December 1, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, November 3rd, 2021, 8:34 pm

জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করতে চায় বাংলাদেশ

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক :

জয় দিয়ে চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মিশন শেষ করতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সুপার টুয়েলভে এ পর্যন্ত জয়ের দেখা পায়নিটাইগাররা। তবে বৃহস্পতিবার (৪ঠা নভেম্বর) দুবাইয়ে নিজেদের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয় তুলে নিয়ে লজ্জা এড়াতে চায় বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় শুরু হওয়া ম্যাচটি সরাসরি দেখাবে গাজী টিভি ও টি-স্পোটর্স। সুপার টুয়েলভে টানা চার ম্যাচে পরাজিত হয়ে ইতোমধ্যেই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার কাছে আরোও একটি হারের অর্থ হবে- টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বে টানা ষষ্ঠবারের মতো টাইগারদের জয়হীন থাকা। এখন পর্যন্ত মূল রাউন্ডে বাংলাদেশের একমাত্র জয়টি আসে ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরে। তবে লজ্জার হাত থেকে বের সর্বাত্মক চেষ্টা করবে বাংলাদেশ। বাছাই পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের কাছে লজ্জার হারের পরও সুপার টুয়েলভে পা রাখে টাইগাররা। কিন্তু এই রাউন্ডে কোন কিছুই পরিকল্পনা মত হচ্ছে না টাইগারদের। সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকার কাছে ৫ উইকেটে, দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ৮ উইকেটে হারে টাইগাররা। আর তৃতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে মাত্র ৩ রানে হারতে হয়েছে বাংলাদেশকে। চতুর্থ ম্যাচে গতি ও বাউন্সি উইকেটে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৬ উইকেটে ম্যাচ হেরে বিদায় নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের। শ্রীলংকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ, এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের ভালো সুযোগ থাকলেও গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে কৌশলগত ভুলে হারতে হয়েছে টাইগারদের। গ্রুপের সেরা দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লড়াই করতে পারেনি বাংলাদেশ। বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদ বলেন, ‘আসলে আমরা ভালো খেলিনি, আমি বিশ্বাস করি আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারিনি। যেভাবে খেলেছি, আমরা তার চেয়ে ভালো দল। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত আমরা কয়েকটি সহজ ম্যাচ হেরেছি, যে ম্যাচগুলো জয়ের সুযোগ ছিলো। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তা হয়নি।’ বিশ্বকাপ শুরুর আগে নিজ মাঠে সম্প্রতি প্রথমবারের মত অস্ট্রেলিয়াকে দ্বিপাক্ষীক সিরিজে হারায় বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে জিতে টাইগাররা। উইকেটের মানের বিচারে ঐ জয় নিয়ে প্রশ্ন জাগে। ৪-১ ব্যবধানের জয় সংক্ষিপ্ত ভার্সনে বাংলাদেশের র্যাংকিংয়ে উন্নতি ঘটিয়েছে। দু’দল এখন পর্যন্ত ৯টি ম্যাচ খেলেছে, এরমধ্যে পাঁচটিতে জিতেছে অসিরা। নিজ মাঠে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের আগে, চারবার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া। সবগুলো বিশ্বকাপের মঞ্চে এবং সবগুলোতেই জিতেছিলো অস্ট্রেলিয়া। তবে এবার বিশ্বকাপের মঞ্চে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম জয়ের আশা করতেই পারে বাংলাদেশ। কারণ অস্ট্রেলিয়াকে চাপ সামলাতে হবে। যদিও সেমিফাইনালের আশা শেষ হবার পরও গর্ব করে বিশ্বকাপ শেষ করার সুযোগ টাইগারদের। অস্ট্রেলিয়ার এখনও সেমিফাইনাল খেলার সুযোগ রয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের বিপক্ষে রান রেটের ব্যবধান বাড়িয়ে ম্যাচ জিততে হবে অসিদের। অর্থাৎ, অস্ট্রেলিয়াকে আক্রমনাত্মক ক্রিকেট খেলতে হবে এবং এটিই বাংলাদেশকে ম্যাচ জেতাতে পারে।
টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশের পারফরমেন্স আশানুরূপ নয়। এখন পর্যন্ত ১১৯ ম্যাচ খেলে ৪৩টি জিতেছে তারা। ৭৪ ম্যাচে হার ও দু’টি পরিত্যক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত ক্রিকেটের এই সংক্ষিপ্ত সংস্করণের বিশ্বকাপে ৩১টি ম্যাচ খেলেছে এবং মাত্র সাতটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। এরমধ্যে ছয়টিই এসেছে বাছাই পর্বে। বাছাই পর্ব বাদে ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মূল পর্বে একমাত্র জয় আছে বাংলাদেশের। বাংলাদেশ দল : মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, মাহেদি হাসান, নাসুম আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, শামীম পাটোয়ারী ও রুবেল হোসেন।