August 11, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, July 22nd, 2022, 7:46 pm

ওয়াসিমের পর এবার ওয়ানডে ক্রিকেটের বিপক্ষে খাজা

অনলাইন ডেস্ক :

একদিন আগেই ওয়ানডে ক্রিকেটকে ‘বিরক্তিকর’ বলে আলোচনার জন্ম দিয়েছিলেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ক্যালেন্ডার থেকে ওয়ানডে বাদ কথা জানিয়েছিলেন সাবেক এই পাকিস্তানি তারকা। এবার ওয়াসিমের সঙ্গে সুর মেলালেন অস্ট্রেলিয়ার উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান উসমান খাজা। অসি তারকার মতে, ওয়ানডে ক্রিকেট ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে চলেছে। টি-টোয়েন্টির যুগে ওয়ানডে ক্রিকেট অনেকটাই আলো হারিয়েছে। এ নিয়ে প্রায়ই কথা ওঠে। সম্প্রতি ওয়ানডে থেকে বেন স্টোকসের অবসরের পর প্রসঙ্গটি আবার উঠেছে। অসি তারকা খাজা তো ২০১৯ সালের পর থেকেই ওয়ানডে খেলেননি আর। এবার এই ফরম্যাটের বিপক্ষে কথা বললেন তিনি। অসি তারকা বলেন, ‘এটা একদম আমার ব্যক্তিগত অভিমত। আমার মনে হয়, অনেকেই আমার মতো এটা ভাবছেন। টেস্ট ক্রিকেট আছে, যেটি সবকিছুর চূড়া। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আছে, সারা দুনিয়াতে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ বাণিজ্যিক দিক দিয়ে সফল। এটা বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়, খেলাপ্রেমীদের বিনোদনের উৎস। এরপর ওয়ানডে ক্রিকেট। সব কটি সংস্করণের মধ্যে এটি তৃতীয় স্থানে আছে। ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, ওয়ানডে ক্রিকেট ধীরে ধীরে মরে যাচ্ছে। হ্যাঁ, বিশ্বকাপ আছে, যেটা ভীষণ মজার এবং দেখতেও ভালো লাগে। এর বাইরে আমি নিজেও ওয়ানডে নিয়ে অতটা আগ্রহী নই।’ এর আগে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফের ভনি অ্যান্ড টাফার্স ক্রিকেট ক্লাব পডকাস্টে ওয়ানডে নিয়ে নিজের ভাবনার কথা জানান ওয়াসিম। পাকিস্তানি তারকা বলেন, ‘আমার মতে, ওয়ানডে ক্রিকেটটা ক্রিকেটারদের জন্য খুব ক্লান্তিকর হয়ে পড়েছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের এই যুগে মনে হচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট অতীত যুগের ব্যাপার। ক্রিকেটাররা এখন টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি সংস্করণেই বেশি মনোযোগ দিচ্ছে। ওয়ানডে ক্রিকেট আমার মতে বিলুপ্তির পথে রয়েছে। তাই আমার মনে হয়,(ওয়ানডে ক্রিকেট বাদ দেওয়া) এটা করা উচিত।’ পাকিস্তানি তারকা জানান, ক্রিকেটাররা শুধু খেলতে সেই জন্যই নাকি খেলছেন, ‘খেলতে হবে, ¯্রফে একারণেই ওয়ানডে খেলছে ক্রিকেটাররা। প্রথম ১০ ওভার পর অবস্থা হয়, ঠিক আছে, এখন কেবল বল প্রতি রান করি, একটি বাউন্ডারি মারি, চারজন ফিল্ডার ৩০ গজ বৃত্তের মধ্যে আছে, ৪০ ওভারে ২০০-২২০ রানের সংগ্রহ গড়ি। শেষ ১০ ওভারে চড়াও হয়ে আরও ১০০ রান করে দলগুলো। গড়পড়তা মানের হয়ে দাঁড়িয়েছে ওয়ানডে ক্রিকেট।’ পাকিস্তানি তারকা আরো বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি সংস্করণ সহজ, চার ঘণ্টায় ম্যাচ শেষ। বিশ্ব জুড়ে লিগগুলোয় অনেক অর্থ পাওয়া যায়। আমি মনে করি, এটিই এখন আধুনিক ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ সংস্করণ। টি-টোয়েন্টি বা টেস্ট ক্রিকেট। ওয়ানডে ক্রিকেট মরে যাচ্ছে।’