March 3, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, February 9th, 2023, 8:44 pm

ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে রিয়াল

অনলাইন ডেস্ক :

ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের প্রতিপক্ষ ছিলো মিশরের ক্লাব আল আহলি। স্প্যানিশ জায়ান্টরা যে ফাইনালে যাবে সেটা অনুমেয়ই ছিলো। তবে দেখার বিষয় ছিলো দলের সবচেয়ে বড় তারকা করিম বেনজেমা, গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া ও ডিফেন্ডার এডার মিলিতাওকে ছাড়া কেমন করে মাদ্রিদ। বড় তারকারা না থাকলেও দুই ব্রাজিলিয়ান ভিনিসিয়াস জুনিয়র আর রদ্রিগোর দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে আল আহলিকে ৪-১ গোলে হারিয়ে ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। গত বুধবার মরক্কোর রাবাতের প্রিন্স মৌলায়ে আবদুল্লাহ স্টেডিয়ামে ক্লাব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে আল আহলির বিপক্ষে মাঠে নামে রিয়াল মাদ্রদি। বেনজেমা, কোর্তোয়া, মিলিতাওদের সঙ্গে ইনজুরির কারণে এদিন মাঠে নামতে পারেননি লুকাস ভাসকুয়েজ আর ফারল্যান্দ মেন্ডিরাও। ইনজুরিতে জর্জরিত এই দল নিয়েও সেমিফাইনাল বাধা পেরোতে কোনো সমস্যা হয়নি কার্লো আনচেলত্তি। ভিনিসিয়ুস, রদ্রিগো, ভালভার্দে ও সার্জিও এরিবেসের গোলে ৪-১ গোলের সহজ জয় নিয়েই ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে যায় মাদ্রিদ। পেনাল্টি থেকে আল আহলির একমাত্র গোলটি করেন আলি মালুল। ম্যাচের শুরু থেকেও আক্রমণে উঠলেও আলো আহলির জালের খোঁজ পেতে অবশ্য বেশ অপেক্ষা করতে হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদকে। প্রথমার্ধের ৪২ মিনিটে গিয়ে প্রথম গোলের দেখা পায় মাদ্রিদ। আল আহলির এক ডিফেন্ডারের ব্যাকপাস থেকে বল পেয়ে যান ব্রাজিলিয়ান তরুন তুর্কি ভিনিসিয়াস। সেই বল নিয়ে বক্সে ঢুকে গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে আল আহলির জালে প্রথম গোলটি করেন ভিনিসিয়াস। প্রথমার্ধে গোল পেতে বেগফ পেলেও দ্বিতীয়ার্ধে স্বরূপে ফেরে লস ব্লাঙ্কোসরা। ম্যাচের ৪৬ মিনিটেই মদ্রিচের পাস থেকে বল পেয়ে আল আহলির জালে শট নিয়েছিলেন আরেক ব্রাজিলিয়ান রদ্রিগো। সেই শট গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দিলেও ফিরতি বলে দলের দ্বিতীয় গোল করেন ফ্রেডরিকো ভালভার্দে। ২ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পরও আল আহলির গোলমুখে আক্রমণ অব্যাহাত রাখে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। তবে গোলের দেখা আর পাচ্ছিলো না মাদ্রিদ। উল্টো ম্যাচের ৬৫ মিনিটে গিয়ে পেনাল্টি থেকে এক গোল শোধ করেন আল আহলির আলি মালুল। ম্যাচের ৮৭ মিনিটে গিয়ে পেনাল্টি পেয়েছিলো মাদ্রিদও। তবে স্পটকিক থেকে আল আহলির জালে বল জড়াতে পারেননি অভিজ্ঞ লুকা মদ্রিচ। তার শট ঠেকিয়ে দেন আল আহলির গোলরক্ষক মোহাম্মদ এল-শেনাউই। তবে ম্যাচের ইনজুরি টাইমে এসে আরও দুইবার আল আহলির জালের ঠিকানা খুঁজে পায় মাদ্রিদ। ৯২ মিনিটে দানি সেবায়োসের দারুণ এক ব্যাক-হিল ফ্লিকে বল পেয়ে যান রদ্রিগো। আগেরবার তার শট ঠেকিয়ে দিলেও এবার আর রদ্রিগোকে আটকাতে পারেননি আল আহলির গোলরক্ষক। আল আহলির জালে বল জড়িয়ে মাদ্রিদের জয় নিশহচিত করে দেন রদ্রিগো। ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে মাদ্রিদের হয়ে গোলের হালি পূরণ করেন সার্জিও এরিবেস। শেষমেশ ৪-১ গোলের জয় নিয়ে পঞ্চমবারের মতো ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠলো রিয়াল মাদ্রিদ। এর আগে চারবার ফাইনালে উঠে চারবারই শিরোপা জিতেছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। পঞ্চম শিরোপার পথে রিয়ালের সামনে এখন ফাইনালে বাধা ব্রাজিলিয়ান ক্লাব ফ্ল্যামেঙ্গোকে ৩-২ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে ইতিহাস সৃষ্টি করা সৌদি আরবের ক্লাব আল হিলাল।