December 3, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Friday, November 11th, 2022, 8:15 pm

টুইটার নিয়ে কর্মীদের ভয়ংকর বার্তা : ইলন মাস্ক

অনলাইন ডেস্ক :

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার নিয়ে এর কর্মীদের ভয়ংকর বার্তা দিয়েছেন নতুন মালিক ইলন মাস্ক। আশঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, তার প্রতিষ্ঠানটি দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে। গত বৃহস্পতিবার টুইটার কর্মীদের সঙ্গে এক বৈঠকে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেন মার্কিন এ ধনকুবের। গত মাসে ৪ হাজার ৪০০ কোটি মার্কিন ডলারে টুইটারের পুরো মালিকানা কিনে নেন বিশ্বের শীর্ষ ধনকুবের ও মার্কিন বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি টেসলার প্রধান ইলন। তার টুইটার কেনার পর থেকে কোম্পানিটিতে অস্থিরতা চলছে। এরইমধ্যে কোম্পানির নিয়মনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছেন তিনি। পরিচালনা পর্ষদ বাতিল করে নিজেই পরিচালক হয়েছেন। দায়িত্ব নেয়ার কয়েক দিনের মধ্যে ৩ হাজার ৭০০ কর্মী ছাঁটাই করেছেন, যা কোম্পানির মোট কর্মীসংখ্যার অর্ধেক। শুধু তাই নয়, বাকি কর্মীদের কর্মঘণ্টা বাড়িয়েছেন। বন্ধ করেছেন ছুটি। মাস্কের মালিকানায় টুইটারের ভবিষ্যৎ নিয়ে আগে থেকেই নানা আশঙ্কা প্রকাশ করে আসছিলেন বিশেষজ্ঞরা। এখন মাস্ক নিজেই টুইটার নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করলেন। প্রতিষ্ঠানটি বড় ধরনের অর্থনৈতিক সংকটে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছেন তিনি। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনমতে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে টুইটারের কর্মীদের সঙ্গে প্রথমবারের মতো বৈঠক করেন মাস্ক। বৈঠকে কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, টুইটার আগামী বছর কোটি কোটি ডলারের ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। মাস্ক আরও বলেন, প্রতিষ্ঠানটির দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তিনি। মাস্কের আশঙ্কার মধ্যে টুইটারের শীর্ষস্থানীয় তিন কর্মকর্তা পদত্যাগ করেছেন। রয়টার্সের প্রতিবেদনমতে, গত বৃহস্পতিবার পদত্যাগের ঘোষণা দেন টুইটারের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা লিয়া কিসনার। একই দিনে পদত্যাগ করেছেন টুইটারের প্রধান প্রাইভেসি তথা গোপনীয়তা বিষয়ক কর্মকর্তা ডেমিয়েন কিয়েরান ও প্রধান কমপ্লায়েন্স কর্মকর্তা মারিয়ান ফোগার্টি।তিন শীর্ষ কর্মকর্তার পদত্যাগের পর যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেডারেল ট্রেড কমিশন বলেছে, তারা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে টুইটারের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে। এসব কর্মকর্তার পদত্যাগ টুইটারকে নিয়ন্ত্রক আদেশ লঙ্ঘনের ঝুঁকিতে ফেলতে পারে। দেউলিয়াত্বের আশঙ্কা, শীর্ষ কর্মীদের পদত্যাগ, ফেডারেল ট্রেড কমিশনের সতর্কতা-এসব বিষয়ে টুইটারের আনুষ্ঠানিক বক্তব্য জানার চেষ্টা করে রয়টার্স। কিন্তু টুইটার সাড়া দেয়নি।