December 2, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, November 9th, 2022, 7:26 pm

ছেলের অভিযোগ, সোহেল রানাকে দেশে ভুল চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে!

অনলাইন ডেস্ক :

চোখ সংক্রান্ত জটিলতা নিয়ে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন কিংবদন্তি অভিনেতা সোহেল রানা। গত ৩০ অক্টোবর তাকে সেখানে নিয়ে গেছেন তার স্ত্রী জিনাত বেগম ও ছেলে মাশরুর পারভেজ। এর আগে দেশের এভারকেয়ার হাসপাতালে অভিনেতার চিকিৎসা করানো হয়েছিলো। কিন্তু তাতে সোহেল রানার চোখের অবস্থার আরও অবনতি হয়। তাই বাধ্য হয়ে দ্রুত দেশের বাইরে নেওয়া হয়েছে তাকে। এদিকে সিঙ্গাপুর থেকেই বিষয়টি নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নায়কপুত্র মাশরুর পারভেজ। তার দাবি, দেশের হাসপাতালে তার বাবাকে ভুল চিকিৎসা দেওয়া হয়েছিলো। এজন্য তিনি এভারকেয়ার হাসপাতালের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবেন। গত সোমবার রাতে একটি ভিডিও বার্তায় মাশরুর জানান, এদিন সোহেল রানা অজ্ঞান হয়ে যান। তবে ধীরে ধীরে তিনি সুস্থ হয়ে উঠছেন। ঢাকার অস্ত্রোপচার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ঢাকায় বাবার ক্যাটারাক্ট সার্জারি করানো হয়েছে। তারিখটা মনে করতে পারছি না এখন, দিনটা মঙ্গলবার ছিলো, সেটা মনে আছে। অস্ত্রোপচারের দায়িত্বে ছিলেন এভারকেয়ার হাসপাতালের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) সায়েদুর রহমান। তারা বিষয়টা ধামাচাপা দিতে চেয়েছিলো। আমার কাছে সব রিপোর্ট আছে, সেটা দেখলেই বোঝা যায় যে তারা ভুল করেছে।’ দুঃসহ সময়ের কথা মনে করে মাশরুর বলেন, ‘আমার বাবা সুস্থ হয়ে উঠছেন। কিন্তু যে দুঃখ-কষ্টের মধ্য দিয়ে আমরা গেছি, সেটা অকল্পনীয়। আমরা এটার প্রাপ্য ছিলাম না।’ এই ঘটনায় হাসপাতালটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মাশরুর। তার ভাষ্য, ‘আমি এভারকেয়ার গ্রুপের বিরুদ্ধে লড়বো। তাদের বিরুদ্ধে লড়া মানে দেশের অনেক পাওয়ারফুল মানুষের বিরুদ্ধে লড়া। আমি জানি না কে আমাদের অভিযোগ নিতে চাইবেন, কিন্তু আমি সেরা আইনজীবীর কাছে যাবো। এটা জেতার বিষয় না, এর জন্য কত বছর লাগে, তাতেও আমার কিছু যায় আসে না। আমার কোনো ব্যাকআপের প্রয়োজন নেই। আমাকে এটা করতেই হবে এবং আমি এটা করবো। এটা নিজের কাছে আমার প্রতিজ্ঞা।’ সবশেষে এই ঘটনার জন্য বাবা সোহেল রানার কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন মাশরুর। এর আগেমাশরুর জানিয়েছিলেন, মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে সোহেল রানার চোখে আগেও একই সার্জারি করানো হয়েছিলো। সেটারই রুটিন সার্জারি হিসেবে ঢাকায় করানো হয়। কিন্তু তাতে জটিলতা আরও বেড়ে যায়। সেজন্যই অভিনেতাকে দ্রুত সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়েছে।