May 24, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, February 28th, 2023, 8:18 pm

থ্রি লায়ন্সের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক :

ইংল্যান্ডের ক্রিকেটের আক্রমণাত্মক ব্র্যান্ডকে আমলে না নিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে থ্রি লায়ন্সের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত বাংলাদেশ। আজ বুধবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড। সিরিজে এগিয়ে থাকতে ভালো শুরুর লক্ষ্য বাংলাদেশের। সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল বলেন, ‘প্রথম লক্ষ্যই হলো সিরিজ জয়। আমরা সর্বশেষ পাঁচ বা ছয়টি সিরিজের সবগুলোতেই জিতেছি। ইংল্যান্ডকে হারানোর আত্মবিশ্বাস আমাদের আছে।’ ২০১৫ সালের পর একমাত্র দল হিসেবে বাংলাদেশের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ জিতেছে ইংল্যান্ড। বাংলাদেশে সিরিজ জয়ের পর থেকে ধীরে ধীরে শক্তিশালী হয়ে ওঠা ইংল্যান্ড দল আক্রমণাত্মক ব্র্যান্ডের খেলা শুরু করে। যা বিশ্বের যে কোন দেশে খেলতে সহায়ক হয়েছে ইংলিশদের জন্য। তাদের খেলার ধরন এতটাই কার্যকরী হয়েছে, যার সুবাদে বর্তমানে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। এই সিরিজ দিয়ে প্রধান কোচ হিসেবে বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করবেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। ইংল্যান্ডের আক্রমণাত্মক ব্র্যান্ডের ক্রিকেটকে ‘অভূতপূর্ব’ অভিহিত করে হাথুরু বলেন কিভাবে উইকেট ইস্যুকে পরিকল্পনার বাইরে রাখা যায়, সেটি তারা জানে। হাথুরুসিংহে বলেন, ‘আমরা ইংল্যান্ডের মত খেলতে গেলে সেটা ঠিক হবেনা। তারা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দল। তবে আমরা আমরা ভাল ক্রিকেট, আমাদের সেরাটা খেলতে চাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘তাদের একটি দল অন্য জায়গায় খেলছে, এখানে আরেকটি দল খেলছে। তাদের প্রতিভার একটা গভীরতা আছে। আমরা দেখতে চাই, আমরা কোথায় আছি এবং লক্ষ্য পূরণে ভুলগুলো খুঁজে বের করতে হবে। আমরা যদি এই কন্ডিশনে ভালো করতে পারি এটি আমাদের আত্মবিশ্বাস যোগাবে।’ বাংলাদেশের নিচু ও ধীর গতির উইকেট বিশ্বের যে কোন দলের জন্যই কঠিন। ভারতের মত দলও এমন সমস্যায় পড়েছিলো। ২০১৫ সাল থেকে এখানে দু’বার খেলে দু’টি ওয়ানডে সিরিজই হেরেছে টিম ইন্ডিয়া। এবার নিজেদের মাঠে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে বাংলাদেশের আধিপত্য। কারণ ইংল্যান্ড অধিনায়ক জশ বাটলার বলেছেন ভারতের মাটিতে ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে এখানকার কঠিন কন্ডিশনে নিজেদের পরীক্ষা করে নিতে চান তারা। বাটলার বলেন, ‘আমরা জানি এখানকার কন্ডিশন আমাদের জন্য কঠিন হবে তবে আমরা ঠিক এটিই চাই। এটি এমন একটি চ্যালেঞ্জ, দল হিসাবে কঠিন কন্ডিশনে নিজেদেরকে পরীক্ষা করতে চাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘সম্ভবত ভারত ও এখানকার কন্ডিশন প্রায় একই রকম। এটি আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হবে এবং এই সিরিজ নিয়ে আমরা অনেক বেশি রোমাঞ্চিত।’ হাথুরুসিংহে জানান, ইংল্যান্ডকে হারাতে নিজেদের শক্তি ও দক্ষতার উপর নির্ভর করবে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, ‘আমরা পূর্ণ শক্তি নিয়ে খেলবো। আমার মনে করি না, তারা পূর্ণ শক্তি নিয়ে খেলতে এসেছে। তাদের মধ্যে কয়েকজন টেস্ট ক্রিকেট খেলছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দক্ষতা ও শক্তির প্রতি আমার পূর্ন সমর্থন আছে। তারা অবিশ্বাস্য শক্তিশালী দল। ইংলিশ ক্রিকেটে দারুণ গভীরতা গড়ে তুলেছে তারা। প্রতিটি টেস্ট প্লেয়িং দলের জন্য তারা ঈর্ষনীয়। আমি আশা করি, আমার মেয়াদ শেষে ভালো কিছু রেখে যেতে পারবো।’ এখন পর্যন্ত ২১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড। এর মধ্যে বাংলাদেশের জয় চারটিতে এবং ইংল্যান্ডের জয় ১৭টিতে।