December 2, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, January 27th, 2022, 8:14 pm

কোভিড বিধিনিষেধ তুলে নিয়েছে ইংল্যান্ড

অনলাইন ডেস্ক :

কোভিড বিধিনিষেধ তুলে নিয়েছে ইংল্যান্ড। মাস্ক দিয়ে মুখ ঢেকে রাখা এবং কোভিড পাস এখন আর প্রয়োজন হবে না। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারী) থেকেই এসব বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হচ্ছে। খবর বিবিসির। স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ বলছেন, ভ্যাকসিন কার্যক্রম সফল হওয়া এবং কোভিডের চিকিৎসা ভালো ভাবে উপলব্ধি করতে পারায় বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হয়েছে। এদিকে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের কার্যালয়ের মুখপাত্র বলেন, মাস্ক পরার বিষয়টি এখন ব্যক্তিগত ইচ্ছার ওপর নির্ভর করবে। তবে কিছু দোকানি জানিয়েছেন, তারা লোকজনকে মাস্ক পরেই তাদের দোকানে আসতে বলবেন। রেল কর্মকর্তারাও জানিয়েছেন যে, যাত্রীরা মাস্ক দিয়ে মুখ ঢেকে রাখবেন এমনটাই তারা আশা করছেন। তবে সবাই বলছেন, তারা অন্যান্যের উৎসাহ দেবেন। এ ক্ষেত্রে কাউকে জোর করা হবে না। লন্ডনের মেয়র সাদিক খান বলেন, ট্রান্সপোর্ট ফর লন্ডন সার্ভিসে ফেস মাস্ক বাধ্যতামূলকই থাকবে। একই সঙ্গে তিনি লোকজনকে সঠিক কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন। সরকার বলছে, ভিড়ের মধ্যে এবং আবদ্ধ স্থানে লোকজনকে মাস্ক পরার পরামর্শ থাকছেই। কোনো প্রতিষ্ঠানে কোভিড পাসের প্রয়োজন হবে কিনা তা সেই প্রতিষ্ঠানের ওপরই নির্ভর করছে বলে জানানো হয়েছে। বিশ্বের অনেক দেশই যখন নতুন করে লকডাউন এবং বিধিনিষেধ জারি করছে তখন ভিন্ন পথে হাঁটছে ইংল্যান্ড। ইউরোপের বেশিরভাগ দেশেই সংক্রমণ আবারও বাড়তে শুরু করেছে। ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, যুক্তরাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ২ হাজার ২৯২ জন এবং মারা গেছেন ৩৪৬ জন। দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৬১ লাখ ৪৯ হাজার ৩১৯ এবং মারা গেছে ১ লাখ ৫৪ হাজার ৭০২ জন। এদিকে বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১০ হাজার ২২১ জন। আগের দিনের তুলনায় মৃত্যু বেড়েছে আট শতাধিক। মোট মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৬ লাখ ৪৪ হাজার ৭৩৮ জনে। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৩৪ লাখ ৯৯ হাজার ৭৮ জন। আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ৩ লাখ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৬ কোটি ২৯ লাখ ৬ হাজার ৬১১ জনে।