July 24, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, January 5th, 2024, 8:41 pm

গাজীপুরে ৯৩৫টি কেন্দ্রের মধ্যে ৫৯৫টিই ঝুঁকিপূর্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুরে পাঁচটি আসনে মোট ৯৩৫টি ভোট কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫৯৫টি কেন্দ্রকেই ঝুঁকিপূর্ণ বা অতি-গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গাজীপুর-১ আসনটি হচ্ছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাসন, কোনাবাড়ী ও কাশিমপুর থানা এবং কালিয়াকৈর উপজেলা নিয়ে গঠিত। এ আসনে মোট ১২৮টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে অতি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র রয়েছে ৮২টি। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৬ লাখ ৯৫ হাজার ৮৬৪ জন। আসনটিতে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তার সঙ্গে লড়ছেন কালিয়াকৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাসেল।

গাজীপুর-২ আসনটি গঠিত গাজীপুর সিটি করপোরেশনের টঙ্গীসহ ৩৬টি ওয়ার্ড নিয়ে। এ আসনে মোট ভোট কেন্দ্র ৪০০টি। এর মধ্যে ২৯৭টি কেন্দ্রকে অতি ঝুঁকিপূর্ণ এবং ১০৩টি কেন্দ্রকে কম ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাহিদ আহসান রাসেল এবং তার সঙ্গে লড়ছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি কাজী আলিম উদ্দিন। গাজীপুর-৩ আসন শ্রীপুর উপজেলা ও গাজীপুর সদরের ভাওয়ালগড়, পিরুজালী ও মির্জাপুর ইউনিয়ন এলাকা নিয়ে গঠিত। এ আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী রোমানা আলী এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান সংসদ সদস্য স্বতন্ত্র প্রার্থী ইকবাল হোসেন সবুজ। এ আসনে মোট ভোট কেন্দ্র ১৮০টি। এর মধ্যে ৯০টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে।

গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া উপজেলা) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করছেন সিমিনি হোসেন রিমি। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আলম আহম্মেদ। এ আসনে মোট ভোট কেন্দ্র ১২২টি। এর মধ্যে অতি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে আছে ৭২টি, আর বাকি ৫০টি কেন্দ্রও কম ঝুঁকিপূর্ণের তালিকায়। গাজীপুর-৫ হচ্ছে কালীগঞ্জ উপজেলা, গাজীপুর সিটির তিনটি ওয়ার্ড ও সদরের বাড়িয়া ইউনিয়ন নিয়ে আসন। আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী মেহের আফরোজ চুমকি। এখানে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন গাজীপুর জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আখতারউজ্জামান। এ আসনে মোট ভোট কেন্দ্র ১০৫টি। এর মধ্যে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ৫৪টি ও বাকি ৫১টি কেন্দ্র কম ঝুঁকিপূর্ণ।

গাজীপুর মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, গুরুত্বপূর্ণ ভোট কেন্দ্রগুলোতে র‌্যাব, পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে। এ ছাড়া সেনাবাহিনী ও বিজিবি স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। গাজীপুরের পুলিশ সুপার এস এম কাজী সফিকুল আলম বলেন, নির্বাচনের কেন্দ্রগুলোতে সার্বিক নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে। নির্বাচনের ভোট কেন্দ্রগুলোতে মোবাইল টিম কাজ করবে, থাকবে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সার্বিক নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক প্রস্তুত থাকবে। গাজীপুর জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম বলেন, গাজীপুরে পাঁচটি আসনে ৯৩৫টি ভোট কেন্দ্র আছে। সবগুলো কেন্দ্রকেই আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি।