August 18, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, July 5th, 2022, 9:22 pm

করোনার ঊর্ধ্বগতি: কমলাপুর রেলস্টেশনে সামাজিক দূরত্ব লঙ্ঘনের মহোৎসব

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই ঈদ-উল-আজহার আগে ট্রেনের টিকিট কাটতে প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ভিড় করছে। এর ফলে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকছে না।

ঈদের আর মাত্র চার দিন বাকি থাকায় মঙ্গলবার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে মাস্ক ছাড়া লোকজনকে টিকিট কাউন্টারের সামনে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে।

আগামী ১০ জুলাই দেশে মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব হওয়ায় ১ জুলাই থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

টিকিটের জন্য যাত্রীরা ঘন্টার পর ঘন্টা দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করার সময় সামাজিক দুরত্বের বালাই থাকছে না। এ সময় প্রত্যেকে উদ্বিগ্ন হয়ে অপেক্ষা করছে, কখন তারা তাদের কাঙ্ক্ষিত টিকিট পাবে!

ডিরেক্টরেট জেনারেল অব হেলথ সার্ভিসের (ডিজিএইচএস) তথ্য অনুসারে দেশে সোমবার করোনা আক্রান্ত হয়ে গত চার মাসের মধ্যে একদিনে সর্বোচ্চ ১২জন মারা গেছেন। এসময় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে দুই হাজার ২৮৫ জন। এসময় দৈনিক শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৫১ শতাংশে পৌঁছেছে।

অথচ গত ৫ মার্চ দেশে সর্বশেষ ১৩ জনের করোনায় মৃত্যু হয়। সেদিন ৩৬৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়, সেসময় শনাক্তের হার ছিল দুই দশমিক ১১ শতাংশ।

বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় মহামারির চতুর্থ ঢেউ শুরু হয়েছে। তবুও মানুষ সামাজিক দূরত্ব মানতে এবং করোনা সংক্রমণ থেকে নিরাপদ থাকতে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না।

বিশেষজ্ঞরা জানায়, ওমিক্রনের দুটি সাব-ভেরিয়েন্ট বিএ.৪ ওবিএ.৫ সম্ভবত বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও সংক্রমণের নতুন ঢেউয়ের সূচনা করছে।

ডিজিএইচএসের মুখপাত্র ডা. রোবেদ আমিন, আইইডিসিআর উপদেষ্টা ডা. এম মুশতুক হোসেন এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সাবেক আঞ্চলিক উপদেষ্টা মুজাহেরুল হক ইউএনবির সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা জানান।

তারা করোনা প্রতিরোধে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখার ওপর জোর দেন। যার মধ্যে রয়েছে- শতভাগ মানুষের মাস্ক ব্যবহার এবং বয়োজ্যেষ্ঠদের সংক্রমণ কমাতে করোনা টিকার বুস্টার ডোজের আওতায় আনার জন্য ভ্যাকসিনেশন বৃদ্ধি করা।

ডিজিএইচএসের দেয়া তথ্যানুসারে, ১২ দশমিক ৯৪ জনেরও বেশি মানুষ এখনও পর্যন্ত করোনা টিকার দুটি ডোজ পেয়েছে এবং ১১ দশমিক ৯৬ কোটি মানুষ টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছে।

এছাড়াও, দেশে দুই দশমিক ৯৬ কোটির বেশি মানুষ টিকার বুস্টার ডোজ নিয়েছে।

রোবেদ আমিন বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার ভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকার জন্য মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মানা ও অন্যান্য স্বাস্থ্য নির্দেশিকা শিথিল করেনি। কিন্তু মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। তাই ভাইরাসের সংক্রমণ আবারও বাড়ছে।’

ডিজিএইচএনের এই কর্মকর্তা বলেন, ঢাকা শহরের বিভিন্ন অংশে এখন ভাইরাসের গুচ্ছ সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে। তবে এটি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না, কারণ মানুষ মাস্ক পরছে না এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি বজায় না রেখেই সর্বত্র ঘোরাফেরা করছে।

প্রস্তাবিত স্বাস্থ্য নির্দেশিকা

দেশে এবং সারা বিশ্বে করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধির প্রবণতা লক্ষ্য করে করোনাভাইরাস-এর জাতীয় প্রযুক্তিগত উপদেষ্টা কমিটি (এনটিএসি) গত ২৫ জুন ভাইরাসের বিস্তার রোধে শতভাগ মাস্ক ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার সুপারিশ করেছে।

কমিটি প্রচারণার মাধ্যমে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিরও সুপারিশ করেছে।

যেসব দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে, সেসব দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় করোনার নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিশ্চিত করার সুপারিশ করেছে এনটিএসি।

এছাড়াও তারা সব বন্দরে যাত্রীদের স্ক্রিনিং জোরদার করার পরামর্শ দিয়েছে।

কমিটি ঈদুল আজহা উপলক্ষে শপিংমল, মার্কেট, দোকানপাট এবং দেশের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণের সময় মাস্ক পরার সুপারিশ করেছে।

এছাড়াও তারা ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে তারাবিহ নামাজ ও ঈদের জামাতে স্বাস্থ্য প্রোটোকল নিশ্চিত করতে বলেছে।

—ইউএনবি