October 21, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, May 23rd, 2021, 1:18 pm

করোনায় দ্রুত সুস্থতায় সহায়ক ৬ জুস

অনলাইন ডেস্ক :

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, সুস্বাস্থ্য এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধরে রাখতে আমাদের প্রতিদিনের ডায়েটের একটি অংশ হওয়া উচিত ফল ও শাকসবজি। শরীরের যাবতীয় ভিটামিন, খনিজ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের চাহিদা পূরণে পর্যাপ্ত ফল ও শাকসবজি হলো সেরা উপায়।

করোনাভাইরাস শরীরের পাচনতন্ত্রেও প্রভাব ফেলতে পারে, যা পেটের টিস্যুর ক্ষতি ও প্রদাহ তৈরি করে। তাজা ফল ও শাকসবজি শরীরের হজম ব্যবস্থা সহজেই শোষণ করতে পারে, যা করোনা থেকে সুস্থতায় ভূমিকা রাখে।

এক্ষেত্রে জুস বা শরবত দ্রুত রক্তপ্রবাহে শোষিত হয় বলে, এটি তাৎক্ষণিকভাবে শারীরিক শক্তি পাওয়ার দুর্দান্ত এক উপায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনা থেকে সুস্থতায় সহায়ক হতে পারে বিভিন্ন ধরনের জুস বা শরবত।

দিনে দু-তিনবার শাকসবজি ও ফলের জুস পান রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ও প্রদাহ কমাতে পারে। এখানে কোভিড-১৯ রোগীদের দ্রুত সুস্থতায় সহায়ক হতে পারে এমন ৬টি জুস সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

টমেটো-পুদিনার জুস: এই জুস অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট গুণে সমৃদ্ধ এবং খাবার হজম সহায়তা করে। ঘরে টমেটো-পুদিনার জুস তৈরির জন্য ব্লেন্ডারে এক গ্লাস পানির সঙ্গে ৪টি টমেটো ও ৮-১০টি পুদিনা পাতা দিয়ে ভালোভাবে ব্লেড করুন। স্বাদ বাড়াতে এর সঙ্গে সামান্য লবণ, লেবু ও গোলমরিচ যোগ করতে পারেন।

গাজর, বিটরুট, আমলকী ও আদার জুস: শরীর থেকে টক্সিন দূর ও লিভার ভালো রাখতে সাহায্য করে আমলকী ও গাজর। আমলকীতে রয়েছে ভিটামিন সি, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। এই জুস তৈরির জন্য ব্লেন্ডারে ২টি কাটা গাজর, ১টি বিট এবং সামান্য আদা ভালোভাবে ব্লেন্ড করে নিন। এর মধ্যে লেবুর রস মেশালেই তৈরি হয়ে হবে স্বাস্থ্যকর জুস।

মোসাম্বি, আনারস ও সবুজ আপেলের জুস: এটি ভিটামিন সি এবং ক্যালসিয়ামের ভালো উৎস। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবং হজমে সহায়তা করে। এই জুস তৈরির জন্য ২টি মোসাম্বি, ২৫০ গ্রাম আনারস এবং ১টি কাটা সবুজ আপেল ব্লেন্ড করুন। এতে সামান্য বিট লবণ দিতে পারেন।

কিউই, স্ট্রবেরি ও মাল্টার জুস: অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট গুণে ভরপুর এই জুস রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য দুর্দান্ত। এটি শরীরের রক্তচাপ ঠিক রাখতে সহায়তা করে এবং অসুস্থতা থেকে দূরে রাখে। এই জুস তৈরি করতে ১ কাপ স্ট্রবেরি, খোসা ছাড়ানো ২টি কিউই ফল, ১টি মাল্টা, আধাকাপ পানি ও ১ চা-চাপ মধু ব্লেন্ডারে দিন।

হলুদ, আদা, লেবু ও মাল্টার জুস: এই সবগুলো উপাদানেই অ্যান্টিভাইরাল এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্যযুক্ত অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি তথা প্রদাহ বিরোধী গুণ রয়েছে। সবগুলো উপাদান একসঙ্গে ব্লেন্ডারে দিয়ে তৈরি করে নিন জুস।

শসা, পালং শাক, পাথুনি শাক, আদা ও লেবুর জুস: সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিদিনের ডায়েটে অবশ্যই শাকসবজি থাকা উচিত। এটি প্রদাহ হ্রাস করতে সহায়তা করে এবং হজম ক্ষমতা বাড়ায়। এই জুস তৈরির জন্য ২টি খোসা ছাড়ানো শসা, ১০০ গ্রাম পালং শাক, ৪টি পাথুনি ডাঁটা এবং ১ ইঞ্চি আদা ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিন। এবার এর মধ্যে লেবুর রস মিশিয়ে পান করুন।