May 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Sunday, March 6th, 2022, 8:15 pm

জ্বালানি তেলশুণ্য সিলেট: ফিলিং স্টেশন মালিকদের ক্ষোভ

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
বিগত ৫ দিন থেকে সিলেটে পেট্রোল-ডিজেল-অকটেন সবররাহ বন্ধ থাকায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ‘সিলেট বিভাগীয় পেট্রোলপাম্প, সিএনজি, এলপিজি, ট্যাংকলরি মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’। এর প্রেক্ষিতে আসছে ৯ মার্চ সিলেট নগরীতে ট্যাংকলরি মিছিলসহ বেশ কিছু কর্মুচি ঘোষণা করেছে তারা।
গত ৫ মার্চ শনিবার রাতে উপশহরস্থ কার্যালয়ে ঐক্য পরিষদের এক বর্ধিত সভায় তীব্র ক্ষোভ জানিয়ে প্রস্তাবে বলা হয়, পেট্রোল-ডিজেল সবররাহ বন্ধ থাকায় নগরির বেশ কয়েকটি ফিলিং স্টেশন জ্বালানিশূণ্য হয়ে পড়েছে। এর ফলে সাধারণ গ্রাহকদের চরম দুর্ভোগে পোহাতে হয়। পাশাপাশি গ্রাহকদের চাহিদা পূরণে ব্যর্থ হয়ে ফিলিং স্টেশন কর্তৃপক্ষকে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হচ্ছে। পেট্রোল-ডিজেল সংকট দেখা দেয়ায় সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলোতে গ্রাহকদের প্রচন্ড চাপ বেড়েছে। ফলে সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলোকে গ্যাসের চাহিদা পুরণে হিমসিম খেতে হচ্ছে। সভায় জ্বালানি সরবরাহ স্বাভাবিক করতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।
মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক সিরাজুল হোসেন আহমদ আলমগীরের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহবায়ক সাজওয়ান আহমদের সঞ্চালনায় এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পেট্রোলিয়াম ডিলারস, ডিস্ট্রিবিউটরস, এজেন্টস্ এন্ড পেট্রোলপাম্প ওনার্স এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমদ চৌধুরী, সিএনজি ওনার্স এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় কমিটির সভাপতি আমির্জ্জুামান চৌধুরী, ট্যাংকলরি ওনার্স এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় কমিটির সভাপতি হুমায়ুন আহমদ, ঐক্য পরিষদ নেতা জনাব ফয়েজ উদ্দিন আহমদ, আলহাজ্ব কাজী মাহবুব হোসেন, আলী আফসার মোঃ ফাহিম, ব্যারিস্টার রিয়াসাদ আজিম আদনান, এ্যাডভোকেট নাদিম রহমান, এনামুল হক রুবেল, মনোয়ার আহমদ, মুুরাদ আলী সুমন, আলহাজ্ব হোসেন আহমদ, স্যার জন রাসু, ওয়ালি মাহমুদ, হুরাইয়ারা ইফতার হোসেন, লোকমান আহমদ মাছুম, রিয়াদ উদ্দিন, ফরিদ উদ্দিন বাবর, জিহাদ আহমদ, রফিকুল ইসলাম, মুশফিকুর রহমান চৌধুরী শাহেদ, সানোয়ার আলী, মনির হোসেন, সোহেল আহমদ, আব্দুল আজিজ, আব্দুল জলিল, কাওছার আহমদ, রেজওয়ান আহমদ চৌধুরী প্রমুখ। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করা হয়।
সভায় বক্তারা জ্বালানি সেক্টরে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানে দ্রুততার সাথে ব্যবস্থা না নিলে শিগগির কর্মসূচি ঘোষণার ব্যাপারে ঐক্যমত পোষণ করেন। সভায় মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আওতাভূক্ত ৫টি সংগঠনকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে পৃথক পৃথক কর্মসূচি পালনেরও নির্দেশনা দেয়া হয়।
এদিকে, জ্বালানি সেক্টরে বিদ্যমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ সিএনজি ফিলিং স্টেশন এন্ড কনভার্সন ওয়ার্কশপ ওনার্স এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় কমিটি, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম ডিলারস, ডিস্ট্রিবিউটরস, এজেন্টস্ এন্ড পেট্রোলপাম্প ওনার্স এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় কমিটি, বাংলাদেশ ট্যাংকলরি ওনার্স এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় কমিটি, বাংলাদেশ এলপিজি ফিলিং স্টেশন ওনার্স এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় কমিটি এবং সিলেট বিভাগীয় ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সমন্বয়ে গঠিত ‘সিলেট বিভাগীয় পেট্রোলপাম্প, সিএনজি, এলপিজি, ট্যাংকলরি মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’ প্রণীত ৬ দফা প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসনকে অবহিতকরণের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক বরাবরে চিঠি প্রদান করেছেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
৬ মার্চ রোববার ঐক্য পরিষদের আহবায়ক সিরাজুল হোসেন আহমদ আলমগীরের নেতৃত্বে সংগঠনের একটি প্রতিনিধি দল জেলা প্রশাসক মোঃ মজিবর রহমানের সাথে দেখা করে এই চিঠি হস্তান্তর করেন।
জেলা প্রশাসক চিঠি গ্রহণ করে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানে তিনি খোঁজ-খবর নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলে প্রতিনিধি দলকে আশ্বস্ত করেন। প্রতিনিধি দলে অন্যদের মধ্যে ছিলেন ঐক্য পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক আলী আফসার মোঃ ফাহিম, সাজওয়ান আহমদ, আহবায়ক কমিটির