November 30, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Thursday, November 10th, 2022, 6:01 pm

দক্ষিন সুরমায় সরিষা বীজ বিতরণ ও কৃষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত

জেলা প্রতিনিধি, সিলেট :
সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে ‘কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষকদের মধ্যে সরিষা বীজ বিতরণ ও কৃষক সমাবেশ ১০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

দক্ষিণ সুরমার ইউএনও নূসরাত লায়লা নীরার সভাপতিত্বে এবং উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মহিউদ্দিন আহমেদের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান।
এসময় তিনি বলেন, দেশের খাদ্যসংকট মোকাবেলায় আমাদের কৃষক সমাজকেই দেশপ্রেমিকের ভূমিকা নিয়ে সর্বাগ্রে এগিয়ে আসতে হবে। কৃষিপ্রধান বাংলাদেশের মূল চালিকাশক্তিই আপনারা। পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহবান “এক ইঞ্চি জমিও খালি রাখা যাবে না” কে উপজীব্য করে আমাদের করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। তিনি বলেন, কৃষকদের সহায়তায় জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি, রাজনীতিবিদ, সমাজকর্মীসহ সাধারণ জনগণ সবাই মিলে উদ্যোগ নিতে হবে। তিনি নিজেদের স্বনির্ভর করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে নারী-পুরুষ সবাইকে বাড়ির আঙিনায় শাক-সবজি উৎপাদন এবং হাঁস-মুরগী পালনের আহবান জানান।
বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে  সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু জাহিদ, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেটের উপ-পরিচালক খায়ের উদ্দিন মোল্লা, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সাইফুল আলম ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান। বক্তব্য রাখেন ইউপি চেয়ারম্যানদের পক্ষে দাউদপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আতিকুল হক, উপজেলার কৃষকদের পক্ষে লালাবাজারের বাসিন্দা টিএইচ খান প্রমুখ।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুব্রত দেবনাথ। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন উপজেলা মডেল জামে মসজিদের ছানি ইমাম হাফেজ জুনায়েদ আহমদ এবং পবিত্র গীতা থেকে পাঠ করেন মোগলাবাজার রেবতি রমন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুক্তি সেন সামন্ত।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শামীম আহমদ, মোগলাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম শায়েস্তা, জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান ওয়েস আহমদ, লালাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান তোয়াজিদুল হক তুহিন, তেতলী ইউপি চেয়ারম্যান ওলিউর রহমান, মোল্লারগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মামুন খান, কামালবাজার ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হক, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি চঞ্চল মাহমুদ ফুলর, মোগলাবাজার থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএমসহ উপজেলা প্রশাসনের প্রতিটি দফতরের কর্মকর্তা।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু জাহিদ বলেন, কৃষি সহায়তায় দূর্নীতি বন্ধ করে প্রকৃত কৃষকরা যাতে সরকারি প্রণোদনা ও সহায়তা পায় সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান। তিনি বলেন, শুধু সহায়তা নয়, সহায়তা বা প্রণোদনা পরবর্তী তা মনিটরিং করা হলে তবে কার্যক্রম সঠিক লক্ষ্যে পৌঁছুবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেটের উপ-পরিচালক খায়ের উদ্দিন মোল্লা বলেন, দেশের অন্য অঞ্চলের তুলনায় সত্যিকার অর্থেই কিন্তু সিলেট অঞ্চলে কৃষিজ পণ্য উৎপাদনে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে কৃষকদের নিয়মিত পানি সরবরাহের পাশাপাশি কৃষি উপকরণ যাতে সহজলভ্য হয়, আমাদের সে ব্যবস্থা করতে হবে। সিলেটের মানুষ লবন আর কাপড়-চোপড় ছাড়া আর কোন কৃষিজ পণ্য যাতে বাজার থেকে কিনতে না হয়, সে ব্যবস্থা করতে হবে। এ লক্ষ্যে তিনি ছোট-বড় নদী ও খালগুলো পুনঃখননের ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেন।
স্বাগত বক্তব্যে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুব্রত দেবনাথ দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় কৃষিকাজের জন্য পানি সংকটের কথা উল্লেখ করে অবিলম্বে অত্র এলাকার ভরাট ও বেদখল হয়ে যাওয়া নদী ও খাল উদ্ধার এবং পুনঃখননের জোর সুপারিশ করেন।
আতিকুল হক চেয়ারম্যান দূর্নীতি বন্ধ করে যথাসময়ে প্রকৃত কৃষিজীবীদের কৃষি উপকরণ ও সরকারি সহায়তা প্রদানের দাবি জানান। তিনি বলেন, দক্ষিণ সুরমার কৃষকরা সময়মতো পানির ব্যবস্থা করতে পারলে কৃষিজ পণ্য উৎপাদনে পিছিয়ে থাকবে না। এ লক্ষ্যে তিনিও নদী ও খাল উদ্ধার এবং পুনঃখননের দাবি জানান।
কৃষক টিএইচ খান বলেন, বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষাপটে কৃষকরা দেশে অবহেলিত গোষ্ঠী। সরকার প্রধান বা মন্ত্রী এমপিরা কৃষকদের উন্নয়নে জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণের কথা বললেও মাঠপর্যায়ে তার প্রতিফলন নেই। সঠিক সময়ে প্রয়োজনীয় সরকারি অনুদান বা সহায়তা প্রদানের ব্যাপারে গুরুত্ব দিতে তিনি জোর দাবি জানান।
পরে প্রধান অতিথিসহ অতিথিবৃন্দ কৃষকদের হাতে সরকারি সহায়তার সরিষা বীজ তুলে দেন। এসময় ২শ’ কৃষকের মধ্যে এ সরিষা বীজ বিতরণ করা হয়। ক্রমান্বয়ে দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ২ হাজার ২শ’ কৃষকের মধ্যে এ সহায়তা প্রদান করা হবে।