October 5, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, May 13th, 2022, 9:02 pm

কুলাউড়ায় সেই অপহৃত শিশু মাহিন ২০ ঘণ্টা পর ফিরলো মায়ের কোলে

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার :

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় সিঁধ কেটে ঘুমন্ত অবস্থায় মায়ের কাছ থেকে অপহৃত সাড়ে তিন বছর বয়সী শিশু মাহবুব ইসলাম মাহিন অবশেষে তার মায়ের কোলে ফিরেছে। তাকে অপহরণের ২০ ঘণ্টা পর বুধবার (১১ মে) রাত ৯টার দিকে পার্শ্ববর্তী জুড়ী উপজেলার কাপনাপাহাড় চা-বাগান এলাকার একটি মন্দিরের সামনে থেকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে কুলাউড়া থানা পুলিশ। এ ঘটনায় বুধবার রাতেই শিশু মাহিনের চাচা লোকমান মিয়া বাদী হয়ে অপহরণকারী জুড়ীর উত্তর সাগরনাল গ্রামের বাসিন্দা রইছ মিয়ার ছেলে মাজেদ আহমদ মজনু (২৭) কে প্রধান আসামী করে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন। এছাড়া মামলায় আরও ২/৩ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

কুলাউড়া থানা পুলিশ জানায়, ঘটনার পর থেকে মাহিনকে উদ্ধারের জন্য কুলাউড়া ও জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সাঁড়াশি অভিযান চালানো হয়। বুধবার রাত নয়টার দিকে জুড়ীর কাপনাপাহাড় চা-বাগান এলাকায় একটি মন্দিরের পাশে অপরিচিত একটি শিশুকে একা ঘোরাঘুরি করতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। একই সময় মাহিনের সন্ধানে পুলিশের একটি দলও সেখানে অভিযান করছিল। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে তারা সেখানে গিয়ে শিশুটি মাহিন বলে শনাক্ত করে। এরপর রাত ১১টার দিকে পুলিশ তাকে কুলাউড়া থানায় নিয়ে যায়। অভিযুক্ত মজনু শিশু মাহিনের নানা আকবর আলীর সম্পর্কে শ্যালক হয়। সেই সুবাধে মজনু প্রায় সময় শিশু মাহিনের নানা বাড়িতে যাওয়া আসা করতো।

 

কুলাউড়া থানার (ওসি) তদন্ত মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, অপহরণের খবর পেয়েই সাথে সাথে অপহৃত শিশু মাহিনকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার ও চাঞ্চ্যলকর এই ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে মাঠে নামে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে এক জোড়া জুতা উদ্ধারের মাধ্যমে অপরাধী সনাক্ত করার কাজ শুরু হয়। বিভিন্ন সোর্সের মাধ্যমে সম্ভাব্য অপরাধীর অবস্থান নিশ্চিত করে কুলাউড়া এবং জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করি। অপহরনকারীদের সম্ভাব্য প্রতিটি অবস্থানে আমরাও অভিযান চালালে অপহরনকারীরা শিশু মাহিনকে কাপনাপাহাড় এলাকায় একটি মন্দিরের পাশে রেখে পালিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে অপহৃত মাহিনকে সম্পূর্ণ অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করতে সক্ষম হই। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন এবং জড়িতদের খুব শীঘ্রই আটক করতে পারবো বলে আশাবাদী।

 

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিনয় ভূষণ রায় বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার ওসি (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম পুলিশ ফোর্স নিয়ে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। রাতেই উদ্ধার হওয়া শিশুকে তার মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত মজনুকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তাঁকে গ্রেপ্তার করতে পারলে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।