May 27, 2022

The New Nation | Bangla Version

Bangladesh’s oldest English daily newspaper bangla online version

Tuesday, April 12th, 2022, 7:47 pm

দিল্লি ক্যাপিটালসের সঙ্গে থাকতে বললেন মোস্তাফিজ

অনলাইন ডেস্ক :

আইপিএলে এবারের আসরে মোস্তাফিজুর রহমান একমাত্র বাংলাদেশি। খেলছেন দিল্লি ক্যাপিটালসে। উপহার দিয়েছেন অসাধারণ কিছু স্পেল। নতুন দলে যাওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই অন্যরকম অভিজ্ঞতা হওয়ার কথা তার। দিল্লি ক্যাপিটালসের পোস্ট করা ভিডিওতে সেই অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন কাটার মাস্টার। আইপিএলের সার্বিক অভিজ্ঞতা নিয়ে মোস্তাফিজের কথা, ‘অভিজ্ঞতা বলতে এখানে অনেকের সঙ্গে আমি কম-বেশি খেলাধুলা করেছি। এক সঙ্গে না খেললেও প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলেছি। যেমন গত মৌসুমে চেতন সাকারিয়া ছিল। ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে খেলেছি দুই বছর। দিল্লির সঙ্গেও এখন পর্যন্ত সব মিলিয়ে আমার অভিজ্ঞতা ভালো।’ মুম্বাইকে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করলেও পরে দুটি ম্যাচ হেরেছে দিল্লি। সর্বশেষ কলকাতা নাইট রাইডার্সকে হারিয়ে আবার জয়ের ধারায় ফিরেছে। এখন পর্যন্ত পৃথ্বী শ’ ও ডেভিড ওয়ার্নারের ওপেনিং জুটি অসাধারণ। কিন্তু মিডল অর্ডারকে আরেকটু এগিয়ে আসতে হবে। বামহাতি রিস্ট স্পিনার কুলদীপ শীর্ষ উইকেট শিকারি হলেও মোস্তাফিজের দুর্দান্ত বোলিংয়ের অবদানও কম নয়। মোস্তাফিজের মতে ব্যাটিং-বোলিংয়ে দুই বিভাগেই ভারসাম্যপূর্ণ একটি দল দিল্লি ক্যাপিটালস, ‘আমরা দুটা জিতেছি, দুটা হেরেছি। আর দলের ভারসাম্য খুব ভালো। ব্যাটিং বলেন কিংবা বোলিং; ভালো ভালো খেলোয়াড় আছে। সব মিলিয়ে আমরা একটা ভারসাম্যপূর্ণ একটা দল।’ এবারের মেগা অকশনের প্রথম দিন সাকিব আল হাসান দল না পেলেও মোস্তাফিজুর রহমানকে কিনে নেয় দিল্লি। তাকে ভিত্তিমূল্য ২ কোটি রুপিতে কিনেছে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি। নিলাম নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মোস্তাফিজ জানান, তিনি ওই সময় বিপিএল খেলতে ব্যস্ত ছিলেন, ‘অকশন তো আমি দেখিনি। ওই সময় বিপিএল চলছিল। আমাদের টিম ব্যাটিং করছিল, আমি ডাগ আউটে ছিলাম। নিলাম দেখার পর একজন বললো যে ফিজ তুই দিল্লি ক্যাপিটালসে। তার পর ভালো লাগছে নতুন টিমে। শেষ তিন বছর তিনটা টিমে খেলেছি। এ বছর নতুন টিমে।’ এখন পর্যন্ত দিল্লির হয়ে মোস্তাফিজ উইকেট শিকার করেছেন ৩টি। ইকোনমি অবশ্য ৫.৮৩। তার পারফরম্যান্সে হেড কোচ রিকি পন্টিংও ভীষণ খুশি। সম্প্রতি আলাদ করে তো ড্রেসিং রুমে তাকে ম্যান অব দ্য ম্যাচের খেতাব দিয়েছেন পন্টিং। কোচের এমন মূল্যায়ন নিয়ে মোস্তাফিজের প্রতিক্রিয়া, ‘ভালোর তো শেষ নেই। সব সময় চেষ্টা করি আমার সেরাটা দেওয়ার। এটা শুধু আমার জন্য না, প্রতিটা প্লেয়ারের জন্য অনুপ্রেরণাদায়ক। ম্যাচ হারি আর জিতি- ড্রেসিং রুমে সবার সামনে কোচ যদি আপনার পারফরম্যান্সের মূল্যায়ন করে, আমার মনে হয় এটা ভালো।’ এর পর বাংলাদেশি ভক্তদের জন্য আলাদা করে বার্তাও দেন ২০১৬ সালে আইপিএলের ইমার্জিং প্লেয়ারের খেতাব জেতা এই পেসার, ‘আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যেন আরও ভালো খেলা উপহার দিতে পারি। আর দিল্লি ক্যাপিটালসের সঙ্গেই থাকুন। যেন আরও ভালো ভালো খেলা উপহার দিতে পারি।’