June 28, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, June 9th, 2022, 9:00 pm

গলাচিপায় দুই যুবককে ন্যাড়া করে মাথায় আলকাতরা দেওয়ার অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

জেলা প্রতিনিধি, পটুয়াখালী :
পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার চরব্শ্বিাস ইউনিয়নের চর মহিউদ্দিন আবাসনপ্রকল্পে মঙ্গলবার বিকেলে চরবাংলা গ্রামের দুই যুবকের মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা লাগিয়ে গ্রাম ছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে ওই ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. সায়েম গাজীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মো.তুহিন হোসেন(১৮) বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার গলাচিপা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মালা দায়ের করেন। মামলায় উপজেলার চরবিশ্বাস ইউপি সদস্য সায়েম গাজীকে প্রধান আসামী করে মো. হাদী হাওলাদার ও মো. হজরত হাওলাদারকে আসামী করে তিন জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভিস্টিগেশন (পিবিআই)কে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলা নম্বর সিআর ৪২৯।
মামলা ও ভূক্তভোগীদের সূত্রে জানা গেছে, গলাচিপা উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নুরু সরদারের মেয়ের সাথে একই ইউনিয়নের চরবাংলা গ্রামের মজিদ মৃধার ছেলে তাহিদুলের বিয়ে হয়ে। এ বিয়ে অনুষ্ঠানে বরযাত্রী হিসেবে ভূক্তভোগী তুহিন হোসেন ও কালু গাজী ওই অনুষ্ঠানে বেড়াতে যায়। এসময় ভূক্তভোগী কালু মিয়ার আত্মীয় মো. সাইদুল প্যাদার সাথে তুচ্ছ ঘটনা কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়। এসময় সাইদুল ক্ষিপ্ত হয়ে কালু ও তুহিনকে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল ও চরড় থাপ্পর মারে। এর পরে ইউপি সদস্য সায়েম গাজী তুহিন ও কালুর মাথা ন্যাড়ার নির্দেশ দেন হজরত হাওলাদার(৪০) এবং হাদিহাওলাদারকে(৪৫)। তারা যুবকদের মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা লাগিয়ে দেয়। তার পর ওই দুই যুবককে ইউপি সদস্য এলাকা ছা[ড়া করার হুমকি দিয়ে তিনি চলে যান।
কালু গাজীর বাবা লিটন গাজী বলেন , “আমার ছেলে যদি কোন অপরাধ করে থাকতো তাহলে আমাকে বা আইনের কাছে দিত। তা না করে এ ঘটনা ঘটানোর ফলে আমি ও আমার পরিবারের কেউ লজ্জায় রাস্তায় বেড় হতে পারি না। আমার যে ক্ষতি হয়েছে তার সুক্ষ্ম বিচার চাই।”
এ ঘটনা সম্পর্কে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সায়েম গাজী বলেন, “আমি এ ঘটনার সাথে জড়িত নই। একটি চক্র আমাকে সামাজিকভাবে হেয় করার জন্য এ ধরণের অপবাদ দিয়ে যাচ্ছে। সঠিক তদন্ত হলেই প্রকৃত রহস্য বেড়িয়ে আসবে।”
চরবিশ্বাস ইউপি চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জেল হোসাইন বাবুল বলেন, এ ধরণের ঘটনা যারাই ঘটিয়ে থাকুক এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।
গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, ঘটনার পর সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ভূক্তভোগীদের থানায় এসে মামলা করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু কেউ থানায় আসেননি।