December 2, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, November 18th, 2022, 6:14 pm

জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে যাত্রাবাড়ী পুলিশ ফাঁড়ির উদ্যোগে মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক :

যাত্রাবাড়ী পুলিশ ফাঁড়ির উদ্যোগে মাদকদ্রব্য ব্যাবহারের কুফল, বাল্যবিবাহ, জঙ্গিবাদের কুফল, ভাড়াটিয়া তথ্যফরম বিতরন ও সংগ্রহ, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং সম্পর্কে সচেতনতা, সরকারি সম্পতি রক্ষণাবেক্ষণ, ডেঙ্গুজ্বর প্রতিরোধ প্রভূতি সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে মতবিনিময় ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে যাত্রাবাড়ি আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ প্রাঙ্গণে এ সভার আয়োজন করা হয়।

এসময় মাদক, বাল্যবিবাহ, জঙ্গিবাদের কুফল, ভাড়াটিয়া তথ্যফরম বিতরন ও সংগ্রহ, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং সম্পর্কে সচেতনতা, সরকারি সম্পতি রক্ষণাবেক্ষণ, ডেঙ্গুজ্বর প্রভৃতি বিষয় নিয়ে জনসচেতনতা মুলক আলোচনা করা হয়।আলোচনা সভা উদ্ভোধন করেন ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী মনিরুল ইসলাম মনু।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার জিয়াউল আহসান তালুকদার।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এসএম জাহাঙ্গীর হাছান বিপিএম বার, পিপিএম,অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার ওয়ারী বিভাগ, ডেমরা জোন।অন্যন্যের মধ্য আরো উপস্থিত ছিলেন , মধুসূদন সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনারডেমরা জোন, ওয়ারী বিভাগ।মাজহারুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম বার অফিসার ইনচার্জ যাত্রাবাড়ী থানা। নুরুল ইসলাম মল্লিক পিআই, ডেমরা জোন। অনুষ্ঠানে আলোচনায় অংশ নেন যাত্রাবাড়ি থানা ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকুর রহমান খান, যাত্রাবাড়ি আইডিয়াল স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মরিয়ম বেগম।

আলোচনা সভার সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন হান্নান হোসেন তালুকদার, ইনচার্জ, যাত্রাবাড়ী পুলিশ ফাঁড়ী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার জিয়াউল আহসান তালুকদার বলেন, মাদক,মাদকদ্রব্য ব্যাবহারের কুফল, বাল্যবিবাহ, জঙ্গিবাদের কুফল, ভাড়াটিয়া তথ্যফরম বিতরন ও সংগ্রহ, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং সম্পর্কে সচেতনতা, সরকারি সম্পতি রক্ষণাবেক্ষণ, ডেঙ্গুজ্বর সমাজে প্রকট আকার ধারণ করছে। সবাইকে বলছি, সবার আগে নিজের এবং পরিবারের ভালো বুঝতে হবে।ডিসি ওয়ারী বলেন, সবাই আমার সঙ্গে শপথ করো, মাদক থেকে দূরে থাকব,কখনো প্রেম করে পালিয়ে যাবে না, পরিবারকে কষ্ট দেবে না। ইভটিজিং, বাল্যবিয়ে, অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোর-কিশোরীদের পলায়ন সমাজে ব্যাধি হিসেবে জেনো রূপান্তরিত না হয়, এ কারণেই সবাইকে সচেতন হতে হবে।