December 4, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, November 13th, 2022, 8:50 pm

কু্ষ্টিয়ায় অজ্ঞাত তরুণীর লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে রেললাইনের ওপর পড়ে থাকা সেই অজ্ঞাত তরুণীর লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে। তাঁর নাম শাম্মী আক্তার ওরফে সামিয়া (২০)। তিনি কুমারখালী পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের শেরকান্দি এলাকার সাইদুল ইসলামের মেয়ে।

তিনি টিকটক ভিডিও তৈরি করতেন। লাশটি শনাক্ত করেছেন ওই তরুণীর চাচা মো. আনোয়ার হোসেন ও ছোট বোন সাদিয়া খাতুন।

রবিবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পোড়াদহ রেলওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তন্ময় ভট্টাচার্য।

তিনি বলেন, ‘ নিহত ব্যক্তির নাম শাম্মী আক্তার। রবিবার দুপুরে তাঁর চাচা ও ছোট বোন লাশটি শনাক্ত করেছেন। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। মামলা নম্বর ২৮।

এর আগে শনিবার রাত সোয়া নয়টার দিকে উপজেলার সদকী ইউনিয়নের দড়ি মালিয়াট এলাকার রেললাইনের ওপর থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার করে এবং সুরতহাল করে মর্গে পাঠায় পুলিশ।

তবে ওই তরুণী আত্মহত্যা করেছেন, নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে! তা নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে।

নিহতের মা হাসিনা খাতুন বলেন, ‘শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে উপজেলার সদকী ইউনিয়নের দড়ি মালিয়াট গ্রামের ফুফু মোছা. কাঞ্চন খাতুনের বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে নিজ বাড়ি থেকে বের হয়েছিল। কিন্তু রাত আটটা পর্যন্ত আর বাড়ি ফিরে না আসায় খোঁজাখুজি শুরু করি। এরপর সকালে একটা লাশ উদ্ধারের খবর শুনে কুষ্টিয়া মর্গে যাই। মর্গে গিয়ে মেয়ের ক্ষত-বিক্ষত লাশ পাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। আত্মহত্যা করার মত কোনো কারণ নেই। মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে।’

তবে নিহতের ফুফু মো. কাঞ্চন খাতুন বলেন, ‘শনিবার সামিয়া আমাদের বাড়িতে যায়নি। রাতে আমাদের বাড়ি থেকে আধা কিলোমিটার দূর থেকে এক লাশ পাওয়ার খবর শুনেছিলাম।’

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী রেললাইনের কুমারখালীর সদকী ইউনিয়নের দড়ি মালিয়াট গ্রামের সিএমবি রেলগেট এলাকায় একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশকে খবর দেন তাঁরা। খবর পেয়ে কুমারখালী থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে এবং পরে রেলওয়ে পুলিশ সুরতহাল করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায় লাশটি।

কুমারখালী পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এস এম রফিক বলেন, ‘মেয়েটি আমার এলাকার। তিনি টিকটক ভিডিও তৈরির কাজ করতেন বলে জানা গেছে। তবে তাঁর মৃত্যু রহস্যজনক। সঠিক তদন্ত হলে প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে।’

পোড়াদহ রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইমদাদুল হক বলেন, ‘খবর পেয়ে রাতে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।’

—ইউএনবি