October 7, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Monday, September 19th, 2022, 7:47 pm

জয়ের নায়ক ভিনিসিউস: আনচেলত্তি

অনলাইন ডেস্ক :

মাদ্রিদ ডার্বিতে গোল করতে পারেননি ভিনিসিউস জুনিয়র। গোলে সরাসরি সহায়তাও নেই তার। তবে ফুটবলে তো এসবই তো সবকিছু নয়! রিয়াল মাদ্রিদের তরুণ তারকা যেমন পারফরম্যান্স দিয়ে ঠিকই আদায় করে নিয়েছেন কার্লো আনচেলত্তির স্তুতি। তুমুল আলোচনায় থাকা এই ব্রাজিলিয়ানের কারণেই দল জিতেছে বলে মনে করেন রিয়াল মাদ্রিদ কোচ। লা লিগায় রোববার আতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে এই ম্যাচে ২-১ গোলে জিতে রিয়াল মাদ্রিদ ধরে রাখে জয়ের ধারা। চ্যাম্পিয়নদের হয়ে গোল দুটি করেন রদ্রিগো ও ফেদে ভালভেরদে। রদ্রিগোর গোলে রিয়াল এগিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় গোলটি পেতে পারতেন ভিনিসিউস। ৩৬তম মিনিটে মদ্রিচকে পাস দিয়ে মাঝমাঠ থেকে দ্রুতগতিতে সামনে এগিয়ে যান তিনি। মদ্রিচের কাছ থেকে ফিরতি পাস পেয়ে দারুণ ক্ষিপ্রতায় বাঁ পাশ দিয়ে ঢুকে যান বক্সে। আতলেতিকোর ডিফেন্ডারদের ছিটকে দিয়ে গোলমুখে গিয়ে শটও নেন, কিন্তু পোস্টে লেগে তা ফেরত আসে। ফিরতি বলে ফাঁকা থেকে গোল করেন ভালভেরদে। ভিনিসিউস পরে আতলেতিকোর আক্সেল উইটসেলের মাথার ওপর দিয়ে একটি ফ্লিক করার চেষ্টা করেছিলেন, যেটা সফল হয়নি। ম্যাচ শেষ আনচেলত্তির কাছে প্রশ্ন ছুটে গেল সেই ব্যর্থ ফ্লিক নিয়ে। রিয়াল কোচ মনে করিয়ে দিলেন, ওই শটে ব্যর্থ হলেও রিয়ালের দ্বিতীয় গোলে মূল অবদান ভিনিসিউসেরই। “ওই সময় অবশ্যই বলটি আরেকটু ভালোভাবে সামলানো যেত। তবে আমরা বলছি ভিনিসিউসকে নিয়ে, তার সামর্থ্যরে কোনো সীমা আমার জানা নেই। তার প্রতিভার দারুণ ঝলকেই আমরা দ্বিতীয় গোলটি পেয়েছি, সেটিই আমাদেরকে ডার্বি জিতিয়েছে।” দুই গোলস্কোরারের প্রশংসা করতেও ভুললেন না আনচেলত্তি। অহেলিয়া চুয়ামেনির দুর্দান্ত থ্রু বল থেকে দারুণ ফিনিশিংয়ে প্রথম গোলটি করেন রদ্রিগো। ভালভেরদে তো এখনও পর্যন্ত এই মৌসুমে সম্ভবত রিয়ালের সেরা খেলোয়াড়। ম্যাচের পর ম্যাচ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন গোটা মাঠ, উপহার দিচ্ছেন দুর্দান্ত সব গোল। এই ম্যাচও ব্যতিক্রম নয়। কোচ তুলে ধরলেন, এই দুজনের গুরুত্ব কেন দলে অনেক বেশি। “ওরা দুজনই স্পেশাল, কারণ ওরা এই যুগের ফুটবলার। বিভিন্ন পজিশনে খেলতে পারে ওরা, টেকনিক্যালি যেমন দুর্দান্ত, তেমনি শারীরিকভাবেও। ওরা যেভাবে এগিয়ে চলেছে, আমরা সবাই তাতে উচ্ছ্বসিত।”