January 21, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Saturday, January 1st, 2022, 7:29 pm

টানা তৃতীয়বারের মতো শীর্ষে বেলজিয়াম

অনলাইন ডেস্ক :

রোমেলু লুকাকু, কেভিন ডে ব্রুইনে, এদেন আজার, থিবো কোর্তোয়া-বেলজিয়ান ফুটবলের সোনালী প্রজন্মের প্রতিনিধি। সঙ্গে আছেন আরও অনেকে। ক্লাব ফুটবলে সবাই নিজ নিজ দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। তাদের নিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে বছরের পর বছর ধরে দারুণ ধারাবাহিক বেলজিয়াম জাতীয় দল। তারই প্রভাব পড়েছে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে; টানা তৃতীয়বারের মতো শীর্ষে থেকে বছর শেষ করেছে রবের্তো মার্তিনেসের দল। দারুণ এই পথচলায় বড় একটা হতাশাও অবশ্য আছে। র‌্যাঙ্কিংয়ের সিংহাসন দখলে থাকলেও কোনো শিরোপার স্বাদ এখনও পাওয়া হয়নি দলটির। ফেভারিটের তকমা গায়ে সেটে টুর্নামেন্ট শুরু করেও প্রতিবারই ‘বাজে এক দিনে’ সম্ভাবনার অপমৃত্যু হয়েছে বারবার। তবে সেই হতাশা থাকলেও টানা তিনটা বছর র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকার গৌরব মলিন হয়ে যাচ্ছে না, যে যাত্রার শুরু ২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর। এর আগে প্রথম এই স্বাদ তারা পেয়েছিল ২০১৫ সালের কয়েক মাসে। সবশেষ প্রকাশিত ফিফা র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী অবশ্য তাদের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে ব্রাজিল। তাদের চেয়ে মাত্র ২.১ পয়েন্ট বেশি নিয়ে শীর্ষে আছে বেলজিয়াম। তবে ব্যবধান যাই হোক না কেন, আপাতত আলোচনার মূল বিষয়বস্তু দীর্ঘ তিন বছর ও তিন মাস ধরে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের চূড়ায় ‘রেড ডেভিলস’ নামে পরিচিত দলটি। দলটির এই পথচলায় ‘৩’ সংখ্যাকে ঘিরে গড়ে ওঠা কিছু পরিসংখ্যান তুলে ধরা হলো। ৩- বেলজিয়ামের আগে ইউরোপের তিনটি দেশ ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থেকে বছর শেষ করেছিল। ১৯৯৩ ও ২০১৪ সালে সিংহাসনে ছিল জার্মানি, ফ্রান্স ছিল ২০০১ সালে। ঠিক তেমনই স্পেন ছিল ২০০৮ থেকে ২০১৩ সময়ে। ৩- বেলজিয়াম একটি গোলও করতে পারেনি, এমন ম্যাচ খুঁজতে ফিরে যেতে হবে তিন বছর আগে। সবশেষ ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে জালের দেখা পায়নি তারা, ওই ম্যাচে তাদের ১-০ গোলে হারিয়েছিল ফ্রান্স। সেন্ট পিটার্সবুর্গে ১০ জুলাইয়ের ওই হতাশাজনক অধ্যায়ের পর টানা ৪২ ম্যাচে জালের দেখা পেয়েছে মার্তিনেসের শিষ্যরা। ৩- র‌্যাঙ্কিংয়ে আধিপত্য করলেও এখনও প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট জয়ের স্বপ্ন পূরণ হয়নি বেলজিয়ামের। ২০১৮-১৯ উয়েফা নেশন্স লিগকে (প্রতিযোগিতাটির এই অভিষেক আসরে গ্রুপ পর্ব পেরোতেই ব্যর্থ হয়েছিল তারা) বাদ দিলে টানা তিনটি প্রতিযোগিতায় শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হওয়া দলের বিপক্ষে হেরেছিল রেড ডেভিলরা; ২০১৮ বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে ফ্রান্সে, ২০২১ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে কোয়ার্টার-ফাইনালে ইতালি এবং ২০২০-২১ নেশন্স লিগের ফাইনালসের শেষ চারে ফ্রান্স বিদায় করে দেয় বেলজিয়ামকে। ৩- গত তিন বছরে মার্তিনেস প্রায় সবসময়ই তিন জন ডিফেন্ডার খেলিয়েছেন। প্রতিপক্ষ বিবেচনায় তিনি সাধারণত দল সাজান ৩-৫-২ কিংবা ৩-৪-৩ ফর্মেশনে। ৩- ২০২১ সালে বেলজিয়াম হেরেছে তিন ম্যাচে। ইউরোর কোয়ার্টার-ফাইনালে ইতালির বিপক্ষে ২-১ গোলে, নেশন্স লিগের সেমি-ফাইনালে ফ্রান্সের বিপক্ষে ৩-২ গোলে এবং নেশন্স লিগের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে আবারও ইতালির বিপক্ষে ২-১ গোলে হারে মার্তিনেসের দল। ৩- এবারের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আট ম্যাচে ছয় জয় ও দুই ড্রয়ে গ্রুপ সেরা হয়ে কাতারের টিকেট নিশ্চিত করে বেলজিয়াম। এই নিয়ে টানা তিন বিশ্বকাপে চূড়ান্ত পর্বে উঠল দলটি।