June 15, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, October 31st, 2023, 6:28 pm

কুলাউড়ায় আওয়ামীলীগের শান্তি সমাবেশ

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার:

ঢাকাসহ সারাদেশে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, হরতাল ও অবরোধের প্রতিবাদে কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ একেএম সফি আহমদ সলমানের নেতৃত্বে কুলাউড়ায় শান্তি সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

৩১ অক্টোবর মঙ্গলবার বেলা দুইটার দিকে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি নিয়াজুল তায়েফের নেতৃত্বে দুই শতাধিক মোটর সাইকেল দিয়ে শহরে মিছিল অনুষ্টিত হয়। মিছিলে উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতৃবৃন্দ অংশ নেন। মিছিল শেষে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে শান্তি সমাবেশে উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সদস্য সচিব আবুল মনসুর রাজনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ একেএম সফি আহমদ সলমান। তিনি তাঁর বক্তব্য বলেন, নির্বাচনের আগ মুহূর্তে মহাসমাবেশের নামে বিএনপি জামায়াত যে ধ্বংসের রাজনীতি শুরু করেছে সেটি প্রতিহত করতে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা মাঠে রয়েছে। বিএনপি জামায়াত হরতাল অবরোধের নামে নৈরাজ্য ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালালে পার পাবেনা। তারা আগামী নির্বাচনেও ভরাডুবির ভয়ে মহা সমাবেশের নামে দেশে সহিংসতা শুরু করেছে।

সফি আহমদ সলমান আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। পদ্মা সেতু, বঙ্গবন্ধু টানেল, এক্সপ্রেসওয়েসহ নানা মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। ঠিক সেই মুহূর্তে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের জনপ্রিয়তায় ইর্ষান্বিত হয়ে বিএনপি-জামায়াত নানা ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিশাল জয় অনুধাবন করে তারা নির্বাচনের আগ মুহূর্তে বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের সরকারের বিরুদ্ধে কুৎসা রটিয়ে ঘোলাটে পরিস্থিতি সৃষ্টির পায়তারায় লিপ্ত রয়েছে। গত শনিবার একজন পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে মেরেছে প্রকাশ্যে। এরকম সন্ত্রাসবাদকে রুখতে আওয়ামীলীগের প্রতিটি কর্মী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সজাগ রয়েছে। কুলাউড়ায় সন্ত্রাসবাদ ছড়াতে চেষ্টা করলে বিএনপি জামায়াতের কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা। আগামী নির্বাচনে এই কুলাউড়ায় যিনি নৌকার মনোনয়ন পাবেন তাঁকে জয়ী করতে আমি আমার নেতাকর্মীদের নিয়ে কাজ করে যাবো। লক্ষ্য একটাই শেখ হাসিনাকে আবারো এদেশের প্রধানমন্ত্রী করতে হবে।

শান্তি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাইফুর রহমান শাহীন, কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ফুয়াদ আলম চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিয়াজুল তায়েফ। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও শরিফপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান, সাবেক কাউন্সিলর ইকবাল আহমদ শামীম, হাজিপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নুর আহমদ চৌধুরী বুলবুল, ইউপি সদস্য আব্দুল মুনিম, টিলাগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আব্দুল মালিক ফজলু, কর্মধা ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য হেলাল আহমদসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

এদিকে মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে কুলাউড়ার স্কুল চৌমুহনীর রেল গেইট সংলগ্ন এলাকায় কুলাউড়ায় রেলপথে অবস্থান করে অবরোধের চেষ্টাকালে পুলিশ দেখে সটকে পড়লেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে কুলাউড়ার স্কুল চৌমুহনী রেল গেইট সংলগ্ন এলাকায় উপজেলা বিএনপির একাংশের ১৫/২০ জন নেতাকর্মী রেলপথে অবস্থান নেন। সেখানে তারা কিছু সময় অবস্থানের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে রওয়ানা দেয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই সেখান থেকে সটকে পড়েন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে উপজেলা বিএনপির একাংশের (বাচ্চু-সজলের নেতৃত্বাধীন) সাংগঠনিক সম্পাদক সুফিয়ান আহমদ জানান, আমরা সকাল ১১ টার দিকে কুলাউড়া সরকারি কলেজে সম্মুখে, উছলাপাড়া ও স্কুল চৌমুহনী এলাকার রেল গেইট সংলগ্ন স্থানে তিনভাগে অবস্থান করি। আমাদের অবরোধ কর্মসূচিতে পুলিশ বাধা দেয়। পুলিশ এসে আমাদের ধাওয়া করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

কুলাউড়া থানার ওসি মো. আব্দুছ ছালেক জানান, বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মীরা রেলপথে অবস্থান নেয়ার চেষ্টা করেছিলো। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সেখান থেকে সটকে পড়ে। কুলাউড়ায় অবরোধের নামে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ও বিশৃঙ্খলা না ঘটে সেজন্য পুলিশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। যারা বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।