়ে পুলকিত।’ অন্যান্য কাজ প্রসঙ্গে দীঘি বলেন, ‘আবদুস সামাদ খোকন পরিচালিত ‘শ্রাবণ জোছনা’র অর্ধেক কাজ বাকি আছে। ঈদের পর সে কাজ হওয়ার কথা রয়েছে। এর বাইরে ওটিটির কাজ নিয়ে কথা চলছে। দেখা যাক কী হয় সামনে।’ কথা প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া সোশ্যাল মিডিয়ায় দীঘির পোস্ট নিয়ে। প্রায়ই তাকে বিভিন্ন ভিডিওতে দেখা যায়। এ বিষয়ে দীঘির ভাষ্য, ‘আমার আগের অনেক ভিডিও আছে। এখন তেমন সময় পাই না। যখন পাই তখন দু’একটা ভিডিও পোস্ট করতেই পারি। অন্যান্য অভিনয়শিল্পীরাও তাই করেন। আমাকেও সে কাতারে ফেলা হোক। তা ছাড়া সময় পেলে ভিডিও দিতেই পারি, সে স্বাধীনতা আমার আছে।’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভীষণ জনপ্রিয় দীঘি। সে প্রসঙ্গ তুলতেই আপ্লুত দীঘি আবেগঘন কণ্ঠে বলেন, ‘মানুষ আমাকে এত পছন্দ করে, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন পোস্টে তাদের সে ভালোবাসা টের পাই। তখন মনে হয়, আমি তাদের জন্যই বেঁচে আছি। অন্যরকম অনুভূতি হয়। সবসময় এমন ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে বেঁচে থাকতে চাই।’