June 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, June 19th, 2022, 8:48 pm

কমলগঞ্জে সড়কের দু’পাশের গাছ কেটে নিচ্ছে চোর চক্র

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার :

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জের আদমপুর-নইনারপার সড়কের দু’পাশে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর লাগানো গাছ রাতের আঁধারে প্রতিনিয়ত কেটে নিয়ে যাচ্ছে চোর চক্র। গত ৩ মাসে এ সড়কের দু’পাশ থেকে বড় আকারের প্রায় ৩০টি আকাশমনি গাছ কেটে নিয়েছে চক্রটি। সর্বশেষ গত ১০ জুন রাতের আঁধারে বড় দুটি আকাশমনি গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। এসব গাছ চুরি হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে উদাসীন।

জানা যায়, উপজেলার আদমপুর-নইনারপার সড়কের দেড় কিলোমিটার এলাকার দু’পাশের গাছগুলো বড় হয়ে গেছে। গাছের সারিতে গুনে দেখা যায় প্রায় ৩০টি কাটা গাছের গুঁড়ি স্বাক্ষি হয়ে মাটির সাথে মিশে আছে। গাছগুলো কেটে নিয়ে গেলেও গাছের ডালপালা সড়কের পাশের ধানি জমিতে ফেলে রাখা হয়েছে। চুরি যাওয়া এসব গাছের বাজারমুল্য প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকা হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে আরো জানা যায়, গত ৩ মাসে ওই সড়কের অনেক গাছ কাটা হয়েছে। রাতের আঁধারে চোরেরা গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। সেই সাথে বিনা অনুমতিতে এসব গাছ কেটে মার্কেট নির্মাণ হচ্ছে সড়কের পাশে। সম্প্রতি ‘লন্ডনী মার্কেট’ নামে একটি মার্কেট নির্মাণ করে সড়কের আরোও প্রায় ২৫-৩০ টি গাছ কেটে ফেলেন এক প্রভাবশালী প্রবাসী। এ সড়কে চোর চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে গাছ কেটে নিলেও স্থানীয় প্রশাসন ও বনবিভাগ নিরব রয়েছে। আদমপুরের ইউনিয়নের বাসিন্দা শাব্বির এলাহীসহ কয়েকজন বলেন, এলাকায় একটি গাছ চোরচক্র (সিন্ডিকেট) গড়ে উঠেছে। তারাই রাতের আঁধারে ধীরে ধীরে গাছগুলো কেটে নিচ্ছে। প্রায় বহুসংখ্যক গাছের গোড়ায় করাতের ধারালো অস্ত্রের চিহু রয়ে গেছে।

আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদাল হোসন বলেন, গাছ চুরির বিষয়ে স্থানীয়রা আমাকে জানিয়েছেন। বিষয়টি দেখছি।

কমলগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, ওই সড়কের গাছ অনেক বছর আগে লাগানো হয়েছে। তখন আমি এখানে দায়িত্বে ছিলাম না। তবে গাছগুলো তদারকির দায়িত্ব কাদেরকে দেয়া হয়েছিল তা খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রাজকান্দি রেঞ্জের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, বনবিভাগ থেকে ওই সড়কে কোন গাছ লাগানো হয়নি। তারপরও চুরির বিষয়টি দেখবো।