June 12, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, October 20th, 2023, 7:44 pm

কোহলির কাছে ‘বিশেষ কিছু’ বিশ্বকাপে ৪৮তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি

অনলাইন ডেস্ক :

গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭ উইকেটে জয় পাওয়া ম্যাচে সেঞ্চুরি হাকানোর পর ভারতীয় তারকা বিরাট কোহলি ঘরের মাটিতে বিশ্বকাপে খেলার ‘বিশেষ অনুভূতি’ উপভোগ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন। গত বৃহস্পতিবার শতরানের সুবাদে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরিয়ান স্বদেশী শচিন টেন্ডুলকারের রেকর্ডের কাছে পৌঁছে দিয়েছে কোহলিকে। স্পিনার নাসুম আহমেদের বলে ছক্কা হাকিয়ে সেঞ্চুরি পুরন করে অপরাজিত ১০৩ রান করেন তিনি। এই শটটিও একটি বলিউড সিনেমার মতো ফিনিশিং ছিল।

কোহলির অসাধারণ ইনিংসের সুবাদে আট ওভার হাতে রেখেই ২৫৭ রানের লক্ষ্যে পৌঁঁছে যায় ভারত। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ৪৯ সেঞ্চুরির মালিক টেন্ডুলকারের চেয়ে মাত্র একটি সেঞ্চুরি দূরে রয়েছেন কোহলি। আর মাত্র একটি সেঞ্চুরি হলেই টেন্ডুলকারের রেকর্ড স্পর্শ করবেন তারকা এ ব্যাটার। ৯৭ বলের ইনিংসে ছয়টি চার এবং চারটি ছক্কা হাকিয়েছেন তিনি। এই সেঞ্চুরি ছাড়াও বিশ্বকাপে এর আগে অস্ট্রেলিয়া এবং আফগানিস্তানের বিপক্ষে যথাক্রমে ৮৫ এবং অপরাজিত ৫৫ রান করেছেন কোহলি। ভারতীয় এই অভিজ্ঞ ব্যাটার বলেন,‘ বিশ^কাপে আমার বেশ কিছু হাফ সেঞ্চুরি আছে। কিন্তু সেগুলোকে (সেঞ্চুরিতে) পরিণত করতে পারিনি। তাই আমি খেলাটি শেষ করতে চেয়েছিলাম।

পিচ বেশ ভাল ছিল, যা আমার স্বাভাবিক খেলা খেলতে এবং গ্যাপে জোরে শট নিতে সহায়তা করেছে।’ এই জয়ে ভারত এখন টুর্নামেন্টে নিজেদের চার ম্যাচের সবকটিতেই জয় নিশ্চিত করল। ২০১১ সালে মুম্বাইয়ে বিশ্বকাপ ফাইনালে শ্রীলংকাকে হারানো ভারতীয় দলে টেন্ডুলকারের সতীর্থ হিসেবে অংশ নেয়া কোহলি বলেন,‘ চেঞ্জিং রুমে একটি দুর্দান্ত পরিবেশ রয়েছে, আমরা একে অপরের সঙ্গকে ভালবাসি, সেই সঙ্গে মাঠের লড়াইয়ে ওই স্পিরিট ধরে রাখার চেস্টা করি। আমরা জানি এটি একটি দীর্ঘ টুর্নামেন্ট এবং ছেলেদের এভাবে খেলার জন্য আপনাকে কিছুটা মোমেন্টাম তৈরি করতে হবে। ঘরের মাঠে নিজে সমর্থকদের সামনে খেলার একটি বিশেষ অনুভূতি আছে। আমরা কেবল এটির সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে চাই।’ চলতি বিশ^কাপে এটি ছিল কোহলির প্রথম সেঞ্চুরি। সর্বশেষ ২০১৫ বিশ^কাপে এডিলেডে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০৭ রান করেছিলেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার সেঞ্চুরির আগে ৩৪ বছর বয়সি ওই তারকা বিশ্বকাপে সাতটি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন। কোহলির ওই সেঞ্চুরির পাশাপাশি ম্যাচে বলে বলে অপরাজিত ৩৪ রান করেছেন কেএল রাহুল। কোহলি সেঞ্চুরিতে পৌঁছানোর দুই বল আগে, লেগ সাইডের নিচে নাসুমের একটি ডেলিভারিতে ওয়াইডের সংকেত দেওয়া হয়নি। পরবর্তী বলে ছক্কা হাকিয়ে শতক পুর্ন করেন কোহলি। রাহুল বলেন, ‘সে (কোহলি) কিছুটা বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিল। তার মতে সিঙ্গেল না দেয়াটা ভালো কিছু নয়। এটা বিশ্বকাপ এবং একটা বড় মঞ্চ। আমি এমন দেখতে চাই না যে মাইলফলকের জন্য আমি শুধু চেষ্টা করছি। কিন্তু আমি বলেছি আমরা এখনো জয়লাভ করিনি। তবে হ্যাঁ, সহজেই জয়ের সম্ভাবনা আছে। সুতরাং তুমি যদি মাইলফলকে পৌঁছাতে চাও তাহলে কেন যাবেনা, তোমাকে অবশ্যই চেস্টা করতে হবে। শেষ পর্যন্ত সে সেটা করতে পেরেছে। যে কারণে আমি বেশী রান সংগ্রহ করতে চাইনি। শুধুমাত্র সিঙ্গেলসের মধ্যে ছিলাম।’