November 30, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, October 26th, 2022, 7:19 pm

জুভেন্টাসকে বিদায় করে নক আউট পর্বে বেনফিকা

অনলাইন ডেস্ক :

উত্তেজনায়পূর্ণ ম্যাচে জুভেন্টাসকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬ নিশ্চিত করেছে বেনফিকা। এই পরাজয়ে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিল ইটালিয়ান জায়ান্ট জুভেন্টাস। ম্যাচের শুরুতেই এন্টোনিও সিলভার ও হুয়াও মারিওর পেনাল্টির পর রাফ সিলভার দুই গোলে বেনফিকা গ্রুপ-এইচ থেকে নক আউট পর্বের টিকিট পেয়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা জুভেন্টাসের থেকে বেনফিকা আট পয়েন্ট এগিয়ে রয়েছে, হাতে রয়েছে গ্রুপ পর্বের আর একটি ম্যাচ। এবারের মৌসুমে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় রজার শিমিডিটের দল অপরাজিত রয়েছে। আগামী সপ্তাহে তলানির দল মাকাবি হাইফাকে হারাতে পারলে বেনফিকা গ্রুপ পর্বে নিজেদের রেকর্ড ১৪ পয়েন্ট অর্জণ করবে। ইতোমধ্যেই টেবিলের শীর্ষে থাকা পিএসজির সাথে তারা সমান ১১ পয়েন্ট অর্জণ করেছে। তুরিনে জুভেন্টাস যদি পিএসজিকে হারাতে পারে তবে বেনফিকার সামনে সুযোগ রয়েছে গ্রুপের শীর্ষ দল হিসেবে পরের রাউন্ডে ওঠার। গত ৯ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত জুভেন্টাস চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিল। শিমিডিট বলেছেন, ‘আমরা বল ও বল ছাড়াও দারুন খেলেছি। জুভেন্টাসের মত কঠিন একটি দলের বিপক্ষে খেলাটা মোটেই সহজ নয়। কিন্তু আমাদের নিজেদের ওপর আস্থা ছিল এবং আমরা দারুন ফুটবল খেলেছি।’ জুভেন্টাস লিসবন সফরে যাবার আগে জানতো এই ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই। তিন পয়েন্ট পেলেই কেবল তাদের সামনে শেষ ১৬’র আশা টিকে থাকবে। কিন্তু ২১ মিনিটে মোয়েস কিন দলের পক্ষে সমতা ফেরালেও পুরো ম্যাচে আর ফিরে আসতে পারেনি তুরিনের জায়ান্টরা। আরো একটি বাজে রাতে জুভেন্টাসের স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে। যদিও ম্যাচের শেষ ভাগে মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রির দল কিছুটা হলেও লড়াই করেছিল। আরকাডিয়াদ মিলিক ও ওয়েস্টন ম্যাককিনর দ্রুত দুই গোলে অবশ্য শেষ রক্ষা হয়নি জুভেন্টাসের। হতাশাজনক বিদায়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আরো এক মৌসুম খালি হাতেই ফিরতে হলো তাদের। ম্যাচ শেষে আলেগ্রি স্কাই স্পোর্টস ইতালিয়াকে বলেছেন, ‘আমরা নিজেরাই সব কিছু কঠিন করে ফেলেছিলাম। গতকালের ম্যাচের আগেই কার্যত আমাদের বিদায় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল।’ এই পরাজয়ে আলেগ্রির ওপর চাপ আরো বাড়রো। এবারের প্রতিযোগিতায় পাঁচ ম্যাচের চারটিতেই পরাজিত হয়েছে আলেগ্রির দল। মাকাবির সাথে সমান তিন পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থাকা জুভেন্টাসের এখনো অন্তত ইউরোপা লিগে খেলাও নিশ্চিত নয়। লিসবনের মাঠে শর্ট কর্নার থেকে ১৭ মিনিটে এনজো ফার্নান্দেজের ইনসুইং ক্রসে এন্টোনিও সিলভা স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। মৌসুমে এটি তার প্রথম গোল। চার মিসিট পর ফিলিপ কোস্টাকের কর্ণার থেকে কিন গোল করে স্বাগতিক সমর্থকদের নিশ্চুপ করে দেন। যদিও প্রথমে তার গোলটি অফসাইডের কারণে বাতিল করা হয়েছিল। কিন্তু ভিএআর’র দীর্ঘ সময়ের পরীক্ষার পর জুভেন্টাসকে গোল উপহার দেয়া হয়। ২৮ মিনিটে হুয়ান কুয়াড্রাডোর বিপক্ষে আদায় করা পেনাল্টি থেকে হুয়াও মারিও শক্তিশালী শটে আবারো বেনফিকাকে এগিয়ে দেন। ৩৫ মিনিটে রাফা দলের হয়ে তৃতীয় গোল করেন। এর ঠিক আগে ডুসান ভøাহোভিচ সমতায় ফেরার সহজ একটি সুযোগ হাতছাড়া করেন। পর্তুগালের সাবেক ফরোয়ার্ড রাফা হুয়াও মারিওর লো ক্রস থেকে অনেকটা একক প্রচেষ্টায় ডি বক্সে ঢুকে পড়ে বল জালে জড়ান। বিরতির পর পাঁচ মিনিটে রাফা নিজের দ্বিতীয় গোল কওেরব্যবধান আরো বাড়িয়ে নিয়ে যান। লিওনার্দো বনুচ্চি বাজে একটি পাস সরাসরি এসে পড়ে আলেহান্দ্রো গ্রিমাল্ডোর কাছে। স্প্যানিশ এই ডিফেন্ডারের বাড়ানো পাসে রাফা প্রথম সুযোগেই জুভেন্টাস গোলরক্ষক ওজিচেচ সিজিসনিকে পরাস্ত করেন। হুয়াও মারিওর আরো একটি নিখুঁত ক্রস থেকে ২৯ বছর বয়সী রাফা ৭৬ মিনিটে হ্যাটট্রিকের সুযোগ হাতছাড়া করেন। এরপর হঠাৎ করেই ম্যাচে প্রাণ নিয়ে আসে জুভেন্টাস। রাফার মিসের দুই মিনিট পর বদলী টিনএজার স্যামুয়েল ইলিং-জুনিয়েরের ক্রস থেকে মিলিক গোল করেন। দুই মিনিট পর ম্যাককিনির গোলে জুভেন্টাস লড়াইয়ে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিল। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ম্যাচ শেষের চার মিনিট আগে সিজিসনিকে পরাস্ত করলেও রাফার শট পোস্টে লেগে ফেরত আসলে ব্যবধান বাড়াতে পারেনি স্বাগতিক বেনফিকা।