November 30, 2021

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Wednesday, August 18th, 2021, 8:57 pm

টাকা আত্মসাৎ মামলায় ডিসি-এডিসির নাম না আসায় তদন্ত কর্মকর্তাকে তলব

অনলাইন ডেস্ক :

কিশোরগঞ্জের সাবেক ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো. সেতাফুল ইসলামের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় জবানবন্দি অনুসারে জেলা প্রশাসক (ডিসি) আজিম উদ্দিন বিশ্বাস ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দুলাল চন্দ্র সূত্রধরের নাম অভিযোগপত্রে না আসায় তদন্তকারী কর্মকর্তাকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৪ আগস্ট সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে হাইকোর্টে তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক আবদুল ওয়াদুদকে উপস্থিত হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। একই মামলার অপর আসামি জেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মো. সিরাজুল ইসলামের মামলা হতে অব্যাহতির জন্য করা রিভিশন আবেদনর শুনানিকালে গতকাল বুধবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ তলবের আদেশ দেন। আদালতে রিভিশন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. আশরাফ উদ্দিন ভূঁইয়া। এর আগে কিশোরগঞ্জে উন্নয়ন প্রকল্পের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অভিযুক্ত তৎকালীন পিরোজপুর জেলা ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো. সেতাফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে দুর্নীতি দমন কমিশনের সদস্যরা। ২০১৮ সালের ১৭ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে পিরোজপুর সার্কিট হাউজের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। নতুন সেনানিবাস স্থাপন, পানি উন্নয়ন বোর্ড, সড়ক ও জনপথ বিভাগের বিভিন্ন প্রকল্পের জমি অধিগ্রহণের জন্য কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলায় প্রায় ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ আসে। তবে সেখান থেকে পাঁচ কোটি টাকা সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো. সেতাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে। আরও ১০ কোটি টাকা আত্মসাতের চেষ্টা জেলা প্রশাসনের কাছে ধরা পড়েছে। জেলা হিসাবরক্ষণ অফিসে এ-সংক্রান্ত হিসাবের আরও কয়েক কোটি টাকা গরমিলের জন্যও কর্তৃপক্ষ এখন ওই কর্মকর্তাকে দায়ী করছে। পরে ওইসব অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ময়মনসিংহের সহকারী পরিচালক রাম প্রসাদ ম-ল বাদী হয়ে এ বিষয়ে কিশোরগঞ্জ সদর থানায় সেতাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার পর একইদিন তাকে গ্রেফতার করা হয়।