June 25, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, April 26th, 2022, 7:59 pm

কিনের শেষ মুহূর্তের গোলে জুভেন্টাসের জয়

অনলাইন ডেস্ক :

মোয়েস কিনের শেষ মুহূর্তের গোলে সিরি-এ লিগে সাসুলোর বিপক্ষে কঠিন লড়াইয়ের পর ২-১ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জুভেন্টাস। এই জয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা নাপোলির থেকে জুভেন্টাস এখন আর মাত্র এক পয়েন্ট দুরে রয়েছে। দারুন এই জয়ের মাধ্যমে ৩৪ ম্যাচে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা নাপোলির থেকে এক পয়েন্ট পিছিয়ে ও রোমার থেকে আট পয়েন্ট এগিয়ে চতুর্থ স্থানটি ধরে রাখলো জুভেন্টাস। অন্যদিকে সাসুলো টেবিলের ১০ম স্থানেই থাকলো। ম্যাচ শেষের দুই মিনিট আগে কিনের গোলে জুভেন্টাসের জয় নিশ্চিত হয়। তার আগে তুরিনের জায়ান্টদের সাথে এক পয়েন্ট ভাগভাগি করে নেবার পথে ভালই এগিয়ে যাচ্ছিল লিগ টেবিলের মাঝামাঝিতে থাকা সাসুলো। রক্ষনভাগ থেকে লিওনার্দো বনুচ্চির লম্বা একটি পাস কিনের মাধ্যমে শেষ হয়। ৬৭ মিনিটে বদলী বেঞ্চ থেকে উঠে আসা আলভারো মোরাতাও এই গোলে সহযোগিতা করেছেন। সকলের মিলিত প্রচেষ্টায় পোস্টের খুব কাছে থেকে জোড়ালো শটে গোলরক্ষক আন্দ্রে কনসিগলিকে পরাস্ত করেন কিন। শেষ মুহূর্তের গোলে এই জয়ের মাধ্যমে জুভেন্টাসের টেবিলের চতুর্থ স্থান অক্ষুন্ন রেখেছে। শীর্ষে থাকা এসি মিলানের থেকে তাদের পয়েন্টের ব্যবধান এখন আট। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে পঞ্চম স্থানে থাকা রোমার থেকেও জুভেন্টাসের পয়েন্টের ব্যবধান আট। যে কারণে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জায়গা ধরে রাখতে অনেকটাই সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে ইটালিয়ান জায়ান্টরা। পুরো ম্যাচে জুভেন্টাসের চেয়ে ভাল খেলেও পরাজয়ের হতাশা নিয়েই মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিক সাসুলো। বিশেষ করে ডোমেনিকো বেরারডির কর্ণার থেকে ডেভিড ফ্রাত্তেসির হেড ক্রসবার ছুঁয়ে বাইরে চলে যাওয়া ছিল ম্যাচের সবচেয়ে হতাশাজনক ঘটনা। এ ছাড়া গিয়ানলুকা সামাকার একটি শট দুর্দান্তভাবে রক্ষা করেন জুভেন্টাসের গোলরক্ষক ওজিচেচ সিজিসনি। এসবই সাসুলোকে ম্যাচে এগিয়ে যেতে দেয়নি। পাওলো দিবালার একটি শট শেষ মুহূর্তে ফ্রাত্তেসি ব্লক না করলে ম্যাচে লিড নিতে পারতো জুভেন্টাস। শেষ পর্যন্ত ৩৯ মিনিটে সফল হয় সাসুলো। মধ্যমাঠে মোরাতা তার পজিশন হারালে বেরারডির নিখুঁত ব্যাকহিলে গিয়াকোমো রাসপাডোরি গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। রাসপাডোরির শক্তিশালী শট ধরার সাধ্য ছিলনা সিজিসনির। কিন্তু বিরতির ঠিক আগে সমতা ফেরায় জুভেন্টাস। আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার দিবালার এ্যাঙ্গেল শটের গোলে ৪৫ মিনিটে জুভেন্টাস সমতায় ফিরে। যদিও এই গোলের আগে মোরাতার বিপক্ষে গিরগস কিরিয়াকপলুস ফাউলের দাবী জানিয়েছিল সাসুলো। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আলভারো মোরাতার হেড দুর্দান্ত দক্ষতায় রুখে দেন সাসুলো গোলরক্ষক আন্দ্রে কনসিগলি। ম্যাচ শেষের দুই মিনিট আগে এ্যালেক্স সান্দ্রোর এসিস্টে কিন শক্তিশালী শটে কনসিগলিকে পরাস্ত করলে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয় জুভেন্টাসের। ম্যাচ শেষে জুভেন্টাসের কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি স্কাই স্পোর্টস ইতালিয়াকে বলেছেন, ‘এই দলটি বেশ উন্নতি করেছে। কিন্তু আমাদের প্রতিটি ম্যাচেই ভাল খেলতে হবে, এই মুহূর্তে এর বিকল্প নেই। আমি খুব বেশী খেলোয়াড় পরিবর্তনের পক্ষে নই। কিন্তু আসন্ন গ্রীষ্মে এক থেকে দুজন খেলোয়াড় আমাদের চুক্তিভূক্ত করতে হবে। এই দলটি দারুন একটি মৌসুম কাটাচ্ছে। যদিও খেলোয়াড়দের মধ্যে কিছুটা পরিশ্রান্ত ভাব চলে এসেছে। কিন্তু তারপরও আমি তাদেরকে ধন্যবাদ দিতে চাই। পঞ্চম স্থানে থাকা রোমার তুলনায় এখন আমরা সুবিধাজনক অবস্থানে আছি। নাপোলির বিপক্ষে পিছিয়ে থাকা নিয়েও কাজ করে যাচ্ছি।’