October 2, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, December 20th, 2021, 7:24 pm

খুলনায় রাস্তার পড়ে থাকা সেই বৃদ্ধের ঠাঁই হলো ঢাকার বৃদ্ধাশ্রমে

খুলনার রাস্তার ধারে পড়ে থাকা ভারসাম্যহীন ভবঘুরে মিনারুলের (৭৫) ঠাঁই হয়েছে রাজধানী ঢাকার চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ারে। আন নাফি কল্যাণের পথ প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতার তার জীবনের গতি ফিরেছে।

রবিবার আনুষ্ঠানিকভাবে আন নাফি কল্যাণের মাধ্যমে চাইল্ড এ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ারের কাছে সমাজ-সংসারহীন মিনারুলকে তুলে দেয়া হয়।

আন নাফি কল্যাণের পথের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মোহাম্মদ এম এ সাদী বলেন, ‘গত ৮ ডিসেম্বর (বুধবার) খুলনার দৌলতপুরের পাবলা সবুজ সংঘ মাঠের পাশে কে বা কারা অসহায় বৃদ্ধ মিনারুলকে ফেলে রেখে যায়। তিনি ছিলেন একেবারে দুর্বল। পাশ ফেরার ক্ষমতাটুকু ছিল না তার। নিঃস্ব লোকটিকে দেখে এলাকাবাসী আমাদের ফোন দেয়। আন-নাফি কল্যাণের পথের টিম লিডার নাসিরুদ্দিনকে সঙ্গে নিয়ে আমি জরুরিভাবে সেখানে গিয়ে তাকে গোসল করিয়ে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করি।

তিনি বলেন, ‘এরপর স্থানীয় সমাজ সেবক শেখ মো. দেলওয়ার হোসেন ও এলাকাবাসীর সহায়তায় তাকে সবুজ সংঘ ক্লাবের পরিত্যাক্ত একটি ঘরে আশ্রয় দেয়ার ব্যবস্থা করি। সেখানে ১০ দিন তার নিয়মিত সেবা, পরিচর্যা ও খাবারের ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়া অনলাইনসহ নানাভাবে তার পরিজনদের খোঁজার চেষ্টা করতে থাকি। তিনি ভালোভাবে কথাও বলতে পারেন না। শুধু নামটা বলতে পেরেছেন। শেষে কোনো উপায় না পেয়ে রবিবার (১৯ ডিসেম্বর) আমরা ঢাকার মানবিক দাদা মিলটন সোমাদ্দারের দাতব্য প্রতিষ্ঠান চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ারে তাকে হস্তান্তরের ব্যবস্থা করি। অসহায় এই বৃদ্ধের সেবায় যারা ছিলেন সবাইকে বিশেষ কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই।

এম এ সাদী বলেন, ‘পথের মানুষের নিরাপদ আশ্রম চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ারে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে এরকম পরিবারহীন, অসহায় ও অজ্ঞাত ব্যক্তির আশ্রয় মিলেছে।’

চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এইজ কেয়ারের ব্যবস্থাপক মিরাজ হোসেন বলেন, ‘ভালো করে কথা বলতে পারেন না মিনারুল। শরীরের ওপর স্বাভাবিক নিয়ন্ত্রণ নেই। প্রসাব,পায়খানা আসলে বলতে পারেন না। আমরা তার চিকিৎসাসহ যাবতীয় ব্যবস্থার দায়িত্ব নিয়েছি।’

—ইউএনবি