June 17, 2024

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, May 16th, 2023, 8:21 pm

দারুণ জয়ে ফেডারেশন কাপের ফাইনালে আবাহনী

অনলাইন ডেস্ক :

প্রথমার্ধে একের পর এক সুযোগ নষ্ট করলেন শেখ রাসেলের এমফোন উদোহ। শুরুতে ধুঁকতে থাকা আবাহনীকে গোল এনে দিলেন দেনিয়েল কলিনদ্রেস সোলেরা। জোড়া গোলের আলো ছড়ালেন ফয়সাল আহমেদ ফাহিম। দারুণ জয়ে ফেডারেশন কাপের ফাইনালে উঠল মারিও লেমোসের দল। কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে আবাহনী লিমিটেড। ৩০ মের ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডানের মুখোমুখি হবে ফেডারেশন কাপের রেকর্ড ১২বারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। এবারের ফেডারেশন কাপের গ্রুপ পর্বেই দেখা হয়েছিল দুই দলের। ম্যাচটি ৩-৩ ড্র হলে আবাহনী হয়েছিল গ্রুপ সেরা, রানার্সআপ শেখ রাসেল।

কিন্তু এবার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে কোনো প্রতিরোধই গড়তে পারল না জুলফিকার মাহমুদ মিন্টুর দল। এ মৌসুমে স্বাধীনতা কাপেও মুখোমুখি হয়েছিল এই দুই দল। আবাহনীকে ৩-২ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল শেখ রাসেল। পরে অবশ্য বসুন্ধরা কিংসের কাছে হেরে যায় তারা। সেই ক্ষতে প্রলেপও দিল আবাহনী। অষ্টম মিনিটে গোলের দারুণ সুযোগ কড়া নাড়ে শেখ রাসেলের দরজায়। অবিশ্বাস্যভাবে তা নষ্ট করেন এমফন উদোহ। মাঝমাঠ থেকে অসাধারণ লং পাস বাড়িয়েছিলেন হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাস। এগিয়ে আসা গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে বুটের টোকায় বল বের করে ফাঁকা জালও পেয়ে যান উদোহ, কিন্তু তার কোনাকুনি শট বাইরের জাল কাঁপায়। একটু পর কাছের পোস্টে নেওয়া এই নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ডের আরেকটি শট আটকে আবাহনীর ত্রাতা শহিদুল। ৩৬তম মিনিটে আবারও সুযোগ আসে উদোহর সামনে। দারুণ টার্নে ডিফেন্ডারদের ফাঁক দিয়ে বল বের করে নিলেও শেষ শটটা নিতে পারেননি তিনি। শুরু থেকেই আবাহনীর আক্রমণভাগ ছিল বিবর্ণ। খেলার ধারার বিপরীতে ৩৭তম মিনিটে এক ঝটকায় তা ঝেড়ে ফেলে এগিয়ে যায় তারা।

নিজেদের অর্ধ থেকে উড়ে আসা বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বক্সে ঢুকে পড়েন কলিনদ্রেস সোলেরা। কোস্টা রিকার এই ফরোয়ার্ডের কিছুটা দুরূহ কোণ থেকে নেওয়া বাঁ পায়ের জোরাল শট দূরের পোস্টের ভেতরের দিকে লেগে জালে জড়ায়। প্রথমবারের মতো ‘পরীক্ষা’র মুখোমুখি হয়ে পরাস্ত শেখ রাসেল গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা। এগিয়ে থাকার আত্মবিশ্বাসী নিয়ে আবাহনী দ্বিতীয়ার্ধে সাহসী ফুটবল খেলতে থাকে। শুরুতেই কলিনদ্রেস ও রাফায়েল অগাস্তোর শট যায় বাইরে। ৫০তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে তারা। দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে বল নিয়ে বেরিয়ে যান রাফায়েল। বক্সে ঢুকে দারুণ আড়াআড়ি ক্রস বাড়ান এই ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার, ছুটে এসে নিখুঁত শটে লক্ষ্যভেদ করেন ফাহিম। মুকুট ধরে রাখার মঞ্চে ওঠা অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যায় আবাহনীর। ৬৭তম মিনিটে একেক প্রচেষ্টায় আক্রমণ শাণানো শেখ রাসেলের দীপক রায়ের শট বেরিয়ে যায় পোস্টের অল্প একটু বাইরে দিয়ে। তিন মিনিট পর ফাহিমের বিস্ময়কর গোলে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নেয় আবাহনী।

ডান দিক থেকে ২১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডের শট রানাকে বোকা বানিয়ে জালে জড়ায়। শেখ রাসেলের কেউই বুঝে উঠতে পারেননি শট নিবেন ফাহিম। হয়ত তারা ভেবেছিলেন ক্রস বাড়াবেন আবাহনীর ফরোয়ার্ড। ২০১২ সালে প্রথম এবং সবশেষ ফেডারেশন কাপের শিরোপা জিতেছিল শেখ রাসেল। ওই মৌসুমেই ঘরোয়া ‘ট্রেবল’ জিতেছিল দলটি। এবার তারা ছিটকে গেল সেমি-ফাইনাল থেকে। চলতি মৌসুমে স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে উঠেছিল তারা, কিন্তু বসুন্ধরা কিংসের কাছে হেরে স্বপ্ন ভাঙে দলটির। প্রিমিয়ার লিগে তারা ২২ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে। শীর্ষে থাকা কিংসের চেয়ে পিছিয়ে ১৮ পয়েন্টে। মানে চলতি মৌসুমে শেখ রাসেলের ট্রফি জয়ের আশা শেষ।