June 30, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, June 21st, 2022, 7:53 pm

ঘুরে যাওয়া ম্যাচে জয় পেল কিংস

অনলাইন ডেস্ক :

জিয়াউর রহমানের লালকার্ডে বদলে গেল দৃশ্যপট। রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস অ্যান্ড সোসাইটি দুই মিনিটের মধ্যে হজম করল দুই গোল। স্বস্তির জয় নিয়ে প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা জয়ের পথে আরও এগিয়ে গেল বসুন্ধরা কিংস। মুন্সিগঞ্জের শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লে. মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার ২-০ গোলে জিতেছে বসুন্ধরা কিংস। ১৬ ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরও শক্ত করেছে অস্কার ব্রুসনের দল। এএফসি কাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের কারণে ৩৮ দিনের বিরতি শেষে ফের মাঠে গড়াল লিগ। শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণে আধিপত্য করলেও রহমতগঞ্জের রক্ষণে সুবিধা করতে পারছিল না কিংস। তবে ম্যাচের মোড় ঘুরে যায় ৩৪তম মিনিটে রহমতগঞ্জের গোলরক্ষক জিয়াউর লালকার্ড পাওয়ার পর। ডান দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা নুহা মারোংকে আটকাতে গিয়ে বক্সের বাইরে এসে হ্যান্ডবল করে বসেন জিয়াউর। রহমতগঞ্জ পরিণত হয় দশজনের দলে। ওয়ালি ফয়সালকে তুলে রাকিবুল ইসলাম তুষারকে পোস্ট সামলানোর দায়িত্ব দেন সৈয়দ গোলাম জিলানী। বক্সের বাইরে থেকে পাওয়া ওই সেট পিস থেকেই কিংসকে এগিয়ে নেন মিগেল দামাশেনো। শট নেওয়ার ভঙ্গি করছিলেন রবসন দি সিলভা রবিনিয়োও, কিন্তু দামাশেনো বাঁ পায়ের বাঁকানো শটে কাছের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন। তুষার ঝাঁপিয়ে পড়েও পাননি বলের নাগাল। এর একটু পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ হয় রবসনের গোলে। কর্নার কিকের প্রান্ত থেকে ক্রস বাড়ান রিমন হোসেন, দামাশেনো ডামি করে বল ছেড়ে দিলে বক্সে পেয়ে যান রবসন। বডি ডজে ডিফেন্ডারদের ভড়কে দিয়ে জায়গা করে নিয়ে ডান পায়ের নিচু শটে লক্ষ্যভেদ করেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। লিগে তার গোল হলো ১২টি। প্রথমার্ধের শেষ দিকে ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল রহমতগঞ্জও। কিন্তু মাহমুদুল হাসান কিরণের ফ্রি কিকে সানডে চিজোবার হেড ড্রপ খেয়ে ছুটছিল জালের দিকে, কোনোমতে ঝাঁপিয়ে আটকান কিংস গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। দশ জন নিয়ে দ্বিতীয়ার্ধে রক্ষণ জমাট রাখার দিকে আরও বেশি মনোযোগী হয় রহমতগঞ্জ। এর মধ্যেই সুযোগ পায় কিংস। ৭৬তম মিনিটে দামাশেনোর ফ্রি কিক ক্রসবারে লেগে গোললাইনের একটু বাইরে পড়ে। ভালো অবস্থায় থাকা মোহাম্মদ ইব্রাহিমও পারেননি ফিরতি সুযোগ কাজে লাগাতে। দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে বক্সের ঠিক উপরে ফ্রি কিক পায় রহমতগঞ্জ। সানডের শট বাইরে দিয়ে যায়। এরপর কর্নার থেকেও তারা পারেনি ব্যবধান কমাতে। প্রথম লেগের দেখায় কিংসের ঘাম ছুটিয়ে দিয়ে ৩-২ গোলে হেরেছিল রহমতগঞ্জ। পুরান ঢাকার দলটি ফিরতি লেগে পারল না সেভাবে চ্যালেঞ্জ জানাতে। টানা চার ম্যাচ হারা রহমতগঞ্জ ১৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে ঘুরপাক খাচ্ছে অবনমন অঞ্চলের কাছাকাছি।