December 6, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, November 2nd, 2021, 8:04 pm

জালালাবাদ গ্যাসের অধিগ্রহণকৃত ভূমি উদ্ধারে চতুর্থ দফা উচ্ছেদ অভিযান

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
উচ্চ চাপ বিশিষ্ট গ্যাস পাইপ লাইনের উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চতুর্থ দফা উদ্ধার অভিযান চলছে। জালালাবাদ গ্যাসের নবাগত এমডি প্রকৌশলী শোয়েব আহমদ মতিনের অনুরোধে গত ৩১ অক্টোবর থেকে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে জালালাবাদ গ্যাসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে সিসিক এ উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে। নগরীর আখালিয়া, নোয়াপাড়া ও কালীবাড়ী, করেরপাড়া, ৩দিনের অভিযানে এ এলাকায় প্রায় ৪ কিমি: পাইপ লাইনের ভূমি অবৈধ দখলমুক্ত হয়। এতে সীমানা প্রাচীর, বাড়ী, দোকান কোঠাসহ প্রায় ৪০টি বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এই এলাকায় অভিযানের পূর্বে অনেকে নিজ উদ্যোগে বিভিন্ন স্থাপনা ভেংগে ফেলেন। সকালে উচ্ছেদ অভিযান কার্য্যক্রম পরিদর্শন করেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, জালালাবাদ গ্যাসের এমডি প্রকৌশলী শোয়েব আহমদ মতিন।
দেবপুর-কুমারগাঁও উচ্চ চাপ বিশিষ্ট ৪০০ কিঃ মিঃ গ্যাস পাইপ লাইনের পাশাপাশি আবাসিক এলাকায় জালালাবাদ গ্যাসের অধিক গ্রহনকৃত কয়েক শতক ভূমি রয়েছে । জালালাবাদ গ্যাসের অধিকগ্রহনকৃত ভূমির প্রায় ৩০ কিমি: পাইপলাইনের উপর অবৈধভাবে সীমানা প্রাচীর, বাড়ী, দোকান কোঠাসহ বিভিন্ন স্থাপনা ছিল। এইসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের লক্ষে গত ১৬ মার্চ, ২৬ আগষ্ট ও ১৫ই সেপ্টেম্বর ৩দফা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে প্রায় ২০ কিমি: পাইপ লাইনের ভূমি অবৈধ দখলমুক্ত করা হয়।
জালালাবাদ গ্যাসের অধিগ্রহণকৃত ভূমিতে বসতবাড়ী স্থাপিত উচ্ছেদ সংক্রান্ত ট্রাক্সফোর্স কমিটির সদস্য সচিব ডিজিএম আমিরুল ইসলাম বলেন গ্যাস নিরাপত্তা আইনে রয়েছে উচ্চ চাপ বিশিষ্ট গ্যাস পাইপলাইনের উভয় পাশে নূন্যতম ১০ ফুট করে মোট ২০ ফুটের মধ্যে কোন ধরণের স্থাপনা নির্মাণ করা বিধি বর্হিভূত। এ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে এবং আগামীতে দক্ষিন সুরমা এলাকায় অভিযান পরিচালিত হবে। আমাদের এ অভিযানের পূর্বে বছরখানেক সময় ধরে কয়েকবার তাদেরকে নোটিশ দেয়া হয় পাশাপাশি মৌখিকভাবে অবগত করা হলেও তারা তা আমলে নেননি।
উদ্ধার অভিযানে উপস্থিত ছিলেন- জালালাবাদ গ্যাসের অধিগ্রহণকৃত ভূমিতে বসতবাড়ী স্থাপিত উচ্ছেদ সংক্রান্ত ট্রাক্সফোর্স কমিটির সদস্য সচিব ডিজিএম আমিরুল ইসলাম, ডিজিএম বিপ্লব বিশ^াস, কমিটির সদস্য ব্যবস্থাপক চন্দন কুমার কুন্ড, ব্যবস্থাপক ফজলুর হক, উপ- ব্যবস্থাপক মোনায়েম সরকার, সহকারী ব্যবস্থাপক সুহেদুর রহমান, রেজাউর রহমান, শহীদুল ইসলাম প্রমূখ।